Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২ শ্রাবণ ১৪২৬, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ২:৪৪ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

বৃহস্পতিবার আসলেই আশার আলো খোঁজেন পাটকল শ্রমিকরা


১৫ মে ২০১৯ বুধবার, ০১:৩৪  পিএম

শেখ হেদায়েতুল্লাহ, খুলনা

বহুমাত্রিক.কম


বৃহস্পতিবার আসলেই আশার আলো খোঁজেন পাটকল শ্রমিকরা

খুলনা : বৃহস্পতিবার আসলেই পাটকল শ্রমিকরা আশার আলো খোজেন। মিল কর্তৃপক্ষেও কোন নির্দেশনা না আসায় সেই আলো অন্ধকারে মিইয়ে যায়। বকেয়া পাওনা পরিশোধসহ ৯ দফা দাবিতে রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল শ্রমিকদের রমজান মাসের শেষ বেলা কাটছে রাজপথে দুই ওয়াক্ত নামাজ আদায় ও ইফতারির মধ্য দিয়ে। গত ১৩ মার্চ থেকে রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল শ্রমিকরা ধারাবাহিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

পাটখাতে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, বকেয়া মজুরি-বেতন পরিশোধ, জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশনের রোয়েদাদ ২০১৫ কার্যকর, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ ও গ্র্যাচ্যুইটির অর্থ পরিশাধ, চাকুরিচ্যুত শ্রমিক-কর্মচারিদের পূর্নবহাল, সকল মিলে সটআপের অনুকুল শ্রমিক-কর্মচারিদের শূন্য পদের বিপরীতে নিয়োগ ও স্থায়ীকরণসহ ৯ দফা দাবিতে শ্রমিকরা ১৩ মার্চ থেকে আন্দোলন চালিয়ে আসছে।

আন্দোলনের মধ্যে গত ৭ এপ্রিল বিজেএমসি থেকে ২৫ এপ্রিলর মধ্যে বকেয়া মজুরি ও বেতন প্রদানসহ ১৮ মের মধ্যে মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন করা হবে বলে প্রতিশ্র“তি দেয়। এরপর শ্রমিকরা অবরোধ ও কর্মবিরতী স্থগিত করে কাজে যোগ দেয়। ২৫ এপ্রিল এক সপ্তাহ সময় নেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী ও খুলনা- ৩ ( খালিশপুর ও দৌলতপুর) আসনের সংসদ সদস্য বেগম মন্নুজান সুফিয়ান। এরপর ২ মে মজুরি না দেওয়ায় ৫ মে থেকে মিলে উৎপাদন বন্ধ করে কর্মবিরতি পালন শুরু করেছে শ্রমিকরা। ঢাকায় শ্রমিক নেতাদের বৈঠকের ঘোষণা অনুযায়ী ১৩ মে থেকে সারাদেশের ২৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকলে একযোগে এ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

রমজান মাসের শুরু থেকেই বেলা ৪টা বাজলেই শিল্পাঞ্চল খালিশপুরের নতুন রাস্তা মোড়ে বিভিন্ন জুট মিল থেকে শ্রমিকরা সমবেত হতে থাকে। সেখানে শ্রমিকরা তপ্ত রোদে গরম হয়ে থাকা পীচঢালা রাজপথে থালা, বাটি, গামলা নিয়ে বসে যায়। সেখানে তারা আসরের নামাজ আদায় করে। পরে চিড়া, মুড়ি ছোলা নামমাত্র খাদ্য দিয়ে সেখানে ইফতারী সেরে নেয়। পরে মাগরিবের নামাজ পড়ে যে যার বাসায় ফিরে যায়। শ্রমিকদের পবিরাবের সদস্যরা উদ্বেগ উৎকণ্ঠার পাশাপশি আশায় বসে থাকে এই বুঝি কোন সুসংবাদ নিয়ে স্বামী, সন্তান, পিতা বাসায় ফিরবেন। কিন্তু পরিবারের সদস্যদের তারা কোন আশার বানি শুনাতে পারেন না। রোজার ৯টি শেষ হতে চলল। ঈদ বাজারে ভিড় বাড়ছে। উচ্চবিত্তদের ভীড়ে এখন ঈদবাজার জমজমাট। কিন্তু রাষ্টায়াত্ব পাটকল শ্রমিকরা এখন দুবেলা, দুমুঠো ভাতের পাশাপাশি মান সম্মত ইফতার সামগ্রী কেনার টাকায় তাদের নেই। বকেয়া পাওয়ার আশায় মুদী দোকান থেকে পণ্য নেয়া শ্রমিকরা এখন মুদী দোকানেও চাল, ডাল, তেল লবণ, আলু বাকিতে নিতে পারছেন না।

এদিকে ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনে ও কর্মবিরতির ৮ম দিনে মঙ্গলবার খুলনা ও যশোর শিল্পাঞ্চলের ৯ পাটকলের শ্রমিকরা বিক্ষোভ মিছিলসহ রাজপথ ও রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে। বিকেল ৪টার আগে স্ব স্ব মিলগেটে জড় হয়ে শ্রমিকরা বিক্ষোভ মিছিলসহ নতুন রাস্তা মোড়ে গিয়ে রেলপথ ও রাজপথ অবরোধ করে। একই সময় খুলনার আটরা ও নওয়াপাড়া রাজঘাটেও অবরোধ কর্মসূচি পালিত হয়। বিকেল ৪টা থেকে সন্ধা ৭টা পর্যন্ত সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। ফলে এ সময় যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়ে।

পাটকল শ্রমিক নেতা মো. মুরাদ হোসেন জানান, এখন পর্যন্ত সরকারের কোনও আমলা, মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা কেউ তাদের খবর নেয়নি। আশায় আশায় পাটকল শ্রমিকদের দিন কাটছে। বৃহস্পতিবার আসলেই শ্রমিকরা কর্তৃপক্ষেও বকেয়া পরিশোধের নির্দেশনার অপেক্ষায় থাকে। কিন্তু কোন নির্দেশনা আসে না। রমজানের শুরুতেই আন্দোলনরত শ্রমিকরা রাজপথে আসরের নামাজ, ইফতার ও মাগরিবের নামাজ আদায় করে শূন্যহাতেই বাসায় ফেরেন।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Netaji Subhash Chandra Bose
BRTA
Bay Leaf Premium Tea

অর্থনীতি -এর সর্বশেষ