Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২ শ্রাবণ ১৪২৬, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ৩:১৩ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

বিধ্বস্ত ইথিওপিয়ান উড়োজাহাজ নিয়ে কী জানা যাচ্ছে


১১ মার্চ ২০১৯ সোমবার, ০৪:২০  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


বিধ্বস্ত ইথিওপিয়ান উড়োজাহাজ নিয়ে কী জানা যাচ্ছে

নতুন ধরণের বোয়িং এয়ারক্রাফট চালুর পর ইথিওপিয়ান উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনাটিসহ মাত্র ৫ মাসের ব্যবধানে দুটি দুর্ঘটনা ঘটলো। অথচ বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-৮কে বাণিজ্যিকভাবে মাত্র ২০১৭ সাল থেকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

গত বছর অক্টোবর মাসে লায়ন এয়ার বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-এর একটি বিমান ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা থেকে ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই বিধ্বস্ত হয়। সেই ঘটনায় প্রাণ হারায় ১৮৯ জন। অথচ এই বিমানটির বয়স তিন মাসেরও কম ছিল। একইরকমভাবে ইথিওপিয়ায় বিমানটিও উড়াল দেয়ার কয়েক মিনিটের মাথায় বিধ্বস্ত হয়।

বিমানটি অন্য বিমান থেকে কিভাবে আলাদা?

জাকার্তা ভিত্তিক এভিয়েশন বিশ্লেষক গেরি সোয়জাতমান বিবিসিকে বলছিলেন, বোয়িং ৭৩৭ এর উইং এর তুলনায় সেটির ইঞ্জিনটা অপেক্ষাকৃত উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন। বিষয়টি বিমানের ভারসাম্যের উপরে প্রভাব ফেলে বলেও তিনি মন্তব্য করেছেন।

ইন্দোনেশিয়ার ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেফটি কমিটি ইঙ্গিত করেছিল যে, বিমানে যদি কোনও গোলযোগ ঘটে তাহলে সেই বার্তা পাইলটকে জানাতে বিমানের কোনও একটি সেন্সরকে সংকেত দিতে হয়। কিন্তু এই বিষয়টিতেই কিছুটা ঝামেলা ছিল।

৭৩৭ এর মডেলের বিমানের সেন্সর এবং এর সাথে সম্পৃক্ত সফটওয়ার তার আগের মডেলের চেয়ে আলাদা ছিল। কিন্তু সেন্সরের এই বিষয়টি নিয়ে পাইলটকে কিছুই জানানো হয়নি। তবে, ইন্দোনেশিয়ায় বিমানটি কেন বিধ্বস্ত হয়েছিল তার চূড়ান্ত কারণ এখনো জানা যায়নি।

ইথিওপিয়ার ঘটনার পর এভিয়েশনের সাথে সম্পৃক্তরা বলছেন, এই সেন্সর ইস্যুটি সম্পর্কে নিশ্চয়ই পাইলটকে আগে থেকেই অবহিত করা হয়েছিল। কিন্তু, ইথিওপিয়ার বিমান দুর্ঘটনার ক্ষেত্রেও সেন্সর ইস্যুর মতন কিছুই ঘেঁটেছে কিনা তা নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছুই জানা যায়নি।

এভিয়েশন বিশ্লেষক জন স্ট্রিকল্যান্ড বলেছেন, এই এয়ারক্রাফটটি ছিল একেবারে নতুন। ইন্দোনেশিয়ায় বিধ্বস্ত বিমানটি যে ধরণের ছিল এটিও একইরকম ছিল। তাই এই তথ্যটির দিকে সবাই মনোযোগ নিবদ্ধ করবে। তবে, কেন ইথিওপিয়ার ঘটনাটি ঘটলো - সেই কারণ নির্ণয় করতে আরও ব্যাপক অনুসন্ধানের দরকার আছে বলেও তিনি মনে করেন।

বোয়িং এর বক্তব্য কী?

রোববারে বোয়িং-এর পক্ষ থেকে এক বিবৃতি পাঠিয়ে বলা হয়েছে, তাদের টেকনিক্যাল টিম তৈরি আছে। ইউএস ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেফটি বোর্ডের অধীনে যে কোনও মুহূর্তে তারা টেকনিক্যাল সহযোগিতা করতে প্রস্তুত। ইথিওপিয়ায় বিমান বিধ্বস্ত হয় বিপুল মানুষের প্রাণহানির ঘটনায় তারা শোকও প্রকাশ করেছে।

বোয়িং-এর ইতিহাসে বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ছিল সবচেয়ে দ্রুত বিক্রি হতে থাকা এয়ারক্রাফট। সারা দুনিয়ার ১০০টি বিভিন্ন অপারেটরের পক্ষ থেকে ৪,৫০০ এয়ারক্রাফটের অর্ডার ছিল। ইথিওপিয়ার দুর্ঘটনার তদন্তের ফল পেলেই রেগুলেটর ও এয়ারলাইন্সগুলো তাদের করণীয় ঠিক করবে।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।