Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৩ ভাদ্র ১৪২৬, রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯, ১২:৫১ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

শাজাহানপুরের পশুহাটে খাজনার নামে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায়


০৭ আগস্ট ২০১৯ বুধবার, ১১:৩৭  পিএম

আবদুল ওহাব, বগুড়া প্রতিনিধি

বহুমাত্রিক.কম


শাজাহানপুরের পশুহাটে খাজনার নামে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায়

বগুড়া : বগুড়ার শাজাহানপুরের কোরবানীর পশুর হাটওলো এখন দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হয়েছে। এখানে মানা হচ্ছেনা খাজনা বা টোল আদায়ের কোন বিধি বিধান।

ইজারাদাররা প্রতিটি গরু ক্রেতার নিকট থেকে ৫০০ টাকা, বিক্রেতার নিকট থেকে ১০০ টাকা, প্রতিটি ছাগলের ক্রেতার নিকট থেকে ৩০০ টাকা এবং বিক্রেতার নিকট থেকে ৫০ টাকা করে আদায় করছে। এভাাবে তারা শুধু পশু হাট থেকেই প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

আর ক্রেতা সাধারন ও পশু ব্যাবসায়ীদের নাভীশ্বাস উঠলেও বিষয়টি দেখার যেন কেউ নেই। উপজেলার দুবলাগাড়ী, সুলতানগঞ্জ, ডুমুনপুকুর, রানীরহাটগুলো ঘুরে এমন চিত্র দেখাগেছে।

দুবলাগাড়ী হাটে গরু বিক্রেতা হত দরিদ্র কেরামত আলী জানান, তিনি অতি কষ্টে একটি ষাড় গরু লালন-পালন করেছেন। গরুটি বিক্রি করে তিনি কিস্তি পরিশোধ, দেনা পরিশোধ করে ভাঙ্গা ঘড় মেরামত করে ঈদের কেনাকাটা করবেন। তাই টাকার প্রয়োজনে গরুটি মঙ্গলবার দুবলাগাড়ী হাটে এনে ৬০ হাজার টাকা বিক্রি করার সময় মেমো করতে তার নিকট থেকে ১০০ টাকা এবং বিক্রেতা সহিদুলের নিকট থেকে ৫০০ টাকা নিয়েছে। এমনি ভাবে প্রতিটি ক্রেতা-বিক্রেতার নিকট থেকে টাকা আদায় করা হচ্ছে।

এভাবে টাকা আদায়ের কারণ জানতে চাইলে দুবলাগাড়ী হাটের ইজারাদারের লোক সুমন জানান, এতো টাকায় একটা গরু কিনতে পারলে ৫-৬ শত টাকা খাজনা দেয়া তেমন কিছুনা। এটাকা দিতেই হবে।

একই চিত্র দেখা গেছে, বনানী সুলতানগঞ্জের কোরবানীর পশুর হাট, রানীর হাট, ডুমুনপুকুর গরুর হাটগুলোতে। নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে ইচ্ছেমত মনগড়াভাবে তারা খাজনা নাম দিয়ে হাসিল আদায় করছেন।

উপজেলার সকল হাটের ইজারাদার, তাদের এজেন্ট, পশু ব্যাবসায়ী ও ক্রেতা বিক্রেতাদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, প্রতিটি পশুহাট থেকে কমপক্ষে ২০০ থেকে ৩০০ টি গরু ক্রয়-বিক্রয় হয়। আর ছাগল বিক্রি হয় দেড় শতাধিক। সেক্ষেত্রে ১ টি গরুর জন্য ৬০০ টাকা নেয়া হলে ২০০ টি গরুর খাজনা হয় ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। আর প্রতিটি ছাগলের জন্য ৩৫০ টাকা খাজনা নেয়া হলে ১৫০ টি ছাগলের খাজনা হয় ৫২ হাজার টাকারও বেশী। সব মিলিয়ে দেখাযায় প্রতিদিন পশুরহাট থেকে প্রায় ২ লক্ষ টাকা খাজনা নাম দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সীমিত আয়ের এসব পশু ব্যাবসায়ী ও গ্রামের খেটে খাওয়া গরু ক্রেতা বিক্রেতারা জানান, ইজারাদারদের লোকজনের কাছে তারা জিম্মি হয়ে পড়েছেন। আর এমনিভাবে টাকা আদায় করাকে তারা পরোক্ষভাবে চাদাবাজী বলে অভিহিত করেছেন। তারা আরও জানান, অনেক অভিযোগ দেয়ার পরও প্রশাসন থেকে কোন ব্যাবস্থা নেয়া হয়না।

এবিষয়ে জানার জন্য শাজাহানপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট ফোন দিলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তাই জনগনের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবে শাজাহানপুরের হাট-বাজারগুলোতে আইন কতটা মানা হচ্ছে সে বিষয়টি খতিয়ে দেখা একান্ত প্রয়োজন।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

Netaji Subhash Chandra Bose
BRTA
Bay Leaf Premium Tea

অসঙ্গতি প্রতিদিন -এর সর্বশেষ