Bahumatrik Multidimensional news service in Bangla & English
 
৬ বৈশাখ ১৪২৫, শুক্রবার ২০ এপ্রিল ২০১৮, ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ
Globe-Uro

ভেজাল মশলা বিক্রয়ের ভরসা যখন বাবুর্চি!


০৫ মার্চ ২০১৮ সোমবার, ০১:৩৯  এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


ভেজাল মশলা বিক্রয়ের ভরসা যখন বাবুর্চি!
ছবি : বহুমাত্রিক.কম

মৌলভীবাজার : রাজধানী ঢাকা সহ বিভাগীয় ও বড় বড় শহরে ভেজাল, কেমিক্যাল ও রাসায়নিক রং মিশ্রিত পণ্য সামগ্রী উৎপাদনের পাশাপাশি এখন প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিত্য ব্যবহৃত এসব পণ্য সামগ্রী উৎপাদিত ও বাজারজাত হচ্ছে। এসব খাবার খেয়ে বিভিন্ন রোগ ব্যাধী ও কিডনী বিকল হচ্ছে।

বাবুর্চিদের সাথে চুক্তি অনুযায়ী প্রেসক্রিপশনের মাধ্যমে বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদির খাদ্য তৈরিতে এসব পণ্য সামগ্রী চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর বাজারে এ ধরনের কেমিক্যাল ও ভেজাল মশলা তৈরির কারখানায় ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। রোববার বিকালে শমশেরনগর খাদ্য গুদাম সংলগ্ন বিস্মিলøাহ ফুড প্রোডাক্ট ফ্যাক্টরিতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এই অভিযান করেন।

সরেজমিনে অনুসন্ধানকালে জানা যায়, বিস্মিল্লাহ ফুড প্রোডাক্ট বিভিন্ন ধরনের রং, কেমিক্যাল, পোল্ট্রি খাদ্য ও ভূষি মিশ্রিত মধুব্র্যান্ড এর বারো মশলা তৈরিতে নিন্মমানের, খোলা, নকল পন্য ও উন্মুক্ত স্থানে মশলা তৈরি ও বাজারজাত করে আসছে। দীর্ঘদিন যাবত বিএসটিআই এর অনুমতি ব্যতীত রং ও কেমিক্যাল মিশ্রিত মধু ব্র্যান্ড রুস্টের সস ও হিরো ঘি, ভিআইপি ঘি তৈরি ও বিভিন্ন কোম্পানীর পন্য নকল করে কম দামে বাজারজাত করে আসছে।

মফস্বলের স্থানীয় হাটবাজারে এগুলো দেদারসে বিক্রিও হচ্ছে। এসব পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের কর্তারা ডেকোরেটার্স এর সাথে সম্পৃক্ত বাবুর্চিদের সাথে আর্থিক সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে কন্ট্রাক্ট করে নিজেদের উৎপাদিত ঘি ও মশলা বিক্রয় করে চলেছেন। বিবাহসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদিতে বাবুর্চিদের দেয়া তালিকায়ও ওষুধ কোম্পানির লোকদের মতো নির্ধারিত ঘি ও মশলার গুণগত মানের প্রশংসা দেখিয়ে বড় বড় অনুষ্ঠানাদিতে গ্রাহকদের মাধ্যমে সেটি ক্রয়ে বাধ্য করেন।

ভেজাল ও বিষাক্ত রং মিশ্রিত মশলা উৎপাদিত প্রতিষ্ঠানের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ রায় অভিযান চালিয়ে এসব ভেজাল, কেমিক্যাল মিশ্রিত নি¤œমানের মশলা এবং ঘি ও সস তৈরির রং মিশানো পণ্য উদ্ধার করেন। পরে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

এ সময়ে ফ্যাক্টরির মালিককে পাওয়া যায়নি। তবে সন্ধ্যায় ইউএনও অফিসে ফ্যাক্টরির মালিক উপস্থিত হলে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এছাড়াও ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে ঘি এর এক হাজার কার্টুনসহ নকল মালামাল জব্দ এবং পরে সেটি বিনষ্ট করেন। সংশ্লিষ্টরা জানান, এসব ভেজাল ও ক্ষতিকর পণ্য হাটবাজারে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে এবং সেগুলো খেয়ে বিভিন্ন রোগব্যাধী ও কিডনী বিকল হচ্ছে।

কমলগঞ্জ থানার শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ রায় বলেন, এসব কোম্পানী বাবুর্চিদের সাথে আঁতাত করে বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদিতে নিজেদের ভেজাল, নকল ও নিন্মমানের মশলা ও ঘি বিক্রয় করে গ্রাহক ও জনগণের সাথে প্রতারণা করে আসছে।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, রং মিশানো ও ভেজাল পন্য সামগ্রী পাওয়া গেছে। তাছাড়া ঘি তৈরির এর এক হাজার কার্টুনসহ মালামাল জব্দ করা হয়েছে। তাছাড়া ফ্যাক্টরির মালিককে নগদ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea
Intlestore

বিশেষ প্রতিবেদন -এর সর্বশেষ

Hairtrade