Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৬ আশ্বিন ১৪২৬, শনিবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩:০৬ অপরাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

কুং-লুং অতঃপর


২৪ জুন ২০১৯ সোমবার, ০৯:১১  পিএম

রাহুল রাজ

বহুমাত্রিক.কম


কুং-লুং অতঃপর

এক

টবের পাতা বাহার গাছের তুলনামূলক অন্ধকার একটি পাতায় কুং এক মনে বসে আছে। দিনের বেশিরভাগ সময় তার কেটেছে উদাসীন ভাবে। অন্য কোন কাজে তার মন বসছে না। নর্দমার পাশের ড্রেনে আজ একটা পার্টি ছিল। সেখানে আশেপাশের অনেক জ্ঞানী গুণী মশা-মশীর আসার কথা। কিন্তু এই পার্টিতেও তার যেতে মন চাইছে না। প্রতিমুহূর্তেই কুং এর চোখের সামনে শুধু একটি মুখ ভেসে উঠছে। তার চঞ্চল ভাবে একে-বেকে উড়ার দৃশ্য তার মনকে আরো উতলা করে তুলছে। দিন কয়েক আগে বড় রাস্তার পাশের নির্মাণাধীন বিল্ডিং এর জলের চৌবাচ্চার দেওয়ালে কুং সেই ললনা মশীকে দেখেছে।

তার এই বয়সে অনেক মশীই তার আশেপাশে এসেছে সঙ্গ পেতে চেয়েছে কিন্তু কখনই কুং তাতে কোন আকর্ষণ অনুভব করেনি। যেচে অনেক মশীয় তাকে প্রেম প্রস্তাব দিয়েছে কিন্তু কুং এর মন তাতে এক বিন্দু সায় দেয় নি। নাম না জানা, পরিচয়হিন এক মশী, এক মুহূর্তের জন্য তার চোখে দেখা দিয়েই তার সাজানো জীবনটাকে এলোমেলো করে দিল। এখন কুং এর ঘুম নাই, গাছের পাতার রসও তার এখন আর ভাল লাগছে না। ফুলের পরাগ খেতেও সে ওড়ে না।

অন্য কোন সঙ্গও তার মনকে নাড়া দিতে পারছে না। তার শুধু মন চাইছে সেই চৌবাচ্চার কাছে যেতে। যদি সেখানে সে আবার সেই রমণী মশীকে দেখতে পায়। সে তার অন্য সখী মশীদের সাথে চঞ্চল ভাবে কখনও চৌবাচ্চার বন্ধ পানির উপর গিয়ে বসছিল, আবার কখনও নীচের ড্রেনের স্যাঁতসেঁতে দেওয়ালে বসে দুই পাখায় নিজের হুল পরিষ্কার করছিল। কুং যে দূর থেকে এক দৃষ্টিতে তার সব কর্মকান্ড দেখছিল তা সেই রমণী মশী কিছুতেই বুঝতে পারেনি। কুং চোখ বন্ধ করলেই তার কানে ভেসে আসছে সেই মশীর পাখা নাড়াবার মধুর শব্দ।

এদিনও গাছের পাতার আড়ালে বসে কুং এক মনে সেই মশীর কল্পনা করছিল। হঠাৎ অন্য মশা-মশীদের চিৎকার আর শোরগোলে তার মধুর কল্পনা ভেঙে যায়। কুং বুঝতে পারছে না দিনের এই বেলায় অন্য মশারা দিকবেদিক ছুটোছুটি করছে কেন? পাতার আড়াল থেকে সে মুখ বের করে বিষয়টি বুঝার চেষ্টা করল। ঝং নামে তার এক বন্ধু উড়তে উড়তে তাকে জানাল, পাশের বনে ও ড্রেনের ধারে মানুষ বিষাক্ত ধোঁয়া নিক্ষেপ করছে। ঐ সব এলাকার মশাদের বেশ ক্ষতি হয়েছে। ধোয়া থেকে বাঁচতেই তারা এই দিকে আসছে।

কুং আত্মকেন্দ্রিক ভাবে আবার নিজেকে পাতার আড়ালে লুকতে যাচ্ছিল ঠিক তখনই তার চোখ পড়ল একটু দূরের একটি মশীর উপর। যে চোখ সে খুঁজছে, যে পাখার শব্দ তাকে পাগল করে দিয়েছে, সেই মশীই অত্যান্ত কষ্টে উড়তে উড়তে এই দিকে আসছে। কুং লক্ষ্য করল তার পাখা টলছে। ধোয়াতে সেই মশীর দম আটকে যাচ্ছে। যাদের সাথে সে উড়ছিল সে তাদের হারিয়েছে। কুং দেখল তার পাখার ঝাপটানি প্রায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সে শূন্য থেকে নীচের ড্রেনের জলের স্রোতে পড়ে যাচ্ছে।

কুং আর নিজেকে স্থির রাখতে পারল না। নিজের সর্বস্ব জোর দিয়ে উড়ে সেই মশীর হাত ধরে ফেলল। মশীটি চোখ বন্ধ করার আগে শুধু দেখল, অন্য এক পুরুষ মশা, পরম যত্নে তাকে জড়িয়ে ধরেছে। মশীটি কানে ভেসে এলো কুং এর ডানা ঝাপটানির শব্দ। (চলবে)

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।