Bahumatrik Logo
২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩, বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ৪:৩৪ অপরাহ্ণ

মুজিবনগরে পিতলের তৈরি ভাস্কার্য নির্মাণের পরিকল্পনা


১৬ এপ্রিল ২০১৬ শনিবার, ০৬:৫৭  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


মুজিবনগরে পিতলের তৈরি ভাস্কার্য নির্মাণের পরিকল্পনা

ঢাকা: ঐতিহাসিক মুজিবনগরের গুরুত্ব দেশে-বিদেশের মানুষের মাঝে তুলে ধরার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ব্যাপক উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। পাথরের পরিবর্তে পিতলের তৈরি বিভিন্ন ভাস্কার্য নির্মাণ করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

মহান স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিগাঁথায় উজ্জ্বল এ স্থানটি দেশ-বিদেশের পর্যটকদের ব্যাপকভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়ার লক্ষ্যে ঐতিহাসিক মুজিবনগরে স্থলবন্দর চালু করার এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসন বিষয়টি সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালকে অবহিত করেছে ।

মেহেরপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আহসান উল্লাহ জানান, মুজিবনগরে মুক্তিযুদ্ধের সবচেয়ে বড় মানচিত্র প্রকল্পের কাজ ২০১১ সালে সম্পন্ন হয়। ভাস্কার্য মুজিবনগর চালুকরণ প্রকল্পের নির্মাণের কাজ ২০১৫ সালের মধ্যে সম্পন্ন হওয়ার কথা থাকলেও প্রকল্পের কিছু সংশোধন হওয়ায় তা সম্পন্ন করা যায়নি।

পাথরের ভাস্কার্য নষ্ট হয়ে যায় বলে এই প্রকল্পে পাথরের পরিবর্তে পিতলের তৈরি বিভিন্ন ভাস্কার্য নির্মাণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। ২০১৫ সালে মুজিবনগর স্মৃতি কেন্দ্র চালু করণ প্রকল্প সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে সরকার ৬ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি কাজ করছে বলে তিনি জানান। কমিটি এই প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো এবং নির্মাণশৈলীসহ বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করে রিপোর্ট দেয়ার পর প্রকল্পের মেয়াদকাল চূড়ান্ত হবে বলে নির্বাহী প্রকৌশলী জানিয়েছেন।

এর আগে ইতিমধ্যে শত কোটি টাকা ব্যয়ে এখানে নানা অবকাঠামো উন্নয়নসহ মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক স্মৃতি মানচিত্র ও জাদুঘর নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়াও এখানে সরকারীভাবে বেশসংখ্যক বহুতল আধুনিক ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে পর্যটন মোটেল ও শপিং মল, সমাজসেবা মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে শিশু পল্লী, ধর্ম মন্ত্রাণালয়ের অর্থায়নে মসজিদ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে পোস্ট অফিস ও টেলিফোন অফিস, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে আভ্যন্তরীণ রাস্তা ও হেলিপ্যাড এবং বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ৬ দফা ভিত্তিক গোলাপ বাগান নির্মাণ করা হয়েছে।

মুজিবনগরবাসীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে সরকার ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল নির্মাণ করেছে। যানমালের নিরাপত্তার জন্য ১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে একটি মডেল থানা ও একটি পুলিশ ক্যাম্প করা হয়েছে।

মুজিবনগর উপজেলার শিক্ষার হার বৃদ্ধিতে মুজিবনগর ডিগ্রি কলেজকে ২০১১ সালে সরকারীকরণ করা হয়েছে।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।