Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ৭:৪৮ পূর্বাহ্ণ
Globe-Uro

হবিগঞ্জের শিক্ষার্থীদের ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ ‘মানবতার দেয়াল’


২৩ নভেম্বর ২০১৮ শুক্রবার, ০৩:০৫  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


হবিগঞ্জের শিক্ষার্থীদের ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ ‘মানবতার দেয়াল’
ছবি : বহুমাত্রিক.কম

ঢাকা : আনুষ্ঠানিকভাবে শীতবস্ত্র সংগ্রহ এবং বিতরণের দীর্ঘদিনের প্রথা ভেঙ্গে ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ নিয়েছে হবিগঞ্জের একদল শিক্ষার্থী। জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্র জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের পাশে মানবতার দেয়াল নামে একটি সীমানা প্রাচীরকে ব্যবহারের মাধ্যমে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে পৌঁছে দিচ্ছে শীতবস্ত্র।

আবার লোকজন স্বেচ্ছায় এসে এই দেয়ালেই রেখে যান বিভিন্ন ধরনের শীতবস্ত্র। কোনও স্বেচ্ছাসেবক সেখানে দায়িত্ব পালন করেন না।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হবিগঞ্জ শহরের পলিটেনিক্যাল ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী সাদিকুর রহমান সানী, মাধবপুর সৈয়দ সঈদ উদ্দিন মহাবিদ্যালয়ের সুলতান মাহমুদসহ একদল শিক্ষার্থী ওই স্থানে একটি দেয়ালকে রঙ দিয়ে সাজিয়ে তার নামককরণ করেন ‘মানবতার দেয়াল’। দেয়ালে রাখা হয়েছে কাপড় ঝুলিয়ে রাখার ব্যবস্থা। নীচেও পরিস্কার করে কাগজ রাখা হয়েছে কাপড় রাখার জন্য। দেয়ালে লেখা হয়েছে ‘মানবতার জয় হোক’ বিবেকবোধ জাগ্রত হোক’। একদিকে লেখা রয়েছে, ‘আপনার অপ্রয়োজনীয় জিনিস এখানে রেখে যান’। আরেক পাশে লেখা রয়েছে আপনার প্রয়োজনীয় জিনিস এখান থেকে নিয়ে যান।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মানবতার দেয়ালের কাছে গেলে দেখা যায়, অনেকগুলো কাপড় সেখানে ঝুলানো রয়েছে। নিচে রয়েছে আরো অনেক কাপড়-চোপর। এ সময় হবিগঞ্জ শহরের পোদ্দার বাড়ি এলাকা থেকে এনা বেগম নামে এক গৃহবধূ সেখান থেকে তার প্রয়োজনীয় কাপড় সংগ্রহের চেষ্টা করছিলেন। জিজ্ঞেসে করলে এনা বেগম বলেন, তার পরিবারের সদস্যদের জন্য প্রয়োজনীয় শীতের কাপড় তিনি নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন, হঠাৎ এই দেয়ালটি চোখে পড়লে এগিয়ে এসে দেখতে পান, বিনামূল্যে কাপড় নেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। পরিবারে আর্থিক অস্বচ্ছলতা থাকায় এখান থেকে কাপড় নিয়েছেন বলে জানান এনা।

কিছুক্ষণ পরই সেখানে আসেন উদ্যোক্তাদের অন্যতম সুলতান মাহমুদ। তিনি বলেন, তিনদিন পূর্বে তারা দেয়ালটি চালু করেছেন। সেখানে ব্যাপক সাড়া দেখে আনন্দিত সুলতান মাহমুদরা। হবিগঞ্জ শহরের গুরত্বপূর্ণ পয়েন্টে আরো কয়েকটি দেয়াল তৈরি করবেন বলে তারা চিন্তা করছেন। তিনি আরো বলেন, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তবে হবিগঞ্জে তারাই প্রথম এই কাজটি করেছেন।

হবিগঞ্জের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নেজারত ডেপুটি কালেক্টর বেলায়েত হোসেন জানান, এই উদ্যোগটি নিঃসন্দেহে প্রসংশনীয়। এর মাধ্যমে সহজেই শীতের কাপড় গ্রহণ ও বিতরণ হচ্ছে। পাশাপাশি মানুষকে শৃঙ্খলা শিক্ষা দেবে এ উদ্যোগ।

-বাসস

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।