Bahumatrik | বহুমাত্রিক

সরকার নিবন্ধিত বিশেষায়িত অনলাইন গণমাধ্যম

শ্রাবণ ৯ ১৪৩১, বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪

মণিপুরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত ৪০

প্রকাশিত: ২০:২৯, ২৮ মে ২০২৩

প্রিন্ট:

মণিপুরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত ৪০

ফাইল ছবি

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মণিপুরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে অন্তত ৪০ জন কথিত বিদ্রোহীর মৃত্যু হয়েছে। রোববার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

মণিপুর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এন বিরেন সিং সাংবাদিকদের বলেন, সন্ত্রাসীরা  বেসামরিক লোকদের বিরুদ্ধে এম-১৬ এবং একে-৪৭ রাইফেল ও স্নাইপার বন্দুক ব্যবহার করছে। তারা বহু গ্রামে এসে বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘সেনাবাহিনী ও অন্য নিরাপত্তা বাহিনীর সাহায্য নিয়ে আমরা তাদের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কড়া পদক্ষেপ নেয়া শুরু করেছি। আমাদের কাছে ৪০ জন সন্ত্রাসী নিহতের প্রতিবেদন এসেছে।’

চলতি মাসেই দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ’র মণিপুর রাজ্যে সফর করার কথা রয়েছে। শনিবার (২৭ মে) থেকে মণিপুরে রয়েছেন দেশটির সেনাপ্রধান মনোজ পান্ডে।

ঠিক এমন সময়েই রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী এন বিরেন্দ্র সিং দাবি করেছেন, ৮ ঘণ্টার অভিযানে রাজ্যটির ৫টি এলাকায় অন্তত ৪০ জন বিদ্রোহীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রীর বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজ্যটির রাজধানী ইম্ফাল থেকে ৭০ কিলোমিটারের মধ্যে সেকমাই, সুগনু, কুম্বি, ফায়েং এবং সেরু এই পাঁচটি এলাকায় অসম সেনা রাইফেল এবং অসম পুলিশ যৌথ অভিযান চালায়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে জড়ো হওয়া বিদ্রোহীরা এম-১৬ ও একে-৪৭ এর মতো অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বেসামরিক মানুষের ওপর হামলার পরিকল্পনা নিয়েছিল।

এনডিটিভি আরও জানায়, শনিবার সন্ধ্যার পর থেকে রাত ২টা পর্যন্ত এই অপারেশন চলে। তবে এখন সেই অপারেশন শেষ।

মুখ্যমন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, মণিপুরকে বিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে বিদ্রোহীদের কে বা কারা মদদ দিচ্ছে। রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় সরকারের সহযোগিতা নিয়ে সর্বশক্তি দিয়ে মণিপুরে শান্তি ফিরিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে এমন অভিযানে নেমেছে।

তবে সংবাদমাধ্যমটি রাজধানী ইম্ফালের আঞ্চলিক ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সের একজন চিকিৎসকের বরাদ দিয়ে জানিয়েছে, রোববার সকাল পর্যন্ত তারা অন্তত ১০ জন গুলিবিদ্ধ রোগীকে চিকিৎসা দিয়েছেন। এদের মধ্যে বিষ্ণপুরের চন্দনপোকু গ্রামের কয়েকজন কৃষকও রয়েছেন। তাদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

গত মাস থেকেই মণিপুর রাজ্যে বেশ কিছু দাবিতে স্থানীয় বেশ কয়েকটি জাতিগোষ্ঠী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করে। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী চলমান এই সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬০ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছিল।

Walton Refrigerator Freezer
Walton Refrigerator Freezer