Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১৭ চৈত্র ১৪২৬, বুধবার ০১ এপ্রিল ২০২০, ৮:২০ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

আ.লীগের নেতৃত্বে স্বজনপ্রীতির ঠাঁই নেই : রমেশ 


৩০ নভেম্বর ২০১৯ শনিবার, ১১:৪৩  পিএম

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

বহুমাত্রিক.কম


আ.লীগের নেতৃত্বে স্বজনপ্রীতির ঠাঁই নেই : রমেশ 

ঠাকুরগাঁও: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন বলেছেন, আওয়ামী লীগকে আরও বেশি শক্তিশালী করার লক্ষ্যে তৃণমূলে কাজ করা হচ্ছে। তৃণমূলের ভোটের মাধ্যমেই ত্যাগীরা নেতৃত্বে আসছেন। একটি পরিবার থেকে শুধুমাত্র একজন একটি সংগঠনের নেতৃত্বে থাকতে পারবে। আ.লীগের নেতৃত্বে স্বজনপ্রীতির কোন ঠাঁই নেই।

শনিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলের উদ্বোধন শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

কাউন্সিলের প্রথম অধিবেশনে রাণীশংকৈল উপজেলা আ.লীগের সভাপতি অধ্যাপক সইদুল হক বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করেন। পরে দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতি পদে অধ্যাপক সইদুল হক প্রার্থী হন, এ পদে আর অন্য কোন প্রার্থী না থাকায় তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এরা হলেন: তাজ উদ্দীন, আব্দুল কাদের, মামুনুর রশিদ এলবার্ট ও আলমগীর হোসেন। আ.লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাদেক কুরাইশী সহ অন্য নেতৃবৃন্দ গোপন ব্যালটের মাধ্যমে সাধারণ সম্পাদক পদটি ভোট করার সিদ্ধান্ত নেন। পরে গোপন ব্যালটের মাধ্যমে ৩৫৬ কাউন্সিলরের মধ্যে ৩৫৫ জন কাউন্সিলর সাধারণ সম্পাদক পদটির পে তাদের ভোট প্রয়োগ করেন। এতে সাধারণ সম্পাদক পদে তাজ উদ্দীন পেয়েছেন ১৬৭ ভোট, আব্দুল কাদের পেয়েছেন ৮৫, মামুনুর রশিদ এলবার্ট পেয়েছেন ৭৯ ও আলমগীর হোসেন পেয়েছেন ২৪ ভোট। সাধারণ সম্পাদক পদে সর্বোচ্চ ভোট পাওয়ায় তাজ উদ্দীনকে নির্বাচিত ঘোষণা করেন জেলা আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও প্রধান নির্বাচিত কমিশনার তোজাম্মেল হক মঞ্জু।

নতুন করে ঢেলে সাজানো হচ্ছে আ.লীগকে মন্তব্য করে সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, আ.লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় তৃণমূল থেকে আওয়ামী লীগকে নতুন করে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে ঠাকুরগাঁও সদর, বালিয়াডাঙ্গী, রাণীশংকৈল ও পীরগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। বাকি রয়েছে হরিপুর ও ঠাকুরগাঁও জেলা আ.লীগের কমিটি। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই এই দুটো কমিটিও নতুন করে গঠন করা হবে।

আ.লীগের প্রবীণ নেতা রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম আপন দুই ভাই এমন অভিযোগ পাওয়ার পর ওই কমিটি বাতিল করা হয়। আ.লীগ স্বজনপ্রীতির রাজনীতি করেনা। ত্যাগীদের মূল্যায়ন সবার আগে।

নির্বাচিত নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে রমেশ সেন বলেন, আওয়ামী লীগের কমিটি কাউকে যুক্ত করার আগে ভালো ভাবে যাচাই করে নিবেন সে কোন দুর্নীতি, অনিয়ম অথবা খারাপ কাজের সাথে সম্পৃক্ত আছে কিনা। যদি কোন খারাপ কাজের সাথে থাকে তাহলে তাকে নিবেন না। স্বচ্ছ ব্যক্তিদের কমিটি রাখার পরামর্শ দেন তিনি।

শুদ্ধি অভিযান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শেখ হাসিনা খুব শক্ত অবস্থানে রয়েছে। তিনি প্রথমে নিজের দল থেকেই শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। এটি বিরল একটি ঘটনা। আমরা কখনও এমন কাজ কোন দলে ল্য করিনি। অতএব আ.লীগের সাথে থাকতে হলে তাকে অবশ্যই ভালো মানুষ হতে হবে। নাহলে তার আ.লীগ করার প্রয়োজন নেই। আমরা কোন অন্যায় কাজয়ে প্রশ্রয় দেই না।

রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, আওয়ামী লীগে কতজন অনুপ্রবেশকারী রয়েছে; ইতোমধ্যে তাদের তালিকা করা হয়েছে। অনুপ্রবেশকারীরা আ.লীগে এসেছে তাদের স্বার্থ হাসিল করার জন্য। যারা অনুপ্রবেশকারী হিসেবে আ.লীগে রয়েছেন তাদেরকে দল থেকে কোন ধরনের সহযোগিতা করা হবে না। স্বার্থ হাসিল তো দুরের কথা। অতএব আপনারা (অনুপ্রবেশকারী) আ.লীগ থেকে চলে যান আপনার গন্তব্য স্থানে।

তৃণমূলের নেতা-কর্মীরাই হচ্ছে আওয়ামী লীগের প্রাণ। তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের সবসময় মূল্যায়ন করা হচ্ছে, আগামীতেও মূল্যায়ন করা হবে। আ.লীগকে আরও শক্তিশালী করতে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহা: সাদেক কুরাইশী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন সংরতি মহিলা আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সেলিনা জাহান লিটা।

এসময় জেলা আ.লীগের সহ সভাপতি মাহবুবুর রহমান বাবলু, মাহবুবুর রহমান খোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায়, তোজাম্মেল হক মঞ্জু, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু, দপ্তর সম্পাদক জুলফিকার আলী, প্রচার সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান রিপন, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান বাবু, জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ আপেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নজমুল হুদা শাহ এ্যাপোলো, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুনাম, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহাবুব হোসেন রনি, সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার পারভেজ পুলক সহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।