Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১২ বৈশাখ ১৪২৬, শুক্রবার ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ৫:৫৭ পূর্বাহ্ণ
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

আজাদ হিন্দ ফৌজের সেনারা থাকবেন প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে


২৬ জানুয়ারি ২০১৯ শনিবার, ১১:১৭  এএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


আজাদ হিন্দ ফৌজের সেনারা থাকবেন প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে

ঢাকা: এবছর ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে অনেক কিছুই হবে প্রথমবার। এবারেই প্রথম প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে যোগ দেবে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল আর্মি’র (আইএনএ) সদস্যরা। সম্প্রতি এই প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

নেতাজির তৈরি ওই বাহিনীতে ছিলেন, এমন কয়েকজন এদিন থাকবেন রাজপথে। পরমানন্দ, ললিত রাম, হীরা সিং, ভাগমল- প্রত্যেকেরই বয়স ৯৫-এর উপর। এই প্রথমবার তাঁদের প্রজাতন্ত্র দিবসে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এরা প্রত্যেকেই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। ২৬ জানুয়ারি প্যারেডের সময় জিপে বসে থাকবেন এঁরা চারজন। সুভাষ চন্দ্র বসুকে বিশেষ সম্মান জানাতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই নেতাজি সুভাষচন্দ্রের নামে আন্দামানের দ্বীপের নামকরণ করেছেন মোদী। রস আইল্যান্ডের নামকরণ করা হয়েছে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু দ্বীপ। অন্যদিকে নিল ও হ্যাভলক আইল্যান্ডের নাম বদলে করা হয়েছে শহিদ ও স্বরাজ।

১৯৪২ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় তৈরি হয় ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল আর্মি’ বা আজাদ হিন্দ ফৌজ। এই সেনাবাহিনীর লক্ষ্য ছিল জাপানের সাহায্যে ভারত থেকে ব্রিটিশ রাজের উচ্ছেদ করে দেশকে মুক্ত করা। এরপর ১৯৪৩ সালে সুভাষচন্দ্র বসুর নেতৃত্বে পুনর্গঠিত হয়ে এই বাহিনী সুভাষচন্দ্রের আর্জি হুকুমত-এ-আজাদ হিন্দ (স্বাধীন ভারতের অস্থায়ী সরকার)-এর সেনাবাহিনী ঘোষিত হয়। সূত্র: কলকাতা২৪

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।