Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, রবিবার ২৬ মে ২০১৯, ৯:১১ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

সাংবাদিকতা অধ্যয়নে নারী


০৮ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার, ০৫:২৯  পিএম

রিদওয়ানুল ইসলাম

বহুমাত্রিক.কম


সাংবাদিকতা অধ্যয়নে নারী

বিশ্বজুড়েই সাংবাদিকতা এখন ঝুঁকিপূর্ণ পেশা। এ ঝুঁকির মাত্রা আরও বেড়ে যায় যখন এতে অংশগ্রহণ করে নারী। তবুও এ পেশায় বর্তমানে নারীদের অগ্রযাত্রা কোনো অংশেই পিছিয়ে নেই।দেশের শীর্ষস্থানীয় অনেক গণমাধ্যমেই নারীদের উপস্থিতি এখন লক্ষণীয়।

তবে এখনো নারীদের  এ  পেশায় আসতে, এ বিষয়ে অধ্যয়নে  সমাজ ও পরিবার থেকে আসছে বাঁধা। তবে এর ব্যতিক্রমও রয়েছে আমাদের সমাজে। নারীদের সাংবাদিকতা নিয়ে  অধ্যয়ন ও ক্যারিয়ার গড়ার স্বপ্ন নিয়ে কথা হয় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে।         

নাবিলা সাজেদ এশা

আমাদের চারপাশের জীবন ও জগতে নিত্যকার ঘটনাপ্রবাহে ব্যতিক্রমী যা কিছু ঘটে,যা স্বাভাবিক ধারা থেকে আলাদা বা নতুন তাই সাংবাদিকতার বিষয় হয়ে উঠে। আর মানুষও এসব তথ্য সম্পর্কে জানতে চায়।মানুষকে এসব তথ্য পেতে সহায়তা করা একটি সেবামূলক কাজের মধ্যেই পড়ে।এই সেবামূলক কাজে ব্রত হতেই সাংবাদিকতা পড়তে আসা।

সাংবাদিকতা পেশা আমাদের সমাজে নারীদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বলেই বিবেচিত।পাশাপাশি পারিবারিক বাঁধা তো আছেই।তবে এই এক্ষেত্রে আমার পরিবার আমার অনুপ্রেরণা।কলেজে পড়াকালীন অবস্থায় গোয়েন্দা উপন্যাস পড়তে পড়তে মাথায় অপরাধ বিজ্ঞান নিয়ে পড়ার ঝোঁক চেপে বসে। পরবর্তীকালে অপরাধ বিজ্ঞান নিয়ে পড়তে না পারায় আক্ষেপ হলেও  সাংবাদিকতা পড়তে পেরে তা কিছুটা হলেও ঘুচেছে। আমি এখন ক্রাইম রিপোর্টার হওয়ার সুপ্ত একটি স্বপ্ন আমার মনে গেঁথে রেখেছি। আমার পরিবারও আমার এ স্বপ্ন নিয়ে কোনো বাঁধা দেয়নি।

সর্বোপরি,আমি মনে করিনা সাংবাদিকতা পেশায় ছেলে বা মেয়ে বড় কোনো বিষয়।একজন সাংবাদিকের কাজ ঘটনা নিয়ে,ঘটনার সত্যাসত্য,নিরপেক্ষতা,স্বচ্ছতা নিয়ে। এ জায়গাতেই সাংবাদিকের সমাজের প্রতি থাকে দায়বদ্ধতা।আর এ দায়বদ্ধতার জায়গায় ছেলে বা মেয়ের কোনো ভেদাভেদ থাকতে পারেনা।কেননা এ দায়বদ্ধতা সত্যের প্রতি, পেশার প্রতি,মানুষের প্রতি।

কামরিন সুলতানা

ছোটবেলা থেকেই আমি চঞ্চল ও কৌতুহলী ছিলাম।আমার চারপাশে ঘটে যাওয়াঘটনাগুলো সবসময় আমাকে ভাবাতো।আমার মনে কৌতুহলের জন্ম দিতো।আমার পরিবার আমাকে কখনোই মেয়ে হিসেবে দেখেনি বরং আমার বাবা ছোটবেলা থেকেই আমি চঞ্চল ও কৌতুহলী ছিলাম।আমার চারপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলো সবসময় আমাকে ভাবাতো। আমার মনে কৌতুহলের জন্ম দিতো।আমার পরিবার আমাকে কখনোই মেয়ে হিসেবে দেখেনি বরং আমার বাবা সবসময় আমাকে সহায়তা করেছেন।

