Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, শুক্রবার ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৫১ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

বশেমুরকৃবি’র গবেষকদের নতুন জাতের চেরি টমেটো উদ্ভাবন


০২ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার, ০১:২৮  এএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


বশেমুরকৃবি’র গবেষকদের নতুন জাতের চেরি টমেটো উদ্ভাবন

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় উদ্ভাবন করেছে নতুন জাতের চেরি টমেটো। সম্প্রতি জাতীয় বীজ বোর্ড নতুন এই জাতের প্রত্যয়নপত্র দিয়েছে। নতুন জাতটির নাম ‘বিইউ চেরি টমেটো-১’। বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক্স অ্যান্ড প্ল্যান্ট ব্রিডিং বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মেহফুজ হাসান সৈকতের নেতৃত্বে পরিচালিত গবেষণায় কীটতত্ত্ব বিভাগের প্রফেসর মোঃ আহসানুল হক স্বপন, কারিগরি কর্মকর্তা রফিকুল ইসলামসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি ও এমএস এর কয়েকজন শিক্ষার্থী যুক্ত ছিলেন।

 নতুন জাতের এ চেরি টমেটো উদ্ভাবিত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ গিয়াসউদ্দীন মিয়া গবেষণায় সংযুক্ত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে আশা প্রকাশ করে বলেন, উদ্ভাবিত এ নতুন জাতের চেরি টমেটোর চাষ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়বে, মানুষ এ থেকে উপকৃত হবে। তিনি আরো বলেন, এ টমেটো দেখতে আকর্ষণীয়, খেতে সুস্বাদু এবং বাচ্চাদের খুবই পছন্দ।

দেশে উদ্ভাবিত চেরি টমেটোর মধ্যে এটিই সবেচেয়ে বেশি ফলনশীল। আকারে ও গুণমানে অনন্য পুষ্টি সমৃদ্ধ। এই জাতের টমেটোর রং, আকৃতি ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অন্য টমেটোর চেয়ে বেশি। অন্য যেকোনো জাতের টমেটোর চেয়ে এই টমেটোতে বেশি পরিমাণে লাইকোপিন ও ফ্ল্যাভোনয়েড এন্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। লাইকোপিন ক্যানসার ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়, আর ফ্ল্যাভোনয়েড ডেঙ্গু প্রতিরোধে কার্যকরী।

বিইউ চেরি টমেটো-১ জাতটি সঠিকভাবে চাষ করলে হেক্টর প্রতি ১৪০ টন পর্যন্ত ফলন পাওয়া যাবে যেখানে প্রচলিত অন্য জাতের টমেটোতে হেক্টর প্রতি ফলন ১০০ টন। নতুন জাতের এই টমেটো খুবই রসাল, সহজে পোকামাকড়ের আক্রমণ হয় না। এই টমেটোতে ক্যানসার ও হৃদরোগ প্রতিরোধী উপাদানের মাত্রা বেশি থাকে। চেরি টমেটো অন্য জাতের টমেটোর মতই চাষ করা যায়। তবে বন্য প্রজাতির হওয়ায় এই জাতের টমেটো চাষ ও পরিচর্যা তুলনামূলক সহজ।

এক হেক্টর জমিতে এ জাত চাষ করতে মাত্র ২০০ গ্রাম বীজ লাগে। সব ধরনের মাটিতেই এ জাত চাষ করা যায়, তবে বেলে দোআঁশ বা এঁটেল দোআঁশ মাটিতে ফলন বেশি হবে। অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর মাস বীজতলায় বীজ বপন করার উপযুক্ত সময়। হেক্টর প্রতি ৪৫০ কেজি ইউরিয়া, ২৫০ কেজি টিএসপি ও ১৫০ কেজি পটাশ সার এবং পাঁচ টন গোবর সার প্রয়োগ করতে হবে। গবেষকদের স্বপ্ন, হেক্টর প্রতি অধিক ফলনের কারণে সারা দেশে এই জাতের টমেটো চাষ বৃদ্ধি পাবে এবং কৃষক পর্যায়ে সহজলভ্য হবে, দাম হবে সহনীয়, বদলবে কৃষকের ভাগ্য।

-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।