Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৩ ফাল্গুন ১৪২৫, শনিবার ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৫:৪১ পূর্বাহ্ণ
Globe-Uro

ব্যর্থরা সরলে ঘুরে দাঁড়াবে বিএনপি, আলোচনায় জ্যেষ্ঠ নেতারা


১৮ জানুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার, ১১:০৭  পিএম

বিশেষ প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


ব্যর্থরা সরলে ঘুরে দাঁড়াবে বিএনপি, আলোচনায় জ্যেষ্ঠ নেতারা

ঢাকা: দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকীর আলোচনায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতারা নিজেরা সরে গিয়ে নতুন ও ত্যাগীদের জায়গা করে দিতে দলটির পুনর্গঠনের দাবি তুলেছেন। শুক্রবার বিকালে সুপ্রিমকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত এ আলোচনা সভায় এই দাবি তুলেন জ্যেষ্ঠ নেতারা।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের নেতৃত্বে আনতে হবে। আমরা যারা ব্যর্থ বলে পরিচিত হয়েছি আমাদের পদ ছেড়ে দিতে হবে তরুণদের জন্য। তাহলেই বিএনপি ঘুরে দাঁড়াবে। 

খন্দকার মোশাররফ বলেন, যারা প্রার্থী ছিলেন তাদের নিজ নিজ এলাকার নেতাকর্মীদের মামলা থেকে পরিত্রাণ করা ও জেল থেকে মুক্ত করাতে হবে। যেসব এলাকায় আমাদের প্রার্থী ছিল না সেখানে দলের মাধ্যমে নেতাকর্মীদের পুনর্বাসন করতে হবে। কাউন্সিলের মাধ্যমে দলকে পুনর্গঠন করতে হবে। নির্বাচনে পরীক্ষিততদের সামনে আনতে হবে।

একই অবস্থান জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, দরকার হলে আমাদের যাদের বয়স হয়ে গেছে আমরা সরে যাব। তারপরেও এই দলটাকে তো রাখতে হবে। বিএনপিকে বাঁচানোর একমাত্র উপায় হলো নতুন করে পুনর্গঠন করা। এই কাজ আমাদের কয়েক মাসের মধ্যেই করতে হবে। তাহলেই আমরা আবার মোড় ঘুরে দাঁড়াতে পারব।

মওদুদ বলেন, মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের এলাকাছাড়া করে দিয়েছে। কীভাবে নির্বাচন করব। এখন আমাদের দুটি কাজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একটি হলো- পুনর্বাসন আর অপরটি পুনর্গঠন। এখন ক্ষতিগ্রস্ত লাখ লাখ নেতাকর্মীকে পুনর্বাসন করতে হবে। আর দলের ত্যাগীদের সামনে এনে দলকে পুনর্গঠন করতে হবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আজকে আমাদের গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। অন্ধকারের মধ্যে দিয়ে আলোতে উঠে আসতে হবে। এ জন্য যুবকদের এগিয়ে আসতে হবে। এই দেশটা আপনাদের, আপনাদেরই রক্ষা করতে হব। জিয়াউর রহমান আমাদের শিখিয়েছেন সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। পরাজিত হওয়া যাবে না। পরাজিতবোধ করলেই পরাজিত।

তিনি বলেন, আমাদের যেসব ভাইয়েরা পঙ্গু, ক্ষতিগ্রস্ত, কারারুদ্ধ তাদের পাশে আমাদের দাঁড়াতে হবে। যেসব ভাইয়েরা নির্যাতিত হয়েছেন তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। আজকে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন, আমাদের নেত্রী, গণতন্ত্রের মাতাকে কারাগার থেকে বের করে আনতে হবে। সে জন্য আমাদের এখন ঐক্যবদ্ধ হয়ে সমগ্র দেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে দুর্বার আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে দেশনেত্রীকে মুক্ত করে আনতে হবে। আমাদের ভাইদের মুক্ত করতে হবে। আমাদের গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবে। এই শপথ নিয়ে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যাব।

 

সভায় আরও বক্তব্য দেন- দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.আব্দুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, আব্দুল মান্নান, ব্যারিস্টার শাজাহান ওমর, ডা.এ জেড এম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আযম খান প্রমুখ।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।