Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

অ্যাসাইনমেন্ট আটকে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেতন আদায়


১৩ ডিসেম্বর ২০২০ রবিবার, ০৮:৩২  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


অ্যাসাইনমেন্ট আটকে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেতন আদায়

সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে অ্যাসাইনমেন্ট আটকে রেখে বেতন আদায় করার অভিযোগ উঠেছে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের দয়াময় সিংহ উচ্চবিদ্যালয়সহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে। রোববার সোলেমান হোসেন নামে ভূক্তভোগী এক অভিভাবক কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর এ বিষয়ে এক লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিভাবকের লিখিত অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর গ্রামের অভিভাবক সোলেমান হোসেনের দুই সন্তান দয়াময় সিংহ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ইয়ামীন হোসেন সিয়াম ও ৭ম শ্রেণীর সামিয়া সামান্তা লিছা। তারা ১২ ডিসেম্বর নিয়মিতভাবে বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে গেলে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বেতন ছাড়া ঐ শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট জমা না নিয়ে তাদেরকে ফিরিয়ে দেন।

পরবর্তীতে পিতা সোলেমান হোসেন বিষয়টি জেনে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে বেতন দিতে চার, পাঁচ দিন সময় চাইলেও অ্যাসাইনমেন্ট জমা নিতে নারাজ। কৃর্তপক্ষ বেতন ছাড়া অ্যাসাইনমেন্ট নিতে পারবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেয়ায় ভুক্তভোগী অভিভাবক ইউএনও কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অনুরূপভাবে উপজেলার পতনউষার উচ্চ বিদ্যালয় ও শমশেরনগর হাজী মো: উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও এ অভিযোগ প্রদান করেন।

অভিযোগকারী অভিবাবক সোলেমান হোসেন বলেন, ‘করোনায় আমি ব্যবসাতে ক্ষতিগ্রস্থ। তাই অনেক কষ্টেই সংসার চালাচ্ছি। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বেতন পরিশোধের জন্য চার, পাঁচ দিন সময় চাওয়ার পরও তারা আমার সন্তানদের অ্যাসাইনমেন্ট জমা নেয় নি। এলাকার আরোও অনেক শিক্ষার্থীরা এভাবে বেতনের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে পারেন নি।’

পতনঊষারের নোয়াগাঁও গ্রামের অভিভাবক আব্দুল খালিক বলেন, আমার দুই মেয়ে পতনঊষার স্কুলে পড়ে। নিজে রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করি। শিক্ষকরা বেতন ছাড়া এসাইনমেন্ট না দিয়ে মেয়েদের বিদায় করে দেন। পরে স্থানীয় এক ব্যক্তির অনুরোধে কিছু বেতন দেয়ার পর এসাইনমেন্ট নিয়েছেন।
অভিযোগের বিষয়ে দয়াময় সিংহ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রভাত কুমার সিংহকে মুঠোফোনে

(০১৭১০০৩৯৬২৮) কথা বলার চেষ্ঠা করলেও তিনি কল রিসিভ করেন নি।উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সামসুন নাহার পারভীন জানান, অ্যাসাইনমেন্ট জমা না নেয়ার সাথে বেতনের কোন সম্পর্ক নেই। খোঁজ নিয়ে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক বলেন, ‘এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।