Bahumatrik | বহুমাত্রিক

সরকার নিবন্ধিত বিশেষায়িত অনলাইন গণমাধ্যম

জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪৩১, মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪

বিমানবন্দর সড়কে বেপরোয়া বাসের চাপায় প্রকৌশলী নিহত

বহুমাত্রিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩:৩৩, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

প্রিন্ট:

বিমানবন্দর সড়কে বেপরোয়া বাসের চাপায় প্রকৌশলী নিহত

ফাইল ছবি

রাজধানীর বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে চাকরির পরীক্ষা ছিল ইরানি চৌধুরীর। শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় তাঁকে কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্বটি স্বামী মইদুল ইসলাম সিদ্দিক শুভ (৩৭) নিয়েছিলেন। কাওলা এলাকার বাসা থেকে বেরিয়ে মোটরসাইকেলে স্ত্রীকে বনানীতে নিরাপদে পৌঁছে দেন তিনি। এর পর আবার বাসায় ফিরছিলেন। তার আগেই রাইদা পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মইদুল প্রাণ হারান। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি মোটরসাইকেলসহ তাঁকে ছেঁচড়িয়ে নিয়ে যায় প্রায় ১৫ ফুট। গাড়ির সামনের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই সিভিল এভিয়েশনের এই জ্যেষ্ঠ উপসহকারী প্রকৌশলী নিহত হন। 

শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকায় এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটি বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের টিনের নিরাপত্তা বেষ্টনী (অস্থায়ী) ভেঙে ভেতরে চলে যায়। ওই অবস্থায় বাস রেখে পালিয়ে যায় চালক ও তার সহকারী। পরে বিমানবন্দর থানা পুলিশ বাসটি জব্দ করে।

নিহত মইদুল ইসলামের স্বজনরা জানান, তাঁর গ্রামের বাড়ি বগুড়া জেলা শহরের নিশিন্দারায়। বাবার নাম এ কে এম সামছুদ্দিন সিদ্দিক। দুই ভাইবোনের মধ্যে মইদুল ছোট। তাঁর একমাত্র বোন কানাডা প্রবাসী।

মইদুল ২০১২ সাল থেকে সিভিল এভিয়েশনে কর্মরত ছিলেন।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাইদা পরিবহনের বাসটির ফিটনেস নেই। ২০২৩ সালের ২৯ জানুয়ারি ফিটনেসের মেয়াদ শেষ হয়েছে। এর পর আর ফিটনেস করানো হয়নি। এ ছাড়া ট্যাক্স, টোকেন ও রুট পারমিটের মেয়াদ শেষ হয়েছে ২০২২ সালের নভেম্বরে। রাইদা পরিবহনের বাস পোস্তগোলা থেকে উত্তরা খালপাড় পর্যন্ত চলাচল করে। বনানী থেকে উত্তরা পর্যন্ত এই সড়কে বাসচালকরা বেপরোয়া হয়ে ওঠে। ফলে প্রায়ই ঘটে দুর্ঘটনা। গত আট বছরে আড়াই শতাধিক মানুষ এই সড়কে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার সকালে বাসটি পোস্তগোলা থেকে উত্তরায় যাচ্ছিল। এ সময় প্রকৌশলী মইদুল মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন। বেপরোয়া গতির বাসটি বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের কাছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মইদুলের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিয়ে ছেঁচড়িয়ে টার্মিনালেন টিনের নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়ে। বাসের সামনের ডান চাকার নিচে মোটরসাইকেলসহ মইদুল আটকে ছিলেন। পরে বাস সরিয়ে তাঁকে উদ্ধার করা হয়। দুর্ঘটনায় তাঁর মুখের এক পাশ থেঁতলে যায়। অচেতন অবস্থায় দ্রুত কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক জানান, হাসপাতালে নেওয়ার আগেই মইদুলের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর মোটরসাইকেল ও হেলমেট দুমড়েমুচড়ে গেছে।

পুলিশ কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল থেকে দুপুরে মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়। সেখানে ময়নাতদন্ত শেষে বিকেলে কাওলার বাসায় নেওয়া হয়। দুর্ঘটনায় বাসের কয়েক যাত্রী এবং সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশার যাত্রী ও চালক সামান্য আহত হন। তারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন

মইদুলের চাচাতো বোনের স্বামী মাসুদ রানা জানান, দুই বছর আগে জয়পুরহাটের মেয়ে ইরানি চৌধুরীর সঙ্গে মইদুলের বিয়ে হয়। তাদের কোনো সন্তান নেই। স্ত্রীকে নিয়ে কাওলায় সিভিল এভিয়েশন স্টাফ কোয়ার্টারে থাকতেন তিনি। গতকাল ব্যাংকের চাকরির পরীক্ষা ছিল ইরানির। তাঁকে বনানীর পরীক্ষা কেন্দ্রে নামিয়ে দিয়ে মইদুল বাসায় ফিরছিলেন। পরীক্ষা শেষে ফের বনানী থেকে স্ত্রীকে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল তাঁর। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পরীক্ষা শেষ না করেই বের হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ছুটে যান ইরানি। 

স্বামীর মরদেহ জড়িয়ে তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন। কাঁদতে কাঁদতে তিনি বলেন, ‘পরীক্ষা দিতে যাওয়ার সময় কত কথা হলো তোমার সঙ্গে। এরই মধ্যে তুমি আমাকে ছেড়ে চলে গেলে!’

স্বজনরা জানান, সন্ধ্যার পর কাওলা থেকে মরদেহ নিয়ে গ্রামের বাড়ি বগুড়ার উদ্দেশে রওনা হন তারা। বগুড়ায় একটি হাসপাতালের হিমঘরে মরদেহ দুই দিন রাখা হবে। কানাডা থেকে তাঁর বড় বোন আসার পর দাফন করা হবে। শুক্রবার কানাডা থেকে তাঁর বোন বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। 

তারা আরও জানান, কয়েক বছর আগে মইদুল ওমরাহ পালন করতে সৌদি আরবে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে কাফনের কাপড় এনেছিলেন তিনি। সেই কাপড় পরিয়েই তাঁকে দাফন করা হবে। 

বিমানবন্দর থানার এসআই সুমন চন্দ্র দাস বলেন, এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। বাসের চালক ও তার সহকারী ঘটনার পরই পালিয়ে গেছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) সদস্য (পরিচালনা ও পরিকল্পনা) এয়ার কমডোর এ এস এম আতিকুজ্জামান বলেন, মইদুলের পরিবারকে নিয়ম অনুযায়ী সব ধরনের সহায়তা করা হবে।  

তৃতীয় টার্মিনালের এক প্রকৌশলী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার অভিযোগ দেওয়ার পর ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে জানা যাবে। 

Walton Refrigerator Freezer
Walton Refrigerator Freezer