Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১০ কার্তিক ১৪২৭, রবিবার ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১১:১২ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

মৌলভীবাজারে মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিংয়ে চা উৎপাদনে বিপর্যয়


২৩ আগস্ট ২০২০ রবিবার, ০৭:৪৩  পিএম

নূরুল মোহাইমীন মিল্টন, নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


মৌলভীবাজারে মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিংয়ে চা উৎপাদনে বিপর্যয়

মৌলভীবাজার : পল্লী বিদ্যুতের লোডশেডিং এ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে চা উৎপাদনে মারাত্মক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি কুলাউড়া গ্রিডে একটি পাওয়ার ট্রান্সফরমার বিকল হওয়ায় চা উৎপাদনে আরো নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। প্রতিদিন চার, পাঁচ ঘন্টা লোডশেডিং থাকায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন লাখো বিদ্যুৎ গ্রাহকরা।

মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কমলগঞ্জ জোনালের অধীনস্থ চা বাগান কর্তৃপক্ষ ও বিদ্যুৎ গ্রাহকদের এই দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে কুলাউড়া গ্রিডে ত্রুটি থাকলেও গত ১৯ আগষ্ট বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি) এর সাপ্লাইকৃত পাওয়ার ট্রান্সফরমারটি বিকল হয়ে পড়ায় লোডশেডিং বৃদ্ধি পেয়েছে। চা বাগান সংশ্লিষ্টরা জানান, পল্লী বিদ্যুতের লোডশেডিং এর কারণে চা প্রক্রিয়াজাতকরণে মারাত্মক বিপর্যয় নেমে আসছে। গত জুলাই মাসে ৬১ দশমিক ৫০ ঘন্টা লোডশেডিং হয়েছে। এতে কমলগঞ্জের মনু-ধলই ভ্যালির চা বাগানসমূহে ব্যাপক ক্ষতি হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লি: (পিজিসিবি) এর কুলাউড়া গ্রিডে দু’টি পাওয়ার ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। এরমধ্যে একটি পাওয়ার ট্রান্সফরমার পিডিবিসহ এবং অন্য ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে আরইবিসহ বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে। গত ১৯ আগষ্ট সকাল ৮টায় কুলাউড়া গ্রিডে দু’টি ট্রান্সফরমারের মধ্যে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি) এর সাপ্লাইকৃত পাওয়ার ট্রান্সফরমারটি বিকল হয়ে পড়ে। ফলে কমলগঞ্জ, বড়লেখা উপজেলা এবং কুলাউড়া ও জুড়ি উপজেলার আংশিক বিদ্যুৎ সরবরাহে বিপর্যয় নেমে আসে। প্রতিদিন কয়েক দফায় চার থেকে পাঁচ ঘন্টা করে বিদ্যুৎ এর লোডশেডিং করতে হচ্ছে।

মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কমলগঞ্জ জোনালের অধীনস্থ ৯৭ হাজার ৮শ’ জন বিদ্যুৎ গ্রাহক ছাড়াও কয়েকটি চা কারখানা ও বিভিন্ন মিলকারখানা রয়েছে। বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের ফলে গ্রাহকদের ভোগান্তির পাশাপাশি এসব মিলকারখানায়ও উৎপাদন বন্ধ হয়ে পড়ে। কুলাউড়া গ্রীডে বিকল হয়ে পড়ায় নতুনভাবে ৬২ মেট্রিক টন ওজনের পাওয়ার ট্রান্সফরমারটি স্থাপনে আরও চার, পাঁচ দিন সময় লাগতে পারে। এতে গ্রাহকদের ভোগান্তি ও কলকারখানায় উৎপাদনেও মারাত্মক প্রভাব পড়বে। এতে চা বাগানে কারখানা সমুহে চায়ের উৎপাদন ও যন্ত্রাংশে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার অভিযোগ উঠছে।

বাংলাদেশ চা সংসদ, মনু-ধলই ভ্যালী সার্কেল এর চেয়ারম্যান, ন্যাশনাল টি কোম্পানি (এনটিসি) এর চাম্পারায় চা বাগান ব্যবস্থাপক মো. শামসুল ইসলাম বলেন, বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার পর কোন কোন সময়ে কারখানার মটর নষ্ট হয়ে পড়ে। চা প্রক্রিয়াজাতকরণে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তিনি বলেন, এসব বিষয়ে মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জিএম বরাবরে লিখিতভাবেও অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

ন্যাশনাল টি কোম্পানি (এনটিসি) এর কমলগঞ্জের ডিজিএম মাহমুদুল হাসান বলেন, ফ্যাক্টরিতে সবকিছু সেট করার পর যখন কারেন্ট চলে যায় তখন মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটে। পুনরায় জেনারেটর লাগিয়ে সেট করতে গিয়ে চায়ের কোয়ালিটিও বিনষ্ট হয়। তাছাড়া জেনারেটরে কারখানা চালু অনেক ব্যয় বহুল। তিনি আরও বলেন, এমনিতেই চায়ের দাম কম। আর বিদ্যুতের লোডশেডিং এর কারণে আরও ক্ষতি গুণতে হচ্ছে। অন্যদিকে বিকাল ৫টা থেকে রাত১১টা পর্যন্ত বিদ্যুতের ভোল্টেজ কম থাকে। তাতেও ক্ষতি হয়।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির একজন প্রকৌশলী বলেন, কুলাউড়া গ্রিডে পাওয়ার ট্রান্সফরমারে ত্রুটি দেখা দেয় গত কোরবানির ঈদের দিন থেকে। ততোদিনেও সেটি মেরামত না করায় ১৯ আগষ্ট বিকল হয়ে পড়ে। এবিষয়ে তাৎক্ষণিক জোরালো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। ফলে ঘন ঘন লোডশেডিং এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে হচ্ছে।

স্থানীয় গ্রাহক কবি আব্দুস শহীদ সাগ্নিক অভিযোগ করে বলেন, ট্রান্সফরমার বিকল, গ্রিডে পাখি বসাÑএসব অজুহাত দেখিয়ে ঘন ঘন বিদ্যুৎ বন্ধ রাখা হয়। এতে সংশ্লিষ্ট গ্রাহকরা সীমাহীন ভোগান্তির মধ্যে পড়েন। বিষয়টি খুবই অসহনীয়। এর একটি স্থায়ী প্রতিকার হওয়া আবশ্যক। নতুবা জনমতে ক্ষোভ বৃদ্ধি পেয়ে নানা অপ্রীতিকর ঘটনার সূত্রপাত হতে পারে।

মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কমলগঞ্জ জোনালের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার গণেশ চন্দ্র দাস বলেন, ট্রান্সফরমারটি বিকল হওয়ার পর বর্তমানে পিডিবি’র সাপ্লাইকৃত পাওয়ার ট্রান্সফরমারের সাথে যুক্ত করে তিন উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। এখানে ৫৩ মেঘাওয়াট বিদ্যুতের চাহিদা থাকলেও একটি ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে ৩২ মেঘাওয়াট, অবশিষ্ট ২১ মেঘাওয়াটে শ্রীমঙ্গল থেকে ৬ মেঘাওয়াট আনার পরও ১৫ মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ ঘাটতিতে রাত্রিকালীন লোডশেডিং করে চলতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, চার, পাঁচ দিনের মধ্যে ট্রান্সফরমারটি স্থাপন করা হলে সমস্যার সমাধা হবে।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea

অসঙ্গতি প্রতিদিন -এর সর্বশেষ