Bahumatrik | বহুমাত্রিক

সরকার নিবন্ধিত বিশেষায়িত অনলাইন গণমাধ্যম

ফাল্গুন ১০ ১৪৩০, শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

‘রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে জাতীয় অপরাজিতা নেটওয়ার্ক’

বহুমাত্রিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৫৩, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আপডেট: ১৭:৫৭, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

প্রিন্ট:

‘রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে জাতীয় অপরাজিতা নেটওয়ার্ক’

ছবি: সংগৃহীত

অপরাজিতা- নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থারসমূহের আয়োজনে আজ সকাল ১০ টায় বেঙ্গল ব্লু-বেরিতে জাতীয় অপরাজিতা নেটওয়ার্ক গঠন সভা খুলনার রূপসা উপজেলার আইজগাতী ইউপি’র সাধারন আসনের সদস্য আকলিমা খাতুন তুলি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

খান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক এ্যাডভোকেট রোকসানা খোন্দকার উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন নারীরা যতক্ষণ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণে নিজেদেরকে তৈরীতে করতে পারছেন না ততক্ষণ পর্যন্ত নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন সম্ভব না। তিনি আরো বলেন প্রকল্পটি ২০১১ সাল থেকে বাস্তবায়ন হচ্ছে, ইতোমধ্যে উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে অপরাজিতা নেটওয়ার্ক গঠন করা হয়, সেই প্রেক্ষাপটে আজকে জাতীয় অপরাজিতা নেটওয়ার্ক গঠন করা হচ্ছে।

সভার শুরুতে প্রকল্পের উপ-পরিচালক ফওজিয়া খোন্দকার বলেন ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান, সাবেক ও আগামীর সম্ভাব্য নারী জনপ্রতিনিধিগণ, যাঁরা বিভিন্ন ভাবে স্থানীয় পরিসরে তৎপর রয়েছেন নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নের কর্মকান্ডে, সেইসব তৃনমূলের নারীরা নিজেদের পরিচয় দিয়ে থাকেন 'অপরাজিতা'। জাতীয় পর্যায়ে নেটওয়ার্কের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নকে ত্বারান্বিত করা। সভায় তৃণমূলের অপরাজিতারা বলেন নেটওয়ার্ক শুধু গঠনের উদ্দেশ্যে তৈরী হলে চলবে না, কার্যকরী রূপ দিতে হবে।

অপরাজিতা নেতৃবৃন্দ বলেন আমরা বিভিন্ন প্রতিকূলতা সত্ত্বেও স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ হিসাবে কাজ করছি। আমরা সংরক্ষিত আসনের গতি ছাপিয়ে সাধারণ আসনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ব্যাপারে অগ্রহী হয়ে উঠেছি। নেটওয়ার্ককের মাধ্যমে স্থানীয় শাসন ব্যবস্থা ও উন্নয়ন প্রক্রিয়াকে অধিকতর নারীবান্ধব ও জনমুখী করা হয় সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২-এর নির্দেশনা সত্বেও রাজনৈতিক দলসমূহের বিভিন্ন কমিটিতে ৩৩% নারীর প্রতিনিধিত্ব না থাকা-সেগুলির সঠিক সমাধান এবং নির্বাচনে নারীদের মনোনয়ন দেওয়া সেই বিষয়ে রাজনৈতিক দল ও নাগরিক সমাজের সমর্থন ব্যক্ত করেন।

নেটওয়ার্ক গঠন সভায় জাতীয় পর্যায়ের নারী নেত্রীরা বলেন, নারীর ক্ষমতায়নের পূর্ব-শর্ত হলো নিজের অধিকার, সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় নিজেকে তৈরী করা, দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে সচেতন হওয়া। রাষ্ট্র, সমাজ ও পরিবারের সকল পর্যায়ে নারীদের সন্মানজনক অবস্থানে রাখার পাশাপাশি রাজনৈতিক ক্ষমতায়নও জরুরী। বক্তরা আরো বলেন তৃনমূলের বিভিন্ন প্রতিকূলতা সত্ত্বেও মাঠ পর্যায়ের নারী নেত্রীদের হার না মানা মনোভাব তথা তাঁদের বিভিন্ন অর্জনের কাহিনী শুনে আমরা অনুপ্রাণিত বোধ করছি।

তাঁরা এই অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন যে, নারীদের ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে তাঁরা অপরাজিতাদের সাথে একজোট হয়ে কাজ করবেন যখন যেভাবে সম্ভব। সংসদ সদস্য আরমা দত্ত বলেন আগামীতে স্থানীয় সরকার ও জাতীয় সংসদে সাধারন আসনে নারীরা নির্বাচিত হওয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে বলে আমার বিশ^াস। সংসদ সদস্য ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাধারন সম্পাদক শিরিন আক্তার বলেন অপরাজিতাদের মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নের যে ঢেউ সঞ্চারিত হয়েছে, তা নিচ থেকে উপরে এসে নীতিনির্ধারণী মহলেও নাড়া দেবে বলে আমরা বিশ^াস করি।  

ডেমক্রেসিওয়াচের নির্বাহী পরিচালক ওয়াজেদ ফিরোজ অপরাজিতা প্রকল্পকে সার্বিকভাবে সহাযোগিতা করার জন্য সুইজারল্যাল্ড এ্যামবাসির প্রতিনিধি ও হেড অব কো-অপরাশেন করিন হেনচোজ পিগনানি, প্রোগ্রাম ম্যানেজার সাবিনা ইয়াসমিন লুবনা, হেলভেটাস বাংলাদেশের প্রতিনিধি প্রশান্ত ত্রিপুরাসহ উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। সভায় সিনিয়র ফেলো অব প্রাকট্রিস, বিআইজিডি’র মাহিন সুলতান, বিএনপির নেত্রী নিলোফার চৌধুরী মনি বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত নারী জনপ্রতিনিধি, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, হেলভেটাস বাংলাদেশের প্রতিনিধি ও প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থার কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী সুইজারল্যান্ডের (এসডিসি-এর) সহায়তায় 'অপরাজিতা নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন' প্রকল্পটি ২০১৮ থেকে  হেলভেটাস বাংলাদেশের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় এবং চারটি সহযোগী সংস্থা খান ফাউন্ডেশন, ডেমক্রেসিওয়াচ, প্রিপ ট্র্রাস্ট ও রূপান্তরের মাধ্যমে দেশের ছয়টি বিভাগের ১৬টি জেলার ৬২টি উপজেলার সব কয়টি বা মোট ৫৪০টি ইউনিয়নে অপরাজিতা প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। পরিশেষে সকলের সম্মতিতে সংসদ সদস্য আরমা দত্ত ও খান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক এ্যাডভোকেট রোকসানা খোন্দকারকে সহ-আহবায়ক করে একটি জাতীয় অপরাজিতা নেটওয়ার্ক গঠন করা হয়।

Walton Refrigerator Freezer
Walton Refrigerator Freezer