Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৭, বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০, ৫:৩৮ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

তারুণ্য আর দেশপ্রেমের শক্তিতে শ্রীপুরকে বদলাতে চান রবিন


১১ নভেম্বর ২০২০ বুধবার, ০২:১৭  পিএম

সাখাওয়াত হোসেন রিপন, শ্রীপুর প্রতিনিধি

বহুমাত্রিক.কম


তারুণ্য আর দেশপ্রেমের শক্তিতে শ্রীপুরকে বদলাতে চান রবিন

গাজীপুর: গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে দোয়া-সমর্থন চেয়েছেন উদীয়মান ছাত্রনেতা মোঃ জাহিদুল আলম রবিন। গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রাজনীতিতে মাঠে সক্রিয় থাকার পাশাপাশি নানা সমাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডেও সমান অংশগ্রহণ রয়েছে তার। তারুণ্যের শক্তি, দেশপ্রেম এবং মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে ধারণ করে শিল্পনগরী শ্রীপুরের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করার প্রত্যয় জানিয়েছেন তিনি।

আওয়ামী পরিবারের সন্তান রবিন আশৈশব রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। জনপ্রতিনিধি হিসিবে বাবা ও চাচার জনসেবার ব্রত কাছ থেকে প্রত্যক্ষ করেছেন রবিন। অন্তরে পুষে রাখা রাজনীতি আর মানবসেবার আকাঙ্খা আরও প্রকট হয় ছাত্র রাজনীতিতে জড়িয়ে। সন্ত্রাস ও দুর্নীতির সঙ্গে নূন্যতম আপোষ না করে ছাত্র রাজনীতির হৃতগৌরব ফেরাতেও সফল হন জেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক রবিন। এই সাফল্য ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে শ্রীপুর পৌরসভার নাগরিকদের সেবা করতে চান রবিন।

শিক্ষা জীবনে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে আইন বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রীধারী জাহিদুল আলম রবিন রাজনৈতিক পরিমন্ডলের বাইরে নিয়মিত সামাজিক কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন। তার বাবা জাকির হোসেন বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে ধারণ করে কখনও জনপ্রতিনিধি, কখনও দলীয় প্রতিনিধির ভুমিকায় কাজ করেছেন। তার চাচা এস এম আবদুর রউফ শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার প্রয়াত দাদা আব্দুল বাতেনও আওয়ামী পরিবারের একজন নিবেদিত প্রাণ ব্যক্তি ছিলেন। ১৯৯২ সনের ৭ ডিসেম্বর জন্ম নেয়া যুবক জাহিদুল আলম রবিন ব্যবসা ক্ষেত্রেও সফল। রবিন পাইপ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, রবিন ট্রেডার্স, রুমাইসা এক্সপ্রেস নামের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের তিনি পরিচালক। তিনি ১৫-১৬ অর্থ বছরে সর্বোচ্চ আয়কর প্রদান করে ২০১৬ সালে গাজীপুরে সেরা তরুণ করদাতা নির্বাচিত হয়েছিলেন।

ফ্রেন্ডস ফর সোসাইটি নামে একটি সামাজিক ও শিক্ষা বান্ধব সংগঠনের মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা সেবা প্রদান ছাড়াও মৌলিক চাহিদা পূরণ করে চলেছেন। দরিদ্র মেধাবী মিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানো, প্রতিবন্ধী মানুষদের পাশে দাঁড়ানো, অসুস্থ, দীর্ঘদিন রোগে ভোগা মানুষ, জরুরি প্রয়োজনে রোগীর রক্তদান, বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে শিশুদের জন্য বিনামূল্যে খাদ্য ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ সহ নানা আয়োজন অব্যাহত রয়েছে।

রবিনের ছাত্ররাজনীতি শুরু ২০০৮ সালে। বিএনপি-জামাতের ডাকা হরতাল অবরোধ সহ সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রাজপথে সক্রিয় ছিলেন। ২০১৫ সালে তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গাজীপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এর আগে ২০১৩ সালে জেলা শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক ছিলেন। ২০১১ সাল থেকে স্থানীয় ভাবে শ্রীপুর উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন।

