Bahumatrik | বহুমাত্রিক

সরকার নিবন্ধিত বিশেষায়িত অনলাইন গণমাধ্যম

জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১, শনিবার ২৫ মে ২০২৪

অতীতের সকল রেকর্ড ভাঙলো পাগলা মসজিদের দান বাক্সের টাকা

তোফায়েল আহমেদ, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২২:৫০, ২০ এপ্রিল ২০২৪

প্রিন্ট:

অতীতের সকল রেকর্ড ভাঙলো পাগলা মসজিদের দান বাক্সের টাকা

ছবি: বহুমাত্রিক.কম

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদে দানবাক্স থেকে পাওয়া ২৭ বস্তা টাকা গণনায় এরই মধ্যে ৬ কোটি  ৬৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও পাগলা মসজিদ কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ এবং কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখের উপস্থিতে শনিবার সকাল সাড়ে ৭টায় মসজিদের ৯টি দানবাক্স ও একটি ট্র্যাঙ্ক গুলো খুলে টাকাগুলো মসজিদে দোতলায় আনা হয় গণনার জন্য। টাকা গণনাকালে রাত ৮টায় ৬ কোটি ০০ লাখ ছাড়িয়ে পূর্বের সকল রেকর্ড ভেঙ্গে গিয়েছে।

এবার টাকা প্রাপ্তির নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া বৈদেশিক মুদ্রাসহ স্বর্ণালঙ্কারও পাওয়া গেছে।

শনিবার রাত ৮ টায় দিকে রূপালী ব্যাংক কিশোরগঞ্জ শাখার সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রাত ৮টা পর্যন্ত গণনায় ৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা পাওয়া গেছে। মসজিদের একাউন্টে জমা করার জন্য এ টাকাগুলো রূপালী ব্যাংক কিশোরগঞ্জ শাখায় পাঠানো হয়েছে। এখন চলছে গণনার কাজ। এতে প্রায় ২২০ জনের একটি দল অংশ নিয়েছে।

এর আগে গত বছরের ৯ ডিসেম্বর তিন মাস ২০দিন পর দানবাক্স খোলা হয়েছিল। ২৩টি বস্তায় তখন রেকর্ড ৬ কোটি ৩২ লক্ষ ৫১ হাজার ৪২৩ টাকা এবং বৈদেশিক মুদ্রা ও স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া গিয়েছিলো।

মসজিদ পরিচালনা কমিটি সূত্রে জানা গেছে, ঐতিহ্যবাহী পাগলা মসজিদে নয়টি দানবাক্স থাকলেও এবার আরও একটি ট্রাঙ্ক বাড়ানো হয়েছে। দানের পরিমাণ বাড়ায় এখন পাগলা মসজিদের দানবাক্সের সংখ্যা ৯টি ও একটি ট্রাঙ্ক নতুন যুক্ত হয়েছে।

মসজিদের দান থেকে পাওয়া এসব অর্থ সংশ্লিষ্ট মসজিদসহ জেলার বিভিন্ন মসজিদ, মাদরাসা ও এতিমখানার পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক কাজে ব্যয় হয়। এছাড়া করোনাকালে রোগীদের সেবায় নিয়োজিত শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮০ জন স্বেচ্ছাসেবককেও অনুদান দেওয়া হয়েছিল এ দানের টাকা থেকে।

জানা যায়, মসজিদটিকে আন্তর্জাতিক মানের দৃষ্টিনন্দন ইসলামিক কমপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দ্রুতই এর কাজ শুরু হবে। যার নামকরণ হবে "পাগলা মসজিদ ইসলামিক কমপ্লেক্স"। এটি নির্মাণে প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছে ১১৫ কোটি টাকা। সেখানে ৩০ হাজার মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন।

Walton Refrigerator Freezer
Walton Refrigerator Freezer