Bahumatrik Logo
১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩, শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১২:৪৫ অপরাহ্ণ

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার না হলে গণপদত্যাগের হুমকি


১৮ জুন ২০১৬ শনিবার, ১২:৪০  এএম

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি

বহুমাত্রিক.কম


অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার না হলে গণপদত্যাগের হুমকি

রাঙামাটি : অবিলম্বে রাঙ্গামাটিসহ পার্বত্য এলাকায় অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার অভিযান শুরু করা না হলে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা আওয়ামী লীগসহ সকল সহযোগী ও অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা একযোগে পদত্যাগ করে সভানেত্রীর কাছে পাঠিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ, ১০টি উপজেলা আওয়ামী লীগ, শহর আওয়ামী লীগ, সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনে দলের সমর্থনে অংশ গ্রহণকারী বিজয়ী ও বিজিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীদের সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভা ও ইফতার মাহফিলে বক্তারা এ মত ব্যক্ত করেন।

রাঙ্গামাটি চেম্বারের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।

স্থানীয় মহিলা সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মাহবুবুর রহমান মাহবুব, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য হাজী মুছা মাতব্বরসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এবং ইউপি নির্বাচনে অংশ নেয়া চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বক্তব্য রাখেন।

সভায় বক্তারা বলেছেন, ৪৮টি ইউপির মধ্যে অধিকাংশ দূর্গম কেন্দ্রগুলিতে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জেএসএস, ইউপিডিএফ এর সশস্ত্র ক্যাডার বাহিনী ভোটের দিন সকাল ১০ থেকে ১১টার মধ্যে অস্ত্রের মুখে জাল ভোট প্রদান করে ৮০% শতাংশ ভোট প্রদান সম্পন্ন করে ফেলে। এখন এই নির্বাচনটি অস্ত্রবাজির নির্বাচন হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় নৌকা সমর্থক শত শত নেতাকর্মীদের মারধর, জীবননাশের হুমকি দিয়ে, নৌকার সমর্থক হওয়ার অপরাধে অর্থ দন্ড দিয়ে নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করেছে।

তাদের অভিযোগ, ভোটের আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার রাঙামাটি এসে অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, বাস্তবে তা হয়নি। স্থানীয় প্রশাসন, আইন শৃংখলা বাহিনী নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করার ফলে অস্ত্র নির্ভর আঞ্চলিক দলের সশস্ত্র ক্যাডারদের বিজয় হয়েছে।

বক্তারা বলেছেন, জেএসএস কর্তৃক পুন:রায় সাধারণ জনগণকে জিম্মি করে আগামী ১৯-২১ জুন পর্যন্ত যে অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে, তার বিরুদ্ধে প্রশাসন যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন না করলে ভুক্তভোগী সাধারণ জনগণকে সাথে নিয়ে এই অবরোধ ভেঙ্গে ফেলা হবে।

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।