Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২৫ চৈত্র ১৪২৬, বুধবার ০৮ এপ্রিল ২০২০, ১১:৫৩ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

হামিদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্মচারী নিয়োগে অর্থবাণিজ্যের অভিযোগ


৩০ জানুয়ারি ২০২০ বৃহস্পতিবার, ০৯:৩১  পিএম

কাজী রকিবুল ইসলাম, যশোর

বহুমাত্রিক.কম


হামিদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্মচারী নিয়োগে অর্থবাণিজ্যের অভিযোগ

যশোর : মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে যশোর সদরের হামিদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই জন কর্মচারী নিয়োগের অভিযোগ উঠেছে। বিদ্যালয়ের সভাপতি ইসমাইল হোসেনের বিরুদ্ধে এই নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ।

শুধু তাই নয়, পরীক্ষার আগে নিয়োগ প্রার্থীদের পরীক্ষায় অংশ না নিতে বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করা হয়। মোবাইল ফোনে সভাপতি নিজে হুমকিও দেন। তবে সভাপতি তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, গত ৩ নভেম্বর হামিদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দু’জন কর্মচারী নিয়োগের জন্য পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ১৫ দিনের মধ্যে আবেদন করতে বলা হয়। এতে নিরাপত্তা কর্মী পদে আট জন এবং পরিচ্ছন্নতা কর্মী পদে ছয়জন আবেদন করেন।

গত ২৬ নভেম্বর যশোর জিলা স্কুলে নিয়োগ পরীক্ষার হওয়ার কথা থাকলেও তা বন্ধ হয়ে যায়। গত ২৭ জানুয়ারি সোমবার হামিদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একজন নিরাপত্তা কর্মী ও একজন আয়া নিয়োগ পরীক্ষা হয়। পরীক্ষায় সকল প্রার্থী উপস্থিত থেকে পরীক্ষায় অংশ নিলেও বিশেষ ব্যবস্থায় পচ্ছন্দের প্রার্থীদের রেখে বাকীদের বাদ দিয়ে পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত ফলে সভাপতির প্রার্থীদের পাশ করানো হয়। সভাপতির পচ্ছন্দের প্রার্থী চঞ্চল ও ফিরোজা বেগমকে নিয়োগ দেওয়া হয়। চঞ্চল সভাপতি ইসমাইল হোসেন তার ভাইপো এবং ফিরোজা বেগমের স্বামী বাহারুল একই স্কুলের পিয়ন। সভাপতি বাহারুল ও চঞ্চলের পরিবারের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ নিয়ে নিয়োগের ব্যবস্থা করেছেন।

অভিযোগে আরও জানা গেছে, নিয়োগের আগে ভুরিভোজের আয়োজন করে সভাপতি। যে ভুরিভোগে অংশ নেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার, ডিজির প্রতিনিধি যশোর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষকসহ নিয়োগ কমিটির কর্তারা।

এ ব্যাপারে সভাপতি ইসমাইল হোসেন বলেন, আমরা চাই সকলে নিয়োগ পরীক্ষায় আসুক। আমি কাউকে হমকি দিই নি।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।