Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১১ বৈশাখ ১৪২৬, বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ৬:০৪ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

শাহজালাল বিমানবন্দরে হচ্ছে তৃতীয় টার্মিনাল


১০ এপ্রিল ২০১৯ বুধবার, ০৯:৩৫  এএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


শাহজালাল বিমানবন্দরে হচ্ছে তৃতীয় টার্মিনাল

ঢাকা : ক্রমবর্ধমান ফ্লাইটের চাপ সামলাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। দুইটি টার্মিনালের পর এবার তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণের প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। মূল টার্মিনালের দক্ষিণ পাশে সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হবে সুপরিসর ও অত্যাধুনিক সুবিধা সম্বলিত এই টার্মিনাল।

এর মধ্যে প্রকল্প সহায়তা হিসাবে জাপানী সাহায্য সংস্থা জাইকা দিবে ১১ হাজার ২১৪ কোটি টাকা। বাকি অর্থ সংস্থান করবে বাংলাদেশ সরকার। ইতিমধ্যে প্রকল্পের দরপত্র আহ্বান, ভূমি অধিগ্রহণসহ অন্যান্য কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে গতকাল মঙ্গলবার বেসমারিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী ইত্তেফাককে জানান, আগামী সাড়ে তিন বছরের মধ্যে প্রকল্পটি সম্পন্ন হবে। নতুন এই টার্মিনালে ১২টি বোর্ডিং ব্রিজ, এলিভেটেড রোড, মাল্টি লেভেল কার পার্কিং, ২৩টি পার্কিং বে, কার্গো কমপ্লেক্স ও তিনটি ট্যাক্সিওয়ে হবে। এটি দিয়ে প্রতি বছর ১ কোটি ২০ লাখ যাত্রী ওঠা-নামা করতে পারবে।

১৯৮১ সালে তেজগাঁও থেকে কুর্মিটোলায় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর স্থানান্তরিত হয়। তখন থেকে এই টার্মিনাল দিয়ে সকল আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালিত হয়ে আসছে; কিন্তু টার্মিনাল ভবনে কোনো বোর্ডিং ব্রিজ ছিল না। পরে আটটি বোর্ডিং ব্রিজ স্থাপন করা হয়। অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আন্তর্জাতিক দ্বিতীয় টার্মিনালটি নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে এই টার্মিনাল দিয়ে বছরে ৫২ শতাংশ যাত্রী ওঠা-নামা করে।

আর ১৭ শতাংশ যাত্রী ব্যবহার করে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দর। বাকিরা সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর ব্যবহার করে। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বাংলাদেশকে বিশ্বের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোর সঙ্গে সংযুক্ত করেছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এই বিমানবন্দর থেকে ইউরোপ এবং এশিয়ার ১৮টি রুটে চলাচল করছে। এ বিমানবন্দর দিয়ে বার্ষিক প্রায় ৪০ লাখ আন্তর্জাতিক ও ১০ লাখ অভ্যন্তরীণ যাত্রী চলাচল এবং ১ লাখ ৫০ হাজার টন ডাক ও মালামাল পরিবহন হয়।

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।