২০০৮ এর পর থেকে সকল সংসদীয় নির্বাচনে ছাত্র সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়ে নৌকা প্রতীকের পক্ষে জোরালো অবস্থানে থেকে দলের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাঙ্খিত সফলতা নিশ্চিতে নিজেকে নিয়োজিত রাখেন। জাতীয় নির্বাচন ছাড়াও স্থানীয় সরকার এর সকল নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সপক্ষে সকল কর্মকান্ডে নিজেকে সক্রিয় রাখেন।

সম্প্রতি করোনা কবলিত সময়ে কুইক রেসপন্স টিম গঠনের মাধ্যমে শ্রীপুর পৌরবাসীর জন্য বিনামুল্যে অ্যাম্ব্যুলেন্স, অসুস্থ ব্যাক্তিদের বাড়িতে ঔষধ পৌঁছে দেয়া, মাস্ক, হ্যান্ডসেনিটাইজার বিতরণ, বিনামূল্যে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করে সাধারণ মানুষের ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছেন। ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহায় দরিদ্রদের মাঝে বস্ত্র, অর্থ তুলে দিয়ে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন।

ইতিবাচক স্বপ্ন লালন করা রবিন শ্রীপুর পৌরসভাকে প্রকৃতির ভারসাম্যপূর্ণ আধুনিক জনপদে রূপান্তর করতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। শিল্পনগরীতে পরিণত হওয়া শ্রীপুর পৌরসভার নাগরিকদের বাসযোগ্যতা টিকিয়ে রাখার অন্যতম চ্যালেঞ্জ দূষিত শিল্প বর্জ্য। পৌরসভার নেতৃত্ব পেলে রবিন এই শিল্পবর্জ্যের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ ও সার তৈরির প্রচেষ্টা চালাবেন।

রবিন গণমাধ্যমকে আরও জানান, মেয়র হিসেবে জনগণ দায়িত্ব দিলে পৌরসভার সকল রাস্তাঘাটকে সবসময়ের জন্য চলাচল উপযোগী করে গরে তোলা, প্রতিটি ওয়ার্ডে বিনোদনের ব্যবস্থা রাখা, নিয়মিত মশা নিধন, শব্দ ও বায়ু দূষণ প্রতিরোধ, শতভাগ রাজস্ব আদায় ও সে অর্থ প্রয়োজনীয় খাতে ব্যয় করা, পৌরসভার শ্রীপুর ও মাওনা চৌরাস্তায় নিজস্ব ট্রাফিক ব্যবস্থা গড়ে তোলা, পৌরসভার জনবহুল এলাকা গুলোতে রাস্তায় নিরবিচ্ছিন্ন বৈদ্যুতিক আলোর ব্যবস্থা, জনবহুল এলাকায় আধুনিক ও বহুতল পার্কিং ব্যবস্থা নিশ্চিত করা, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত সকল প্রকার সেবা জনসাধারণের কাছে পৌঁছে দিতে পৌরসভার পক্ষ থেকে শতভাগ নিশ্চিত করা, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ স্থান সমুহে বিনামূল্যে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে সচেষ্ট থাকবেন তিনি।

নিজের প্রত্যয়ের কথা জানিয়ে রবিন বলেন, ‘আমি বয়সে নবীন। তবে ইতিহাস সাক্ষী আছে নবীনরাই ইতিহাস সৃস্টি করে। আমি স্বপ্ন দেখেছি, সুযোগ পেলে অবশ্যই বাস্তবায়ন করবো এবং দেখিয়ে দেবো আমরা পারি। বয়স মূল কথা নয়, কাজের ইচ্ছা শক্তি ও সঠিক পরিকল্পনাই মূলকথা।’

‘আমি বিশ্বাস করি এই সরকারের অধীনে সারাদেশের মতো শ্রীপুরেরও দৃষ্টান্তমূলক উন্নয়ন সম্ভব, যদি সঠিক পরিকল্পনা সামনে রেখে নিবেদিত প্রাণে কাজ করা যায়। জনগণের দোয়া ও ভালবাসা আমার চলার পথের পাথেয়’-যোগ করেন এই ছাত্রনেতা।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।