Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৫ মাঘ ১৪২৫, শুক্রবার ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ২:৩৯ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

আলোচনায় তারা ১১ জন


০৬ জানুয়ারি ২০১৯ রবিবার, ১১:৩৬  পিএম

শেখ হেদায়েতুল্লাহ, নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


আলোচনায় তারা ১১ জন
ছবি : বহুমাত্রিক.কম

খুলনা: একাদশ সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় লাভ করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরাও শপথ নিয়েছেন। আগামীকাল সোমবার নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নেবে। এবার আলোচনায় উঠে আসছে সংসদে সংরক্ষিত আসনে কারা হচ্ছেন নারী সংসদ সদস্য?

সংরক্ষিত ৫০টি নারী আসনের মধ্যে খুলনা ও বাগেরহাট দুই জেলা মিলে আসন নম্বর হচ্ছে ১১। এই আসনে প্রবীণদের পাশাপাশি নবীন নেতাদের নাম আলোচনা হচ্ছে বেশ জোরেশোরেই। সংশ্লিষ্টদের সাথে আলাপকালে বর্তমান সংসদসদস্যসহ কমপক্ষে ১১ নারী নিয়ে আলোচনা চলছে বেশ জোরেশোরেই।

জানা গেছে, জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত ৫০টি আসনের বিপরীতে প্রত্যেক জেলার একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাশী। একাধিক নারী নেত্রী সংরক্ষিত নারী আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী। জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসন -১১ ( খুলনা- বাগেরহাট) অন্তত চার নারী নেত্রী সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী।

তারা হলেন, বর্তমান সংসদ সদস্য চিতলমারী উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান কালিদাশ বড়ালের স্ত্রী হ্যাপী বড়াল, সাবেক সংসদ সদস্য নূর আফরোজ আলী, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনেতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমানের স্ত্রী রওশান আরা ইভা, আওয়ামী লীগ খুলনা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজানের বোন অ্যাডভোকেট সুলতানা রহমান শিল্পী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আফরোজা জেসমিন বিথী, আফসানা হাসান ডেইজী, আফসানা ফেরদৌস কেকা, শামীম আরা বাদল, অধ্যাপিকা হোসনেয়ারা রুনু, অলোকা নন্দা দাশ, চৈতালী হালদার চৈতী ।

আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী ও অঙ্গসংগঠণের নেতাদের পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন ধরে রাজপথের পরীক্ষিত নেত্রীদের মধ্যে থেকে নারী সংসদ সদস্য করার দাবি জানানো হয়েছে। মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও বলছেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজপথের রাজনীতিতে আছেন। পরীক্ষিত নেত্রীদের দল মূল্যায়ন করলে তারা মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে আশাবাদী।

বাংলাদেশ ছাত্র লীগের সদস্য সাবেক সহ- সভাপতি চৈতালী হালদার চৈতী‘ বলেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে নিজের জীবনকে পরিচালিত করে আসছি। দলের প্রধান শেখ হাসিনার দেশ গড়ার কাজে নিজেকে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছি। মা শোভা রানী হালদার আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত। তিনি ডুমুরিয়া উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন বর্তমানে জেলা পরিষদের সদস্য। তিনি বলেন, দলের কাছে মনোনয়ন চাইব।

এ বিষয়ে খুলনা -২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজানের বোন অ্যাডভোকেট সুলতানা রহমান শিল্পী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। রাজপথের আন্দোলন-সংগ্রামে সামনে থেকেছি। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভাই সংসদ সদস্য ছিলেন তাই দলের কাছে সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন চাইনি। এবার সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন চাইব। আশা করি, দল মূল্যায়ন করবে।’

বর্তমান সংসদ সদস্য হ্যাপী বড়াল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে নিবিড়ভাবে জড়িত। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে দল আমাকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করে। এবারও সংরক্ষিত নারী সংসদ পদে আমি মনোনয়ন প্রত্যাশী। মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আমি আশবাদী।’

তবে বর্তমানে ১১ জনের নাম শোনা গেলেও তফশিল ঘোষণার পর প্রার্থীর সংখ্যা বাড়বে বলে আভাস পাওয়া গেছে। আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী কিংবা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত শীর্ষ নেতাদের পরিবারের সদস্যদের নারী প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রসঙ্গত: ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ গঠিত হওযার পর ১৯ মার্চ সংসদ সদস্যদের ভোটে ১৯ মার্চ ৫০ জন সদস্য নির্বাচিত হন। তারা ২২ মার্চ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন। ২০১৭ সালের ৮ জুলাই জাতীয় সংসদ অধিবেশনে সংরক্ষিত এই ৫০টি পদ আরও ৫০ বছর বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।