Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৮, শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ৩:৫৯ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

চলতে-ফিরতে

ভালবাসার ভালবাসি (পর্ব দুই)


১৯ জুলাই ২০২১ সোমবার, ০১:৩৫  এএম

ফজলুল বারী বাবু, সঙ্গীতশিল্পী ও সাংস্কৃতিক সংগঠক

বহুমাত্রিক.কম


ভালবাসার ভালবাসি (পর্ব দুই)

দুই. 
অরু একটুও ঘাবড়ে যায়না! সে খুব ভালো করে জানে জামাল উদ্দিন স্যার তাকে না জেনেশুনে এতবড় দায়িত্ব দেয়নি! শুধু একটি জায়গায় অরু কিছুটা দ্বিধায় পরে গেছে, গান সুর সে আগে কখনো করেনি, সেই সুযোগ তার এই ছোট্ট জীবনে ঘটেইনি। নির্মল মিত্র ওস্তাদজীর কাছে ক্লাসিক্যাল এবং নজরুল সংগীতের তামিল নিচ্ছে কিন্তু সুরের বিষয়টা তার ছোট্ট মাথায় আসবার কথা নয়!

উপরন্তু নানাবাড়ী আর দাদাবাড়ীর উপর কর্তৃত্ব দেখাতে দেখাতে শুধু গান গাওয়া ছাড়া অন্যকিছুতে মনোযোগ দেয়া অরুর পক্ষে সম্ভব হয়নি। তার উপর আবার নানা দাদার প্রভাবের বদৌলতে এলাকা মাথায় তুলে রাখায়ও এই কিশোরীর জুড়ি ছিলোনা!

এইতো বছর দুয়েক আগে জেলে পারায় গিয়ে নৌকা ভরে মাছ নিয়ে আসে অরু আপন অধিকার বলে! যদিও ন্যায্য অর্থ দিয়েই মাছ নিয়ে আসে, তবুও জেলেদের নিজস্ব বিক্রির একটা আলাদা জায়গা থাকে প্রতিদিনের, সেইদিন সেই বিষয়টাতে জেলেদের অপ্রস্তুত হওয়া মানে বাণিজ্যে এক ধরনের জটিলতার সম্মুখীন তাদের হতে হয়েছে।

কিছুই করার নেই, "কাসেম মিয়া"র নাতনী বলে কথা! আর জেলেদের মধ্যে এমন কোনো জেলে আজও জন্মায়নি যে প্রতিবাদ করে অরুর যথেচ্ছাচারকে! একদিক থেকে বিচার করা হলে কারো আনন্দকে যথেচ্ছাচার বলাও ঠিক নয়! তারপরও অরুর এই সকল কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করলে তার ফলাফল কেমন জেলে পারার ছেলে, মেয়ে, বুড়ো, বুড়ি সবার জানা!


গেলো বছর বার্ষিক পরীক্ষার পর স্কুল থেকে বের হতেই মাথায় এলো বাড়িতে গিয়ে গলদা চিংড়ির ভুনা খেতে হবে, কিন্তু এই মুহূর্তে বাড়িতে চিংড়ি আছেকিনা অরুর জানা নেই, তাই সুপ্তি, জোছনা আর বিলালকে সাথে করে হাজির হলো বড় নদীতে যেখানে জেলেরা মূলত চিংড়ি মাছের জন্যই ভেসেল পেতে বসে থাকে।

দূর থেকে অরুকে আসতে দেখে অনেক জেলে নৌকা মাছধরা গুটিয়ে পারের দিকে দ্রুত রওনা দিলো। কিন্তু মাধব দাস অরুকে নৌকায় আসতে দেখে অপেক্ষা করতে লাগলো। অরুর নৌকা মাধব দাসের ভেসেলের কাছে আসতেই অরু চিৎকার করে বললো,"মাধব দা তোমার মাচা পরিষ্কার করো। মাদবের বুঝতে বাকি থাকলোনা আজ পাগলীর পাগলামী হজম করতে জান কয়লা হবে নিশ্চিত! তবুও এই বংশীবাদক জেলে এই মেয়েটার গানের সুরে এক ধরনের দিওয়ানা বুঝতে পারে।

ভেসেলের মাচায় সঙ্গীদের নিয়ে আরাম করে বসে মাধবের মাছ ধরা দেখছে আর চিংড়ির পাত্রে মাঝে মাঝেই চোখ ফেরাচ্ছে! অনেক গলদা চিংড়ি পাত্রের পানিতে ছটফট করছে। কিছুটা সময় পেরোতে না পেরোতেই অরুর হুকুম জারি,"দাদা তোমার বাঁশিটা বের করোতো দেখি"! মাধবের আজকের মত মাছ শিকার শেষ! পাগলীর মাথায় সুর ভর করেছে এখন। পৃথিবীর সবকিছু আগামী কিছুটা সময়ের জন্য অচল।

‘কাউকে কথা দেবার আগে ভাবুন, আবার ভাবুন, আরো ভাবুন! আশাহত মানুষগুলোর কষ্ট অনেক, আপনার, আমার সামান্য কথা ভঙ্গের সাথে কারো আশা ভেঙে যেতে পারে!’

ইলফোর্ড, লন্ডন

চলবে...

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।