Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০, ৮:২২ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

শমশেরনগরসহ ৫ চা বাগান শ্রমিকরা কাজে ফিরেছে


৩০ মার্চ ২০২০ সোমবার, ০৭:০৭  পিএম

নূরুল মোহাইমীন মিল্টন, বাকৃবি প্রতিনিধি

বহুমাত্রিক.কম


শমশেরনগরসহ ৫ চা বাগান শ্রমিকরা কাজে ফিরেছে

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারিভাবে সারাদেশে ছুটি ঘোষণা করে নিজ নিজ ঘরে নিরাপদে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়। তবে চা বাগান সমূহে শ্রমিকদের ছুটি দেওয়া হয়নি। এ ছুটি স্বাস্থ্য সচেতনতায় গুরুত্বপূর্ণ দাবি জানিয়ে শুক্রবার সকালে কমলগঞ্জের শমশেরনগর এর পাঁচ বাগানের পঞ্চায়েত কমিটি ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দরা বাগান ব্যবস্থাপকের সাথে কথা বলে প্রধানমন্ত্রীর গৃহীত সাধারণ ছুটির সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে নিজেরাই ছুটিতে চলে যান।

এবার দৈনিক মজুরি না পাওয়ার আশঙ্কায় দু’দিন পর সোমবার সকাল থেকে শমশেরনগর ও তার ফাঁড়ি কানিহাটি, দেওছড়া, বাঘিছড়া ও ডবলছড়া চা বাগানের শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন।

জানা যায়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি ছুটি ঘোষণার পরও চা শ্রমিকরা এ ছুটির আওতার বাহিরে রয়েছেন। গত কয়েক দিন ধরে সকল চা বাগান শ্রমিকদের মাঝে ক্ষোভ দেয়। ফলে শুক্রবার সকালে শমশেরনগর চা বাগানের চা শ্রমিকরা নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করে। চা বাগান পঞ্চায়েত কমিটির নেতৃবৃন্দ ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দ সকালে চা বাগান ব্যবস্থাপকের কার্যালয়ে গিয়ে এই দুর্যোগের সময় সারাদেশের মত চা শ্রমিকদেরও ছুটি দেয়ার দাবির এক পর্যায়ে নেতৃবৃন্দ বাগান ব্যবস্থাপককে জানিয়ে শুক্রবার সকাল থেকে চা শ্রমিকরা নিজ নিজ ঘরে অবস্থান নিয়ে ছুটি পালন করে।

শমশেরনগর ইউপি সদস্য সীতারাম বীন ও চা শ্রমিক যুব নেতা মোহন রবিদাস বলেন, কাজ শুরু না করলে শ্রমিকরা দৈনিক মজুরি পাবে না। যেহেতু সরকারিভাবে ছুটি দেওয়া হয়নি। এই আশঙ্কায় শমশেরনগরসহ ৫ চা বাগানের শ্রমিকরা সোমবার সকালে কাজে যোগে দিয়েছে। তবে আজ এক বেলা সকালে চা শ্রমিকরা কাজ করেছে।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের মনু-ধলই ভ্যালির (অঞ্চলের) কার্যকরি কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল দাশ পাইনকা বলেন, সোমবার সকাল থেকে শমশেরনগরসহ ৫টি চা বাগানের শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়েছেন। তবে সোমবার সকালে চা শ্রমিকরা এক বেলা কাজ করেছেন।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।