Bahumatrik Multidimensional news service in Bangla & English
 
১০ মাঘ ১৪২৪, বুধবার ২৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১০:০২ পূর্বাহ্ণ

মংডুর স্বচ্ছল পরিবার এখন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে উদ্বাস্তু

মংডুর স্বচ্ছল পরিবার এখন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে উদ্বাস্তু

দীন মোহাম্মদ দেখতে অন্য সাধারণ রোহিঙ্গাদের মতো নয়। পরিষ্কার বাংলায় কথা বলেন তিনি। তাছাড়া তাঁর পোশাক-পরিচ্ছদ অন্য রোহিঙ্গাদের চেয়ে খানিকটা আলাদা।

রংপুর রাইডার্সের বিজয় ও লেখাপড়ার ‘মিনিং’ খোঁজার গল্প

রংপুর রাইডার্সের বিজয় ও লেখাপড়ার ‘মিনিং’ খোঁজার গল্প

বি পি এল খেলাটি ছিলো উপমা মাত্র এবং রংপুর রাইডার্সও আমাদের মতো লক্ষ লক্ষ সাধারণ ছাত্র হয়ে আমাদের পথ দেখিয়ে দিলো। শুভেচ্ছা রংপুর রাইডার্স। 

মহাদেবপুরে বিরল রোগে আক্রান্ত দুই ভাই-বোন

মহাদেবপুরে বিরল রোগে আক্রান্ত দুই ভাই-বোন

বিরল রোগে আক্রান্ত একই পরিবারের চার ভাই বোনের মধ্যে দুই বছর পূর্বে কয়েক দিনের ব্যবধানে দুই ভাইয়ের মৃত্যু হলেও এবার ধুঁকছেন বাকি দুই ভাই-বোন মাহমুদা খাতুন (৩০) এনামুল হক (৩৫)।

শিক্ষার আলোয় অন্ধত্বকে জয় করার প্রত্যয় নোমানের

শিক্ষার আলোয় অন্ধত্বকে জয় করার প্রত্যয় নোমানের

শিক্ষার আলোয় অন্ধত্বকে জয় করতে চায় নোমান। হতে চায় দেশের সু নাগরিক।

জীবনযুদ্ধে জয়ী প্রতিবন্ধি হাসান এখন শত যুবকের প্রেরণা

জীবনযুদ্ধে জয়ী প্রতিবন্ধি হাসান এখন শত যুবকের প্রেরণা

তার সফলতার এই বাস্তবচিত্র দেখে গ্রামের অনেক বেকার যুবক এখন উৎসাহী হয়ে গড়ছেন কৃষি খামার।

সাতশ শিশুর বাবা-মাকে খুঁজে দেওয়া একজন কামাল হোসেন

সাতশ শিশুর বাবা-মাকে খুঁজে দেওয়া একজন কামাল হোসেন

পালিয়ে আসতে গিয়ে অনেকেই বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছেন তাদের প্রিয়জন থেকে।তেমন মানুষদের স্ব-উদ্যোগে সহায়তা করছেন কামাল হোসেন নামে আরেকজন রোহিঙ্গা শরণার্থী।

মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার একজন রোহিঙ্গার  বর্ণনা

মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার একজন রোহিঙ্গার বর্ণনা

ওখানে মুসলিমের কোন দাম নাই, খাবার পানি দেয় না। ভয়ে আতঙ্কে আমার গলা শুকিয়ে আসছিল।

সুনামগঞ্জে হারিয়ে যাচ্ছে কামার শিল্প

সুনামগঞ্জে হারিয়ে যাচ্ছে কামার শিল্প

ক্ষুদ্র লৌহজাত শিল্পের উপর নির্ভরশীল প্রাচীন পেশাদার কামার সম্প্রদায়। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মত সুনামগঞ্জ জেলার কামাদের জীবন জীবিকা এখন বিপন্ন হতে চলছে।

‘দুলাভাই আামারে বেহুশ করে ভারতে নিয়া বেঁচে দিছিলো’

‘দুলাভাই আামারে বেহুশ করে ভারতে নিয়া বেঁচে দিছিলো’

বাবা সবাইরে বলছিল, আমি মারা গেছি। আমি মারা গেছি, আর বোনরে কি করছি, সেই জবাব চায় তারা আমার কাছে। এখনো আমারে তারা আপন করে নেয়নি।

স্বামীগৃহ হারাচ্ছেন মিয়ানমারের ধর্ষিতা রোহিঙ্গা নারীরা

স্বামীগৃহ হারাচ্ছেন মিয়ানমারের ধর্ষিতা রোহিঙ্গা নারীরা

এসব ঘটনা যখন ঘটছিল তখন রাখাইনের গ্রামগুলো ছিল পুরুষশুন্য, রয়ে গিয়েছিল শুধু মহিলা, শিশু আর বয়স্ক মানুষেরা।