Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, বুধবার ২৭ মে ২০২০, ৭:১৬ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

দেড় হাজার কোটি টাকা বিতরণ করবে দুই কৃষি ব্যাংক


১১ মে ২০২০ সোমবার, ১০:১৮  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


দেড় হাজার কোটি টাকা বিতরণ করবে দুই কৃষি ব্যাংক

করোনা ভাইরাসে কৃষি খাতের ক্ষতি মোকাবেলায় কৃষকের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার বিশেষ প্রণোদনা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ তহবিল থেকে সহজ শর্তে ঋণ নিতে পারবেন কৃষক। প্রথমত ৫ শতাংশ সুদের ঘোষণা আসলেও পরে ৪ শতাংশ সুদে এই বিতরণের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সূত্র জানায় তহবিলের ১ হাজার ১৯৯ কোটি টাকাই বিতরন করবে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক (বিকেবি)। অন্যদিকে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক বিতরণ করবে ৩১৯ কোটি টাকা। মোট ১ হাজার ৫১৮ কোটি টাকা বিতরণ করবে রাষ্ট্রমালিকানাধীন এই দুই ব্যাংক।

এবিষয়ে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী হোসাইন প্রধানীয়া জানান, ইতিমধ্যেই প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে কৃষি ঋণ বিতরণ শুরু করেছি আমরা। মোট ১ হাজার ১৯৯ কোটি টাকা বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা দেওয়া হয়েছে আমাদের। দেশের কোনো ফসলি জমি যাতে অনাবাদি পড়ে না থাকে। ঋণ নিয়ে হলেও যাতে সবাই চাষাবাদ করতে পারে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

১২ এপ্রিল কৃষককে বিশেষ প্রণোদনা দেওয়া হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কৃষি খাতে চলতি মূলধন সরবরাহে বাংলাদেশ ব্যাংক পাঁচ হাজার কোটি টাকার নতুন একটি পুনরর্থায়ন স্কিম গঠন করবে। এখান থেকে শুধু কৃষি খাতে গ্রাহক পর্যায়ে ঋণ দেওয়া হবে। আর এর সর্বোচ্চ সুদহার হবে ৫ শতাংশ।

তিনি বলেন, আমরা আরেকটি উদ্যোগ নিয়েছি সেটা চলমান রয়েছে। সেটা হলো—কেউ পেঁয়াজ, রসুন, আদাসহ মসলাজাতীয় কিছু উৎপাদন করলে মাত্র ৪ শতাংশ সুদে ঋণ দেওয়া হবে। এটা আমরা আগেই চালু করেছি এখন তা অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি আমরা যে নতুন স্কিমটা নিচ্ছি পাঁচ হাজার কোটি টাকার একটা প্রণোদনা। এই তহবিল থেকে গ্রামাঞ্চলে যারা ক্ষুদ্র ও মাঝারি চাষি; তাদের জন্য ঋণ দেওয়া হবে। কৃষি, ফুল, ফল, মত্স্য, পোল্ট্রি, ডেইরি ফার্ম ইত্যাদি সকল কর্মকাণ্ডে এখান থেকে সহায়তা পাবেন।

পরের দিন ১৩ এপ্রিল সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষিঋণ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের কারণে কৃষি খাতের ক্ষতি মোকাবিলায় চলতি মূলধন সরবরাহের উদ্দেশ্যে ৫ হাজার কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন স্কিম গঠন করা হয়েছে। ৬ মাস গ্রেস পিরিয়ডসহ ১৮ মাস মেয়াদি এ ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার হবে ৪ শতাংশ।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, করোনার কারণে দেশের কৃষি খাত দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এই খাতে পর্যাপ্ত অর্থ সরবরাহ নিশ্চিত করা সম্ভব হলে দেশের কৃষি খাত সার্বিক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবে। তাই কৃষি খাতের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার একটি পুনঃঅর্থায়ন স্কিম গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

স্কিমের আওতায় পুনঃঅর্থায়ন গ্রহণে ইচ্ছুক বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহ বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে একটি অংশগ্রহণমূলক চুক্তি স্বাক্ষর করবে। সেই চুক্তির মাধ্যমে এই স্কিমের আওতায় পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে ব্যাংকগুলো।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গ্রাহকদের অনুকূলে ঋণ বিতরণ পূর্বক মাসিক ভিত্তিতে পুনঃঅর্থায়নের জন্য আবেদন করা যাবে। ব্যাংকগুলোর কৃষিঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ও সব ক্ষমতার ভিত্তিতে কৃষিঋণ বিভাগ থেকে ব্যাংকগুলোর অনুকূলে তহবিল বরাদ্দ করা হবে। তবে গ্রাহক পর্যায়ে ঋণ বিতরণের পর বরাদ্দকৃত তহবিল থেকে পর্যায়ক্রমে তহবিলের সমপরিমাণ অর্থায়ন করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।