Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২৭ আষাঢ় ১৪২৭, রবিবার ১২ জুলাই ২০২০, ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

মা দিবসে দেশমাতৃকার কাছে কোটি সন্তানের খোলা চিঠি


১১ মে ২০২০ সোমবার, ১২:০৬  এএম

রিফাত বিন আইয়ুব, পুর্তুগাল

বহুমাত্রিক.কম


মা দিবসে দেশমাতৃকার কাছে কোটি সন্তানের খোলা চিঠি

প্রিয় দেশমাতৃকা,

কেমন আছো? জানি তুমি ভালো নেই। তোমার ভালো না থাকার কারণগুলোও আমাদের অজানা নয়। কোভিড-১৯ মহামারী ছাড়াও তুমি অসংখ্য মহামারীর সাথে লড়ছো প্রতিনিয়ত। অনেক সমস্যায় জর্জরিত হয়ে তোমার ভালো থাকার কথা নয়, তা আমরা বুঝি মা। তোমার কষ্ট সন্তান হিসেবে আমাদেরকেও পীড়া দেয়।

আরো বেশি পীড়া দেয় তোমার জন্য কিছু করতে না পারার গ্লানি। তাই আজ মা দিবসে তোমায় আলাদা করে লিখতে বসেছি। কারণ ভূমিষ্ঠ হবার পর থেকেই তোমায় মা বলে চিনেছি। পরতে পরতে তোমার স্নেহ অনুভব করেছি। জেনেছি শত বিপদে পরম মমতায় আগলে রাখা তোমার কোলই আমাদের দুর্বেদ্য কেল্লা, আমাদের শেষ আশ্রয়। মাগো, চোখের সামনেই প্রতিদিন একের পর এক চোর তোমার সমৃদ্ধ ভান্ডার চুরি করে চলেছে, আর তোমার দ্বাররক্ষক, চোরদের প্রতিহত করার পরিবর্তে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়।

অন্যদিকে তোমার কথিত সেবকেরা, তোমার চুরি যাওয়া সম্পদ উদ্ধার না করলেও, বিভিন্ন অজুহাতে তোমার মাথায় তুলে দিচ্ছে অসীম ঋণের বোঝা। তোমায় রক্ষা করার জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েও আমরা কিছু করতে পারিনা। ভয় হয় মা, এক অজানা ভয়। মনে হয় তোমার সন্তানদের পায়ের নিম্নাংশের মাটি ক্রমশই সরে যাচ্ছে, অচিরেই কোনো অজানায় হারিয়ে যাবে তুমি। কারণ দিনে দিনে আমরা দুর্বল হলেও তোমার কথিত সেবকদের শক্তি ক্রমবর্ধমান। জানো মা, এই মহামারীতে তোমার কোটি সন্তানের চিকিৎসা নিশ্চিত করা না হলেও, তোমার কথিত সেবকদের জন্য আলাদা চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

চিকিৎসা খাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে বরাদ্দ থাকা সত্ত্বেও জনসাধারণের জন্য পর্যাপ্ত চিকিৎসা সামগ্রীর অভাব প্রকট হয়েছে। তোমার অগণিত সন্তান অনাহারে থাকলেও, তাদের জন্য বরাদ্দকৃত টাকায় ফুলে ফেঁপে উঠছে তোমার কথিত সেবকেরা। প্রতিদিন ত্রাণ বিতরণের নামে চলছে অজস্র ছবি তোলার হিড়িক। ছবি দেখলে তুমি ঠিক চিনতে পারবে না মা। কারণ তারা আজ রাজার ভূমিকায়, তোমার সন্তানেরা ভিক্ষুক। এখানেই শেষ নয় মা। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা এবং প্রবাসীরা তোমার অর্থনীতির মেরুদন্ড হলেও, তাদের যত্ন নেয়া হয়না বরং অৱজ্ঞা করে তোমার প্রবাসী সন্তানদের "রাজপুত্র" খেতাব দেয়া হয়। পোশাকশিল্পের অন্যতম চালিকাশক্তি হওয়া সত্ত্বেও, পোশাক শ্রমিকদেরই মহামারীর মৃত্যুকুপে ঠেলে দেয়া হয়েছে সবার আগে।

কৃষকেরা তোমার কোটি সন্তানের অন্নের যোগানদাতা হলেও, তাদের সাথে প্রহসনে মেতে উঠেছে তোমার কথিত সেবকেরা। মেতে উঠেছে ধান কাটার নামে ছবি তোলা সহ ধান নষ্ট করার অসুস্থ প্রতিযোগিতায়। দারিদ্রতার কারণে তোমার অনেক সন্তান আত্মহত্যা করলেও আঠাশ হাজার টাকায় একটি বালিশের কভার কেনা হয়। তোমার সন্তানের একটি কিডনির দাম অতি অল্প হলেও, অর্ধকোটি টাকার বেশি দিয়ে একটি নারকেল গাছ কেনা হয়। তোমার কোলে সবাই সমানভাবে ঠাই পেলেও, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য অনিরাপদ বলে, আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তোমাকে ছোট করার ঘৃণ্য প্রয়াস করা হয়।

ধর্ষকের হাত থেকে ছয় মাসের ছোট্ট শিশুটি রেহাই না পেলেও বিচারকের দণ্ড থেকে বেঁচে যায় অমানুষ ধর্ষকেরা। জানিনা এইসবের শেষ কোথায়, তবু তোমার সন্তানেরা থেমে নেই। শত বাধা পেরিয়ে তোমার সেবায় নিয়োজিত আছে তোমার কোটি সন্তান। প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তোমার সেবায় নিয়োজিত আছে ডাক্তারসহ অসংখ্য সাস্থকর্মী। মাঠে ঘাটে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীতে নিযুক্ত তোমার অসংখ্য সন্তান। মা দিবসের শুভেচ্ছা নিও। সান্তনা দিতে নয়, তোমাকে জানাতে চাই। তোমার ভয় নেই মা। তোমার সন্তানেরা বার বার জীবন দিয়ে প্রমান করেছে, তোমার অস্তিত্বের প্রশ্নে তারা কখনোই আপোষ করবেনা। শরীরের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে লড়াই করে যাবে তোমার কোটি সন্তান।

ইতি, তোমার কোটি সন্তান।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।