Bahumatrik Multidimensional news service in Bangla & English
 
৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭, ১:১২ পূর্বাহ্ণ
Globe-Uro

‘বিএনপি রাজনীতির ধারায় ফিরলে আমরা স্বাগত জানাব’


১২ নভেম্বর ২০১৭ রবিবার, ১০:১৬  পিএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


‘বিএনপি রাজনীতির ধারায় ফিরলে আমরা স্বাগত জানাব’

ঢাকা : সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ দল সবসময় ইতিবাচক রাজনীতির ধারায় রয়েছে। বিএনপি যদি ইতিবাচক রাজনীতির ধারায় ফিরে আসে তাহলে আমরা তাদের স্বাগত জানাব।

রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সাধারণ সম্পাদক এসব কথা বলেন।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত জনসভায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আওয়ামী লীগকে ইতিবাচক রাজনীতি করার যে আহ্বান জানিয়েছেন তাঁর জবাবে কাদের এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার ক্ষমার নমুনা ২১ আগস্ট শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা। একটাই নমুনা দিলাম। তিনি এখন ক্ষমার রাজনীতি না, ক্ষমার নাটক করছেন। তিনি জানেন তাঁর বিরুদ্ধে যে মামলাগুলো চলছে তাঁর হয়তো দণ্ড হয়ে যাবে। সে কারণে তিনি এখন ক্ষমার নাটক সাজাচ্ছেন।’

তিনি বলেন, ‘জুলুম তো করেছে বেগম জিয়া ও বিএনপি। তাঁরা ক্ষমতায় থাকতে আমাদের নেতা শাহ এম এইচ কিবরিয়া, আহসান উল্লাহ মাস্টার, মঞ্জুরুল ইমামকে খুন করেছে। তাদের হাতে আওয়ামী লীগের ২১ হাজার নেতাকর্মীর রক্তের দাগ এখনো আছে। আওয়ামী লীগ কেন ক্ষমা চাইবে। যিনি জুলুম করেছেন তিনি তো আজও জাতির কাছে ক্ষমা চাননি। তাঁর কৃতকর্মের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত। শেখ হাসিনা তো কোনো অন্যায় করেন নাই, তিনি কেন ক্ষমা চাইবেন?’

আওয়ামী লীগ নেতা আরো বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্য ছিল শেখ হাসিনার প্রতি অন্ধ আক্রোশের নগ্ন বহিঃপ্রকাশ।

সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। কোনো দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না। সে সময় যে সরকার থাকবে সেই সরকার পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো নির্বাচন কমিশনকে একটি নিরপেক্ষ, স্বাধীন অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কর্তৃত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সহায়তা করবে।

জনসভায় খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন সরকার বিদেশে এজেন্ট পাঠিয়ে প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগে বাধ্য করেছেন। এ ব্যাপারে কাদের বলেন, ‘তাকে আমি পরামর্শ দিব। আপিল বিভাগের যে পাঁচজন বিচারপতি এখন আছে তাদেরই জিজ্ঞাসা করুন। সরকারই পদত্যাগে বাধ্য করেছে না, তাঁরা প্রধান বিচারপতির কাছে কাজ করবেন না এমন বক্তব্য দিয়েছেন। সেটা তিনি (সুরেন্দ্র কুমার সিনহা) ভালো করেই জানেন, এ জন্য তিনি পদত্যাগ করেছেন। বিদেশে বাংলাদেশের লোক গিয়ে প্রধান বিচারপতির মতো একজন ব্যক্তিকে পদত্যাগে বাধ্য করাবে. এমন অভিযোগ হাস্যকর।’

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea
Intlestore

রাজনীতি -এর সর্বশেষ

Hairtrade