Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ৭:৪১ পূর্বাহ্ণ
Globe-Uro

স্মরণ: সাংবাদিক গড়ার পথিকৃত ছিলেন জহিরুল হক চৌধুরী


২৩ নভেম্বর ২০১৮ শুক্রবার, ০১:০০  এএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


স্মরণ: সাংবাদিক গড়ার পথিকৃত ছিলেন জহিরুল হক চৌধুরী

সিলেটের কিংবদন্তী সম্পাদক মরহুম মোঃ জাহিরুল হক ছিলেন সাংবাদিক গড়ার পথিকৃত। তাঁর স্নেহধন্য হয়ে অনেক সাংবাদিক আজ সিলেট, ঢাকাসহ দেশের বাইরেও দাপটের সাথে সাংবাদিকতাকে নিজের পেশা হিসেবে বেছে নিতে সক্ষম হয়েছেন। সিলেট থেকে প্রকাশিত অধিকাংশ সাপ্তাহিক ও দৈনিক পত্রিকার সম্পাদক, মরহুম জাহিরুল হক চৌধুরীর ছাড়পত্র নিয়ে পত্রিকার প্রকাশক হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন। তাঁর কাছে আমাদের ঋণী থাকতেই হবে।

গতকাল ছিলো দৈনিক সিলেট বাণী সম্পাদকের দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী। এ উপলক্ষে সিলেট প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক স্মরণ সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

জহিরুল হক চৌধুরী স্মারক গ্রন্থ প্রকাশনা কমিটি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বাদ আসর আয়োজিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রকাশনা কমিটির আহ্বায়ক বিশিষ্ট সাংবাদিক-কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী। প্রকাশনা কমিটির সদস্য সচিব মাসিক শাহজালাল’র সম্পাদক রুহুল ফারুকের উপস্থাপনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ, দৈনিক সিলেটের ডাকের বার্তা সম্পাদক সমরেন্দ্র বিশ্বাস সমর, সিলেট প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি এনামুল হক জুবের।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখন, দি ডেইলি ট্রাইবুনালের সিলেট ব্যুরো প্রধান আব্দুর রাজ্জাক, দৈনিত জালালাবাদের বার্তা সম্পাদক আব্দুল কাদের তাফাদার, দৈনিক সিলেটের ডাকের সাব এডিটর আব্দুস সবুর মাখন, দৈনিক সিলেট বাণীর সাবেক বার্তা সম্পাদক চৌধুরী আমীরুল হোসেন, দৈনিক যুগান্তরের লন্ডন প্রতিনিধি গোলাম মোস্তফা ফারুক, দৈনিক সিলেট বাণীর নির্বাহী সম্পাদক এম এ হান্নান, দৈনিক প্রভাত বেলার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আহমদ মারুফ, দৈনিক সিলেট বাণীর সার্কুলেশন ম্যানেজার মোঃ খালেদ মিয়া, প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে আফতাব চৌধুরী বলেন, সেই ১৯৭৬ সালে পরিচয়ের পর থেকে বাণী সম্পাদকের সাথে আমার প্রায় সকল বিষয়ে ঐকমত্য ছিলো। যেকোন ব্যক্তির যে কোনো যৌক্তিক বক্তব্যকে সাদরে গ্রহণ করার মতো উদারতা দেখানোর মতো সৎসাহস ছিলো তাঁর। সিলেট বাণী প্রকাশের মাধ্যমে সিলেটের সাংবাদিকতা প্রসারে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিলো।


প্রধান অতিথি সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির বাণী সম্পাদকের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, তিনি সিলেট বাণী প্রকাশের মাধ্যমে আঞ্চলিক সংবাদপত্রের বিকাশে ও সাংবাদিকদের কর্ম সংস্থানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। তিনি উল্লেখ করেন, আমার বড় ভাই ইকবাল কবির এক সময় দৈনিক সিলেট বাণীর বার্তা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ বলেন, সাপ্তাহিক যুগভেরীর পর দৈনিক সিলেট বাণী ছিলো সিলেটের লেখক-সাংবাদিকদের একমাত্র আড্ডার স্থল। যে আড্ডা থেকে সম্ভাবনাময় অনেক লিখিয়ে-সাংবাদিকের জন্ম হয়েছে।

শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রকাশনা কমিটির সদস্য সচিব মাসিক শাহজালাল’র সম্পাদক রুহুল ফারুক। তিনি তার বক্তৃতায় বলেন, জহিরুল হক চৌধুরী ১৯৮৪ সালে সিলেট বাণী প্রকাশের মাধ্যমে মহান সাংবাদিকতা পেশার বিকাশ, সাংবাদিকদের কর্মসংস্থান, অন্যান্য সংবাদপত্রের প্রকাশনায় প্রেসের চুক্তিপত্রসহ সনদপত্র দিয়ে সহযোগিতা মাইল ফলক হিসেবে থাকবে।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিতি ছিলেন দৈনিক সিলেট বাণীর সাবেক স্টাফ রিপোর্টার সৈয়দ আরিফ আহমদ, বিশিষ্ট ফটো সাংবাদিক আতাউর রহমান আতা, সিলেট প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য মোঃ ফয়ছল আলাম, দৈনিক ভোরের কাগজের ব্যুরো প্রধান ফারুক আহমদ, দৈনিক সিলেটের ডাকের স্টাফ রিপোর্টার নূর আহমদ, রাইজিং টিভির আব্দুল্লাহ আল নোমান,মকবুল আহমদ লাল, সময় টিভির ক্যামেরা পারসন দীগেন সিংহ, দৈনিক সিলেট বাণীর স্টাফ রিপোর্টার মারুফ হাসান, দৈনিক সিলেট বাণীর স্টাফ রিপোর্টার কাওছার আহমদ, বাংলাদেশ পোস্টের রেজাউল হক রেজা, ধল উন্নয়ন সংসদ সিলেটের সহ-সভাপতি সুলতান মাহমুদ, কাজী খাদিজা সিদ্দিকা রুনা, শেখ সেলিম, শিল্পী এম এ কাশেম।

প্রয়াত সম্পাদকের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক। শুরুতেই পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত করেন সাংবাদিক চৌধুরী আমীরুল হোসেন।
এর আগে সকাল ১১ টায় মানিক পীরের টিলায় মরহুমের কবর জিয়ারত করেন জহিরুল হক চৌধুরী স্মারক গ্রন্থ প্রকাশনা কমিটির সদস্যবৃন্দ।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।