Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৩০ কার্তিক ১৪২৬, বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৫৩ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

আফগানদের হারাতে বদ্ধ পরিকর বাংলাদেশ


২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শুক্রবার, ০৮:৩১  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


আফগানদের হারাতে বদ্ধ পরিকর বাংলাদেশ

ঢাকা : নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ইতোমধ্যেই ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। ফলে লিগ পর্বের এক ম্যাচ বাকী থাকতেই ফাইনালের টিকিট পায় টাইগাররা। ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী আফগানিস্তান।

এমনকি লিগ পর্বের শেষ ম্যাচেও টাইগারদের প্রতিপক্ষ আফগানরা। তাই ফাইনালের আগে আগামীকাল আফগানিস্তানকে হারিয়ে আরো আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠতে বদ্ধ পরিকর বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে আগামীকাল সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে লিগ পর্বের ষষ্ঠ ও শেষ ম্যাচে লড়বে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয় দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু করেছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে লজ্জার হারের স্বাদ পেতে হয় টাইগারদের। ২৫ রানে ম্যাচ হারে বাংলাদেশ। অর্থাৎ লিগে প্রথম পর্বে একটি করে ম্যাচে জয় ও হারের স্বাদ নেয় সাকিবের দল।

ফিরতি পর্বে আবারো জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলে বাংলাদেশ। কারণ ৩ ম্যাচে ২টি জয়ে ৪ পয়েন্ট অর্জন করে বাংলাদেশ। প্রথম দু’ম্যাচে ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট ছিলো আফগানিস্তানেরও। আর ৩ ম্যাচে সবগুলোতে কোন পয়েন্ট ছাড়াই সিরিজ থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায় জিম্বাবুয়ের। কেননা বাকি

ম্যাচে(আজ)আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ী হলেও কোন লাভ হচ্ছেনা জিম্বাবুয়ের। ফিরতি পর্বে বাংলাদেশের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে নিজেদের বিদায় নিশ্চিত করে ফেলে জিম্বাবুয়ে। আফগানিস্তানকে নিয়ে ফাইনালে উঠে বাংলাদেশ।

ফাইনালের আগে ফিরতি পর্বেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলতে হবে বাংলাদেশকে। শিরোপা লড়াইয়ে নামার আগে আফগানদের বিষয়ে আরও ধারনা পাবার সুযোগ পেল টাইগাররা। তবে এ ম্যাচ জিতে ফাইনালের আগে আত্মবিশ্বাস হবার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশের।

জয়ের লক্ষ্যের সাথে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে নিজেদের রির্জাভ বেঞ্চ ঝালাই করে নিতে পারে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে ইনজুরিতে পড়েছেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচে অভিষেক হওয়া স্পিনার আমিনুল ইসলাম। তাই আফগানিস্তানের বিপক্ষে অনিশ্চিত তিনি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বোলিং করে ফলো থ্রোতে বল ধরতে গিয়ে আঙ্গুলে ব্যাথা পান আমিনুল। পরে তিনটি সেলাই দিতে হয়েছে তার আঙ্গুলে। আমিনুল বলেন, ‘মাসাকাদজার স্ট্রেইট ড্রাইভ করা একটি বল আমি থামাতে চেয়েছিলাম। কিন্তু পারিনি। বলটি আমার হাতে লাগে, ব্যাথা পাওয়ায় পরবর্তীতে হাতে সেলাই করতে হয়েছে।’

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।