স্কাউটিং,গার্লস গাইড,খেলাধুলা, পড়ালেখা সবকিছুতেই পরিবারের সর্বোচ্চ সহযোগিতা পেয়েছি।যেহেতু কৌতুহলী ছিলাম তাই ছোটবেলা থেকেই সাংবাদিকতার প্রতি আলাদা একটা আকর্ষণ কাজ করতো।সাংবাদিকতার পেশা অন্য দশটা গৎবাঁধা পেশার মতো নয়।এখানে কাজের যেমন বিচিত্রতা আছে তেমনি কাজের ক্ষেত্রটা কোনো সময়ের গণ্ডিতে বাঁধা নেই।

দুর্ঘটনা বা দুর্যোগ সেখানে সবার আগে সাংবাদিকরাই ছুটে যায়,ঝুঁকি নেয়।এই ঝুঁকি ও রোমাঞ্চের স্বাদ পেতেই সাংবাদিকতায় পড়তে আসা।যদিও পরিপার্শ্বের অনেকেই মেয়ে হিসেবে আমার এ বিষয়ে পড়ার পক্ষে ছিলেন না। তবুও আমি পড়তে এসেছি শুধু একটি স্বপ্ন নিয়ে-নিজেকে একজন সৎ আদর্শ সাংবাদিক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে।

ফারিহা কাদের ঐশী

স্থান-কাল, ক্ষেত্র, বিষয় ইত্যাদি কে ঘিরে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে তথ্য সংগ্রহ করা এবং সে তথ্য মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়াই সাংবাদিকের কাজ।বর্তমান সময়ে গণমাধ্যমগুলোর সম্প্রসারণ ও বিকাশের ফলে সাংবাদিকতা হয়ে উঠেছে একটি জনপ্রিয় ও আকর্ষণীয় পেশা। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে বিভিন্ন বয়েসের মানুষ সাংবাদিকতাকে পেশা হিসেবে বেছে নিতে চাইলেও পুরুষের তুলনায় নারীর সংখ্যা অনেক কম।

তা সত্ত্বেও তথ্য উদঘাটন এবং পরিবেশন করার জন্য সাংবাদিকতাই যেহেতু  অন্যতম  আদর্শ উপায়,তাই নারী হয়েও সাংবাদিকতাকে আমি আমার পছন্দের বিষয় হিসেবে বেছে নিয়েছি। কিন্তু এ বিষয়ে পড়ার ব্যাপারে আমাকে আমার পরিবার থেকে  কখনোই উৎসাহ প্রদান করা হয়নি।

পরিবারের মতামতের প্রতিকূলেই আমি এই বিষয়ে পড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং ভবিষ্যতে একজন সাংবাদিক হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গড়ার ইচ্ছা পোষণ করি।তবে আমাদের দেশে নারী সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে রয়েছে নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা।এসব প্রতিবন্ধকতার মধ্যে কর্মক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধার অভাব, পছন্দের বিটে কাজ করতে না পারা, পারিবারিক বাঁধা ইত্যাদি অন্যতম।

নারী সাংবাদিকদের জন্য দক্ষতার ব্যবহার ও পরিশ্রম করার পাশাপাশি পারিবারিক ও সামাজিক সমর্থন একান্ত প্রয়োজন।পারিবারিক-সামাজিক সমর্থন পেলে সাংবাদিকতায় নারীরা আরো আগ্রহী হয়ে উঠবে। পাশাপাশি নারীদের জন্য  কর্মক্ষেত্রে নিরাপদ পরিবেশ ও নিশ্চিত করতে হবে।

রিদওয়ানুল ইসলাম: অনার্স ২য় বষ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়     

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Netaji Subhash Chandra Bose
BRTA
Bay Leaf Premium Tea

গণমাধ্যম -এর সর্বশেষ