Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯, সোমবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১:৪০ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

ফের নিখোঁজ মরিয়মের মা রহিমা বেগম!


১৭ অক্টোবর ২০২২ সোমবার, ০৮:২৮  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক

বহুমাত্রিক.কম


ফের নিখোঁজ মরিয়মের মা রহিমা বেগম!

বহুল চর্চিত রহিমা বেগম অন্তর্ধান কাণ্ড নিস্পত্তির পর খুলনার আলোচিত সেই গৃহবধূ রহিমা বেগম (৫২) আবারো নিখোঁজ হয়েছেন বলে খবর শোনা যাচ্ছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রহিমা বেগমের ছেলে মিরাজ আল সাদি। তবে কোথায়, কোন স্থান থেকে রহিমা বেগম পুনরায় অন্তর্ধানে গেছেন সেই বিষয়টি তিনি স্পষ্ট করেননি। বিষয়টি নিয়ে তিনি আদালতে জবানবন্দিও দিয়েছেন।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) খুলনার পুলিশ সুপার সৈয়দ মুশফিকুর রহমান জানান, রহিমা বেগমকে উদ্ধারের পর গত ২৫ সেপ্টেম্বর আদালত তাকে তার মেয়ে আদুরি আক্তারের জিম্মায় দেয়। তারাই ভালো বলতে পারবে তাদের মা কোথায় আছেন।

তিনি জানান, সোমবার দুপুরে রহিমা বেগমের ছেলে মিরাজ আল সাদি মায়ের অন্তর্ধান ও নিরীহ ব্যক্তিদের নামে মামলা দিয়ে হয়রানি করায় মায়ের বিরুদ্ধে আদালতে জবাববন্দি দিতে রাজি হওয়ায় তাকে আদালতে পাঠানো হয়। সাদি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন বলেও জানান পুলিশ সুপার।

রহিমা বেগমের মেয়ে মরিয়ম মান্নান গণমাধ্যমকে জানান, মা কোথায় গেছেন জানেন না। ঠিক কবে বাড়ি ছেড়েছেন তা-ও নিশ্চিত নন। সবশেষ তিনি খুলনা শহরের বয়রায় ছোট মেয়ে আদুরী আক্তারের ভাড়া বাড়িতে ছিলেন।

তিনি আরও জানান, আমার ভাই সাদি আমাকে জানিয়েছিল যে মাকে পাওয়া যাচ্ছে না। পরে আদুরীর কাছে ফোন করে জানতে পারি মাকে পাওয়া যাচ্ছে না। কোথায় গেছে, কেউ জানি না। এবার আর মাকে খুঁজবো না।

এদিকে রহিমা বেগমের ছেলে মিরাজ আল সাদি জানান, আমার মা আবার নিখোঁজ হয়েছে বলে আমি শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে আমি বিব্রত হয়েছি। সে কারণে আমার মা বা বোনদের সঙ্গে ভালো কোনো যোগাযোগ নেই। তাই কখন থেকে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন সেটা আমি জানি না। তবে বিষয়টি নিয়ে এতোটাই বিব্রত যে আমি আদালতে জবানবন্দি দিয়েছি।

তিনি আরও জানান, আমি মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার জাহানের আদালতে জবানবন্দি দিয়েছি। তিনি পিবিআই পুলিশ সুপারের বরাত দিয়ে জানান, তার বোন আদূরী পুলিশ সুপারকে বলেছেন মাকে আবার পাওয়া যাচ্ছে না।

এর আগে গত ২৭ আগস্ট খুলনার দৌলতপুর থানার মহেশ্বরপাশা এলাকা থেকে গৃহবধূ রহিমা বেগম নিখোঁজ হন। পরদিন রহিমা বেগমের মেয়ে আদুরী আক্তার বাদী হয়ে প্রতিবেশীদের নামে দৌলতপুর থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ ২৭ দিন পর গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাত পৌঁনে ১১টার দিকে ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার বোয়ালমারী ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে সুস্থ ও হাসখুশি অবস্থায় উদ্ধার করে। উদ্ধারের সময় তিনি ওই বাড়ির লোকজনের সঙ্গে গল্প করছিলেন।

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea

নারীকথা -এর সর্বশেষ