Bahumatrik Multidimensional news service in Bangla & English
 
৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৭, ৭:৫২ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

সেফটি নেট ছাড়াই স্কুলের ভবন নির্মাণ : রক্ষা পেলেন তিন অভিভাবক


১২ জুলাই ২০১৭ বুধবার, ০২:৫৩  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


সেফটি নেট ছাড়াই স্কুলের ভবন নির্মাণ : রক্ষা পেলেন তিন অভিভাবক
ছবি: বহুমাত্রিক.কম

সাভার : বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর অভ্যন্তরে বিকেএসপি পাবলিক স্কুলের তিনতলা নতুন ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে সেফটি নেট ছাড়াই।

সেফটি নেট না থাকায় তিনতলা ভবন থেকে রড পরে অল্পের জন্য রক্ষা পেল স্কুলের সামনে দাড়িয়ে থাকা তিন অভিভাবক। দ্রুত সেফটি নেট না লাগিয়ে কাজ করলে যেকোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে বিকেএসপি পাবলিক স্কলের গেটের সামনে দাড়িয়ে কথা বলছিল শিক্ষার্থীদের নিতে আসা তিনজন অভিভাবক। আশপাশে আরো কয়েকজন অভিভাবক স্কুল গেটের পাশে দাড়িয়ে কথা বলছিল। এসময় তিন তলার উপরে কাজ করতে থাকা শ্রমিকদের হাত থেকে অসাবধানতাবশত কয়েকটি রড নিচে পড়ে যায়। এতে অল্পের জন্য রক্ষা পান বিকেএসপি পাবলিক স্কুলের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া তাওসিফ এর বাবা এবং একই শ্রেণীতে পড়ুয়া ওর্মিার মাসহ আরো তিনজন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন অভিবাবক ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, বিকেএসপি পাবলিক স্কুল একটি নাম করা প্রতিষ্ঠান হলেও এস্কুলের প্রধান শিক্ষক সহ প্রশাসনিক কর্মকর্তারা উদাসিন। স্কুলে আসা শিক্ষার্থীদের অভিবাবকগণ বাহিরে দাড়িয়ে থাকে। আবার কেউ কেউ উভার ব্রীজের সিড়ি, রাস্তার পাশে, স্কুলের গেটের সামনে সহ বিভিন্ন স্থানে দাড়িয়ে থাকে। এমনকি রোধ-বৃষ্টির মধ্যেও তারা বাহিরে দাড়িয়ে থাকেন। বিষয়টি বার বার স্কুল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানোর পরেও অভিবাবকদের সময় কাটানোর জন্য কিংবা বসার কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। তবে স্কুলের পাশে ছোট একটি ছাপড়া করে দিলেও সেখানে ১০জনের বেশী অভিবাবক বসতে পারেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিকেএসপি পাবলিক স্কুলের এক নিরাপত্তাকর্মী জানান, তিন তলা ভবনের এ কাজ করার পর থেকে এ ভবনের কাজের দায়িত্বে থাকা ম্যানেজারকে বার বার বলা হয়েছে নেট লাগানোর জন্য। কিন্তু বার বার বলা সত্বেও তারা সেটি করেনি। যার ফলে আজ (বুধবার) অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন কয়েকজন অভিবাবক। তা না হলে রডগুলো মাথায় ঢুকে গিয়ে বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারতো।

বিকেএসপি পাবলিক স্কুলের প্রধান শিক্ষক এসকে ইনামুল বশার জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি এবং সাথে সাথে সেখানে যারা কাজ করছে তাদেরকে স্কুল আওয়ারে কাজ করতে নিষেধ করে দিয়েছি। ভবনের শুধু প্লাষ্টারের কাজ চলবে অন্য কোন কাজ করা যাবেনা।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষক জানান, অভিবাবকদের জন্য অচিরেই একটি শেড করা হবে। যাতে তারা নিশ্চিন্তে সেখানে বসে সময় কাটাতে পারেন।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea
Intlestore

অসঙ্গতি প্রতিদিন -এর সর্বশেষ

Hairtrade