Bahumatrik | বহুমাত্রিক

সরকার নিবন্ধিত বিশেষায়িত অনলাইন গণমাধ্যম

শ্রাবণ ৬ ১৪৩১, সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪

সিলেট জেলার ‘শ্রেষ্ঠ জয়িতা’ মোছাঃ ফাইমুন নেছা

মোহাম্মদ গোলজার আহমদ, নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:৩৭, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

প্রিন্ট:

সিলেট জেলার ‘শ্রেষ্ঠ জয়িতা’ মোছাঃ ফাইমুন নেছা

ছবি- বহুমাত্রিক.কম

সিলেট: মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ - ২০২২ জেলা পর্যায়ে নির্বাচিত সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতার মধ্যে অন্যতম দরবস্তের মোছাঃ ফাইমুন নেছা। তিনি জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের রণিফৌদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মরহুম মোঃ মফিজ আহমদের সহধর্মিণী। 

তাঁর অসামান্য অবদানে একমাত্র বড় মেয়ে সকিনা আক্তার ৩৬ তম বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডার হয়ে বর্তমানে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুনামগঞ্জ শান্তিগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত আছেন। একাধারে তিনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সাইন্স বিভাগ থেকে কৃতিত্বের সাথে পাশ করে "মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গোল্ড মেডেল" অর্জন করেছেন।

এছাড়া ছোট দুই ছেলের মধ্যে বড় ছেলে মোহাম্মদ মুজাহিদ সিলেট মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি থেকে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে অধ্যয়ন করে বর্তমানে সিলেট আইটি এণ্ড বিলিয়ার্ড জোন এ সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত রয়েছে। ছোট ছেলে মোঃ বায়েজিদ ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি ফার্মাসিস্ট বিভাগ থেকে ডিপ্লোমা শেষ করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মেডিকেল সেন্টারে ফার্মাসিস্ট হিসেবে কর্মরত রয়েছে।

৯ ডিসেম্বর শুক্রবার সিলেট জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে সিলেট মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক শাহানা আক্তারের সভাপতিত্বে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস - ২০২২ উদযাপন উপলক্ষে সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতার হাতে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে নারী ক্যাটাগরিতে জেলার শ্রেষ্ঠ পাঁচ নারী জননীর হাতে সম্মাননা প্রদান করেন সিলেট জেলা প্রশাসক মোঃ মজিবর রহমান। তাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন মোছাঃ ফাইমুন নেছা। 

এবিষয়ে মোছাঃ ফাইমুন নেছা বলেন, বিভিন্ন প্রতিকূলতাকে পাশ কাটিয়ে নারীদের এগিয়ে যেতে হবে। নারীরা সমাজে পড়ে থাকলে সেই সমাজ কখনই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে না। সমাজ ও দেশকে এগিয়ে নিতে হলে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবাইকে এক হয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। জয়িতা পুরস্কার দেওয়ার কারণে সমাজে নারী-পুরুষ সমানভাবে কাজ করার আগ্রহ বাড়বে। পুরস্কার মানুষকে কাজের উৎসাহ যোগায়। আশা করি এই পুরস্কার আমাকে অনুপ্রেরণা যোগাবে।

বহুমাত্রিক.কম

Walton Refrigerator Freezer
Walton Refrigerator Freezer