Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১ কার্তিক ১৪২৫, মঙ্গলবার ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ৮:২৫ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

নওগাঁয় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে ৯২ হাজার পরিবার স্বাবলম্বী


১০ অক্টোবর ২০১৮ বুধবার, ০১:২৬  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


নওগাঁয় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পে ৯২ হাজার পরিবার স্বাবলম্বী

ঢাকা : একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের আওতায় নওগাঁ জেলার ১১টি উপজেলায় মোট ৯২ হাজার ৪টি পরিবার অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছে। এসব পরিবারে অভাব দূর হয়ে স্বচ্ছলতার আলো জ্বলেছে। সন্তানদের লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষের মত মানুষ করার স্বপ্ন দেখছেন এসব পরিবার।

বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রত্যক্ষ তত্বাবধানে পরিচালিত এ প্রকল্পের আওতায় এসব পরিবার এখন নিজেরা সঞ্চয় করছেন। সেই সঞ্চয়ের পাশাপাশি সরকারী বরাদ্দ যোগ হয়ে তাঁদের সঞ্চয়ের পরিমান বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেখান থেকে ঋণ গ্রহণ করে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের প্রত্যক্ষ সহায়তায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন। তাঁরা গরু, ছাগল, হাঁস মুরগী ও ভেড়া প্রতিপালন, শাকসব্জি চাষ, ছোট ছোট ব্যবসা, ক্ষুদ্র কুটির শিল্প গড়ে তোলার মাধ্যমে এসব পরিবার অর্থনৈতিকভাবে স্বনির্ভর হচ্ছে।

বিআরডিবি’র উপ-পিরচালক মিজানুর রহমান জানিয়েছেন বর্তমানে এ জেলায় মোট ১ হাজার ৭শ ৫৭টি সমিতি গঠনের মাধ্যমে সদস্যভুক্তি হয়েছে ৯২ হাজার ৪টি পরিবার। তাঁদের মোট পুঁজি গঠিত হয়েছে ১২৮ কোটি ১৯ লাখ ৮ হাজার টাকা। সদস্যদের মধ্যে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ১৬৬ কোটি ৭৬ লাখ ২৩ হাজার টাকা। এ তথ্য ২০১৮ সালের।
সুত্র জানায় ২০১৪ সালে এ প্রকল্পের আওতায় সমিতির সংখ্যা ছিল ৮শ ৯১টি। সদস্য পরিবারের সংখ্যা ছিল ৫০ হাজার ৮শ ৩৮টি। পুঁজি গঠনের পরিমান ছিল ২৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা। ঋণ বিতরণ করা হয়েছিল ১২৭ কোটি ১৩ লাখ টাকা।

এ কর্মসূচীর আওতায় কুটির শিল্প গড়ে তুলে বিভিন্ন প্রকার ব্যাগ তৈরি করে স্বচ্ছলতা অর্জন করেছেন নওগাঁ সদর উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের মোছাঃ মনোয়ারা বেগম। তিনি জানান আগে তাদের সংসারে অভাব ছিল। ঠিকমত খাওয়াপড়া জুটতনা। ছেলেমেয়েদের স্কুলে পাঠানো সম্ভব ছিলনা। বর্তমানে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের মাধ্যমে সঞ্চয় গড়ে তুলেছি। একদিকে আমার পুঁজি গড়ে উঠেছে সেই শক্তি আর অন্যদিকে আমি ব্যাগ তৈরি ও বিক্রি করে সংসারে স্বচ্ছলতা এনেছি। এখন মনোয়ারা’রা ভালো আছেন।

সদর উপজেলার হাঁসাইগাড়ি ইউনিয়নের ভুতুলিয়া গ্রামের কাজলরেখা। তিনি এ প্রকল্পের একজন সদস্য। তিনি সমিতির সদস্যভুক্তি হয়ে সঞ্চয় করেছেন। আবার এখান থেকে ঋণ গ্রহণ করে গাভী পালন শুরু করেন। বর্তমানে তিনি একজন স্বাবলম্বী। সংসারে সুখ ন্বাচ্ছন্দ এসেছে।

বিআরডিবি’র উপ-পরিচালখ মোঃ মিজানুর রহমান বলেছেন একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি দুরদর্শী চিন্তা চেতন্রা ফসল। এ প্রকপ্লের মাধ্যমে গ্রামের অতি দরিদ্র পরিবাগুলেঅ অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছেন, দারিদ্রতা হ্রাস পাচ্ছে। দেশ টেকসই উন্নয়নের দিকে ধাবিত হচ্ছে। সঠিকভাবে এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে দেশ থেকে দারিদ্রতা চিরদিনের জন্য নির্মুল হবে।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।