Bahumatrik | বহুমাত্রিক

সরকার নিবন্ধিত বিশেষায়িত অনলাইন গণমাধ্যম

শ্রাবণ ৫ ১৪৩১, রোববার ২১ জুলাই ২০২৪

পরাজয়ের দায় নিজের কাঁধে নিয়ে সুনাক বললেন, ‘আমি দুঃখিত’

বহুমাত্রিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:০৭, ৬ জুলাই ২০২৪

প্রিন্ট:

পরাজয়ের দায় নিজের কাঁধে নিয়ে সুনাক বললেন, ‘আমি দুঃখিত’

ছবি- সংগৃহীত

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে ঋষি সুনাকের কনজারভেটিভ পার্টি পেয়েছে ১২১ আসন, যা দলটির ইতিহাসে সর্বনিম্ন। শুক্রবার রাজা চার্লস্ এর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ান ঋষি সুনাক। কনজারভেটিভ পার্টির প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন সদ্য সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

সেইসঙ্গে ফলাফল বিপর্যয়ের দায় নিজের কাঁধে তুলে নিয়ে সুনাক বলেন, ‘দেশবাসীর কাছে সবার প্রথমে যে কথাটা বলতে চাই তা হলো, আমি দুঃখিত। আমি সর্বস্ব দিয়ে চেষ্টা করেছি, কিন্তু আপনাদের রায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যে রায়ের মাধ্যমে আপনারা জানিয়ে দিয়েছেন যুক্তরাজ্যে সরকারের পরিবর্তন দরকার। আমি আপনাদের (ভোটারদের) ক্ষোভ, অসন্তোষের কথা শুনতে পেয়েছি। আমি এই পরাজয়ের দায়ভার গ্রহণ করছি।’

বৃটেনে সংসদের নিম্নকক্ষ হাউস অফ কমন্সে মোট আসন সংখ্যা ৬৫০টি। সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে ৩২৬টি আসনে বিজয়ী হতে হয়। লেবার পার্টি ৪১২টি আসনে জয় পেয়েছে।

আর কনজারভেটিভ পার্টির ঘরে গেছে ১২১টি আসন। ২০১৯ সালের তালিকা থেকে টোরিরা ২৫০টি আসন খুইয়েছে এবার। পরাজয় মেনে নিয়ে জয়ী লেবার পার্টির নেতা কিয়ের স্টারমারকে অভিনন্দন জানিয়ে সুনাক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর পদে তার সাফল্য আমাদের সবার সাফল্য বলে বিবেচিত হবে। আমি তার ও তার পরিবারের কল্যাণ কামনা করছি। নির্বাচনী প্রচারণায় আমাদের যা–ই মতবিরোধ হোক না কেন, তিনি একজন শালীন ও জনগণবান্ধব ব্যক্তি। আমি তাকে সম্মান করি।’

সমস্ত কনজারভেটিভ প্রার্থী এবং প্রচারকদের উদ্দেশে সুনাকের বার্তা, ‘যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন, কিন্তু সফলতা পেলেন না, আমি দুঃখিত যে আমরা আপনাদের প্রচেষ্টাকে ন্যায্যতা  দিতে পারিনি। এটা ভাবতে আমার কষ্ট হয়- কিছু ভালো সহকর্মী যারা তাদের সম্প্রদায় এবং আমাদের দেশের জন্য এত অবদান রেখেছেন তারা এখন আর হাউস অফ কমন্সে বসবেন না। আমি তাদের কঠোর পরিশ্রম এবং তাদের সেবার জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই। আমার উত্তরসূরি নির্বাচনপর্ব আনুষ্ঠানিকভাবে  হয়ে গেলে আমি আমার পদ থেকে সরে দাঁড়াবো।’

নিজের অর্জনের কথা উল্লেখ করে সুনাক বলেন, ‘আমরা ইংল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের লক্ষ্য অনুযায়ী মূল্যস্ফীতি ২ শতাংশের মধ্যে নামিয়ে এনেছি। এই  অর্জনের জন্য আমি গর্বিত। ২০ মাস আগের তুলনায় এই দেশ অনেক বেশি নিরাপদ ও শক্তিশালী।’

বক্তৃতার সময়ে নিজের পরিবারকে ভোলেননি বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী। সমর্থন ও ত্যাগ স্বীকার করায় পরিবারকে ধন্যবাদ দিয়ে স্ত্রী অক্ষতা মূর্তির হাত ধরে ডাউনিং স্ট্রিটে অপেক্ষায় থাকা একটি গাড়ির দিকে এগিয়ে যান ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাজ্যের প্রথম এই প্রধানমন্ত্রী।

Walton Refrigerator Freezer
Walton Refrigerator Freezer