Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১০ কার্তিক ১৪২৭, রবিবার ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৪:৫০ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

মহামারীর স্থায়ী সমাধানে প্রকৃতির ভারসাম্যেই জোর বিশেষজ্ঞদের


১১ অক্টোবর ২০২০ রবিবার, ১২:০৬  পিএম

বিশেষ প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


মহামারীর স্থায়ী সমাধানে প্রকৃতির ভারসাম্যেই জোর বিশেষজ্ঞদের

ঢাকা: প্রকৃতি ও পরিবেশের ওপর মানুষের যথেচ্ছাচারের কারণেই বিভিন্ন সময়ে মহামারীর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। চলমান বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ এর আগ্রাসনে মানব সভ্যতার যে চরম সংকট উপস্থিত হয়েছে তা প্রকৃতির ওপর ক্রমাগত অত্যচারেরই ফল বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা সতর্ক করে বলেছেন, প্রকৃতির সুবিন্যস্ত ব্যবস্থার ব্যত্যয় ঘটানো যেমন উচিত নয়; তেমনি প্রতিবেশ ব্যবস্থায় মানুষের মতোই প্রাণিদের সুস্থ-স্বাভাবিক বেঁচে থাকাও নিশ্চিত করতে হবে। পরিবেশ বিনষ্ট করে প্রাণিদের বেঁচে থাকার চ্যালেঞ্জে ফেললে প্রকৃতঅর্থে মানবসভ্যতাই হুমকিতে পড়বে।

দেশের অণুজীব বিজ্ঞানীদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন বাংলাদেশ সোসাইটি অফ মাইক্রোবায়েলজিস্ট আয়োজিত এক ওয়েবিনারে এসব মতামত তুলে ধরেন শীর্ষ বিজ্ঞানীরা। চলমান বৈশ্বিক করোনা মহামারী মোকাবেলায় ‘ওয়ান হেলথ কনসেপ্ট’ শিরোনামে এক সমন্বিত প্রচেষ্টাকে সক্রিয় করতে আয়োজন করা হয় এই ওয়েবিনারের। 

শনিবার রাতে অনুষ্ঠিত দীর্ঘ ভার্চুয়াল আলোচনায় দেশের করোনা পরিস্থিতি, বৈশ্বিক প্রেক্ষিত, আগামীর প্রস্তুতিসহ উঠে আসে মহামারী নিয়ে গবেষণা জোরদার করার প্রসঙ্গও। 

‘One health and pandemic: Bangladesh perspective’ শীর্ষক ওয়েবিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম আলমগীর।

তিনি করোনা পরিস্থিতির বর্তমান চিত্র তুলে ধরে বলেন, ‘এই মহামারী যে মহাবিপর্যয় নিয়ে এসেছে তা মোকাবেলায় কেউই প্রস্তুত ছিল না। আমাদের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশ তো নয়ই; বরং উন্নত রাষ্ট্রগুলোও প্রস্তুত ছিল না। চিকিৎসা বিজ্ঞানে অগ্রসর দেশগুলোর স্বাস্থ্য ব্যবস্থাও করোনাকালে ভেঙ্গে পড়েছে।’

-ড. এ এস এম আলমগীর

মহামারী নিয়ে গবেষণা জরুরি হলেও দেশের এ সংক্রান্ত তহবিল সংকটের কথা তুলে ধরে ড. আলমগীর বলেন, ‘বর্তমানে মহামারী মোকেলায় চিকিৎসা ব্যবস্থা, অবকাঠামো ও অন্যান্য সুবিধা বৃদ্ধি করতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে। এমন বাস্তবতায় আমরা মহামারী নিয়ে গবেষণায় ব্যাপকভাবে আত্মনিয়োগ করতে পারছি না।’

