Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৪ মাঘ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, ৫:১৪ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

খুলনা বিভাগে পাঁচ জয়িতাকে সম্মাননা


১৫ জুলাই ২০১৮ রবিবার, ০৬:৪৮  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


খুলনা বিভাগে পাঁচ জয়িতাকে সম্মাননা
ছবি : বহুমাত্রিক.কম

খুলনা : বিভাগীয় পর্যায়ে নির্বাচিত পাঁচ শ্রেষ্ঠ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা রোববার দুপুরে খুলনা অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া।

‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় খুলনা বিভাগীয় প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক দপ্তর যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

প্রধান অতিথি বিভাগীয় কমিশনার বলেন, নারীদের আরও উন্নয়নে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে আসতে হবে। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারী, তাদের উন্নয়ন ব্যতীত দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। নারীকে সম্মান করলে সমাজে কোন অসংঙ্গতি থাকবে না। বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ণের ক্ষেত্রে অনেক এগিয়েছে। তিনি বলেন, সকল দপ্তরে নারীদের নিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে সমাজ পরিবর্তন ও দেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে নারীর অবদান অনস্বীকার্য। ১৮ বছরের নিচে কোন মেয়েকে বিবাহ না দেওয়ার জন্য তিনি অভিভাববদের প্রতি আহবান জানান।

অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) নিশ্চিন্ত কুমার পোদ্দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ইসরাত জাহান এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ খুলনা মহানগর ইউনিটের কমান্ডার অধ্যাপক মোঃ আলমগীর কবির। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সুন্দরবন একাডেমির নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক আনোয়ারুল কাদির এবং শ্রেষ্ঠ জয়িতা ছাকেরা বানু। স্বাগত জানান খুলনা জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নার্গিস ফাতেমা জামিন।

খুলনা বিভাগের ২০১৭-১৮ সালে বিভাগীয় পর্যায়ে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত হলেন অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী ক্যাটাগরীতে তানজিমা জেসমিন, সাতক্ষীরা; শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারীতে শায়লা ইয়াসমিন, যশোর; সফল জননী নারী ক্যাটাগরীতে মোছাঃ রাহেলা খাতুন, কুষ্টিয়া; নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন যে নারী মোছাঃ জাহিদা খাতুন, যশোর এবং সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখেছেন যে নারী ছাকেরা বানু, খুলনা।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।

খুলনা বিভাগের ১০ জেলার প্রায় ৫০জন জয়িতা অংশগ্রহণ করেন। জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ ২০১৩ সাল থেকে এ কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।