Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২৭ কার্তিক ১৪২৬, মঙ্গলবার ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২:২৪ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

জৈনাবাজার বাস স্ট্যান্ডে রমরমা মাদকের হাট


৩০ আগস্ট ২০১৯ শুক্রবার, ০২:০৩  পিএম

টি.আই সানি, গাজীপুর

বহুমাত্রিক.কম


জৈনাবাজার বাস স্ট্যান্ডে রমরমা মাদকের হাট

গাজীপুর : প্রকাশ্য দিবালোকে মাদকের হাট অবশ্য নতুন কিছু নয়। কিন্ত আশ্চর্য লাগে তখন, যখন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর ও আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী সেগুলো দেখেও না দেখার ভান করে চোখে কাঠের চশমা লাগিয়ে চলে।

শ্রীপুর বাজার রেলওয়ে,জৈনাবাজার প্রভাতী বনশ্রী কাউন্টার এবং জাবের স্পিনিং মিলের দক্ষিণ পাশে সালামের দোকান ,এ এন মডেল স্কুলের সাথে বিল্লাল এর দোকান ও আয়নালের মা এসব জাগায় প্রকশ্যেই পথচারীদের ডেকে বিক্রি করা হচ্ছে মাদকদ্রব্য। অথচ পুলিশ স্বাচ্ছ্ন্দে তা অস্বীকার করে বলছে ভিন্ন কথা!

সারাদেশে মাদকের বিষাক্ত ছোবল শেষ করে দিচ্ছে তারুণ্যের শক্তি ও সম্ভাবনা। শুধু শহরেই নয়, গ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে মাদক। মরণ নেশার বিস্তারে সমাজে একদিকে যেমন অপরাধ বাড়ছে, তেমনিভাবে তৈরি হচ্ছে বিশৃঙ্খলা। ব্যক্তি ও পারিবারিক জীবনের অবক্ষয়, প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তির অসামঞ্জস্যতা, হতাশা এবং মূল্যবোধের অভাবের সুযোগ নিয়ে মাদক তার বিষাক্ত হাত বাড়িয়ে দিয়েছে তরুণ সমাজের প্রতি।

যতই দিন যাচ্ছে ততই নেশাগ্রস্থদের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। এ নেশা ছড়িয়ে পড়ছে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ব বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে। মাদকের আগ্রাসনে আমাদের তরুণ সমাজ আজ বিপর্যায়। মাদকের করাল গ্রাসে দিনে দিনে ফুরিয়ে আসছে আমাদের জাতীয় অস্থিত্ব। সক্রিয় মাদক সিন্ডিকেটগুলো গাজীপুরের সীমান্ত নাসিরগ্লাসের সামনে থেকে প্রশাসনের দৃষ্টি ফাঁকি দিয়ে কিংবা ম্যানেজ করে মদ, গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা, রেকটিফাইড স্পিরিট, হেরোইন ও নেশাজাতীয় ট্যাবলেট দেদারছে নিয়ে আসছে ব্যবসায়ীরা।

এসব জায়গাগুলোতে মদ, গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা, হেরোইন, প্যাথেডিন, চরশ সহ সব ধরনের মাদক পাওয়া যায়। মাদক ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন স্থানে অবস্থান করে বিভিন্ন ধরনের অবৈধ কর্মকান্ডের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিরও বিঘœ ঘটাচ্ছে। পর্দার আড়ালে থেকে গডফাদাররা মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত উপজেলার জৈনাবাজার প্রভাতী বনশ্রী কাউন্টার এবং জাবের স্পিনিং মিলের দক্ষিণ পাশে সালামের দোকান ,এ এন মডেল স্কুলের সাথে বিল্লাল এর দোকান ও আয়নালের মা এসব জাগায় প্রকশ্যেই পথচারীদের ডেকে স্পটে প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য বিক্রি করছে।

শ্রীপুর রেললাইন,জাবের স্পিনিং মিলের দক্ষিণ পাশে সালামের দোকান, জৈনা বাজার উত্তর পশে গাজীপুরের সিমান্ত নাসিরগ্লাসের সামনে,জৈনাবাজার উত্তরে প্রভাতী বনশ্রী পরিবহনে,এ এন একাডেমী স্কুল মাঠ বিল্লালের দোকান, জৈনাবাজার আশপাঠা রুট আয়নালের মা, আর এ কে সিরামিক্স পুর্ব পাশে,বিদায়বাজারসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মাদকের স্পট রয়েছে।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার জৈনাবাজার প্রভাতী বনশ্রী বরিবহন (ঢাকা-মেট্রো ব ১১-৩৯৩২ পরিবহনের হেলপার আলমগীর হোসেনের কাছে আয়নালের মা প্রকশ্যেই মাদক বিক্রি করছেন। এসময় স্থানীয় লোকজন জানতে পেরে তাদেরকে সাবধান করেন,পরে মাদক ব্যবসায়ী কৌশলে পালিয়ে যায়। সন্ধা হলেই এ এন একাডেমী স্কুল মাঠের পুর্বপাশে মৃত নছুমুদ্দিনের ছেলে বিল্লাল হোসেনের দোকানে চলে রমরমা ব্যবসা। প্রভাতী বনশ্রী বরিবহনের জৈনাবাজার কাউন্টার সোপারভাইজার মুরাদ হোসেন বলেন,জৈনাবাজার প্রভাতী বনশ্রী বরিবহন কিছু হেলপার মাদক সেবন করে এটা আমরা জানি,তবে হাতেনাতে পেলে কোন প্রকার ছাড় দেওয়া হবেনা।


শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী বলেন, এই স্পট গুলোর কথা আমার জানা ছিল না,তবে মাদক ব্যবসায়ীরা যতই শক্তিসালি হোক,আমাদের পুলিশের তৎপর রয়েছেন মাদকের বিরুদ্ধে,মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবীদের কোন ভাবেই ছাড় দেওয়া হবেনা। যদি এমন তথ্য পাওয়া যায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।