আইইডিসিআর এর উপদেষ্টা ড. মুশতাক হোসেন ‘ওয়ান হেলথ কনসেপ্ট’ এর ওপর জোর দিয়ে বলেন, ‘আমাদের মনে রাখতে হবে-পৃথিবী কেবল মানুষের জন্যই সৃষ্টি হয়নি। এখানে উদ্ভিদ ও প্রাণিজগতেরও সুস্থ-স্বাভাবিক ভাবে তাদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার সমান অধিকার রয়েছে। এর ব্যত্যয় বেশি মাত্রায় ঘটছে বলেই বিভিন্ন মহামারী সাম্প্রতিক বছরগুলো প্রবল হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান বাস্তবতায় প্রকৃতির আদি ও অকৃত্রিম প্রতিবেশ ব্যবস্থাকে ফিরিয়ে আনতে হবে, যদি মানব সভ্যতাকে টিকিয়ে রাখতে হয়। সেজন্যই আমাদের ‘ওয়ান হেলথ কনসেপ্ট’ এর দিকে জোর দিতে হবে। সংশ্লিষ্ট অংশীদারদের মাঝে আরও সুসমন্বয় ঘটিয়ে টেকসই উদ্যোগ নিতে হবে।’

আলোচনায় অংশ নিয়ে দেশের বিশিষ্ট অণুজীব বিজ্ঞানীরা উল্লেখ করেন, সাম্প্রতিক বেশ কিছু মহামারী, যেমন বার্ড ফ্লু, সোয়াইন ফ্লু এবং বর্তমানের কোভিড-১৯ মহামারীর সঙ্গে হাঁস, মুরগী, বাদুড়, প্যাঙ্গোলিন প্রভৃতি বন্য ও গৃহপালিত প্রাণীর সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, বৈশ্বিক উষ্ণতা, পরিবেশ বিপর্যয়, ব্যাপক হারে বন উজাড় ইত্যাদি কারণে বন্যপ্রাণিদের বাসস্থনের অভাব তাদেরকে মানুষের সংস্পর্শে নিয়ে আসছে। এসবের ফলশ্রুতিতে উপর্যুপরি সাম্প্রতিক সব মহামারী। কাজেই, মানুষের স্বাস্থ্য প্রাণীর স্বাস্থ্যের সাথে এবং পরিবেশের সাথে সংযুক্ত। আর তাই, কোভিড-১৯ সহ অন্যান্য মহামারী মোকাবেলা এবং ভবিষ্যত প্রতিরোধের জন্য মানুষ, প্রাণী এবং পরিবেশ- এই তিনটি বিষয় কেই সমান গুরুত্বর সাথে চিহ্নিত করতে হবে। ‘One health concept’ এমনই একটি পন্থা যেখানে একাধিক শৃঙ্খলার বিশেষজ্ঞগণ সমন্বিত ভাবে মানব, প্রাণী এবং পরিবেশগত স্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য কাজ করে।

বাংলাদেশ সোসাইটি অফ মাইক্রোবায়েলজিস্ট (বিএসএম) এর প্রেসিডেন্ট এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এ আর এম সোলায়মান ওয়েবিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

ওয়েবিনারে অংশ নেওয়া বিশিষ্ট গবেষকগণ

এতে আলোচনায় অংশ নেন- আইইউবিএটি’র ডিস্টিংগুয়িস্ট অধ্যাপক ড. কে এম এস আজিজ, আর্মড ফোর্সেস ইনস্টিটিউট অব প্যাথলজি’র প্রাক্তন কমান্ডড্যান্ট মেজর জেনারেল (অব:) অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান, বিএসএম’র সম্পাদক অধ্যাপক ড. আনোয়ারা বেগম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের অনারারি আধ্যাপক ড. মোজাম্মেল হক, অধ্যাপক ড. এম মঞ্জুরুল করিম, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ড. মোঃ সালেকুল ইসলাম ও বহুমাত্রিক.কম এর প্রধান সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও বিএসএম’র যুগ্ম সম্পাদক ড. সঙ্গীতা আহামেদ এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক যুথি বিশ্বাসের সঞ্চালনায় ওয়েবিনারে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের শতাধিক গবেষক-শিক্ষার্থী ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে যুক্ত ছিলেন। আয়োজনের গণমাধ্যম সহযোগি বিশেষায়িত নিউজপোর্টাল বহুমাত্রিক.কম।

মহামারী রুখতে ‘ওয়ান হেলথ কনসেপ্ট’ নিয়ে লড়বেন অণুজীব বিজ্ঞানীরা

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea

বিজ্ঞান -এর সর্বশেষ