Bahumatrik Multidimensional news service in Bangla & English
 
৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শনিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৭, ২:২৭ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

ঠাকুরগাঁওয়ে শীতের আগমনে লেপ-তোষক বানাতে ব্যস্ত কারিগররা


১৩ নভেম্বর ২০১৭ সোমবার, ০২:০৮  পিএম

নাহিদ রেজা, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

বহুমাত্রিক.কম


ঠাকুরগাঁওয়ে শীতের আগমনে লেপ-তোষক বানাতে ব্যস্ত কারিগররা

ঠাকুরগাঁও : দেখতে দেখতে চলে আসলো হালকা শীতের হাওয়া। আর শীত মানেই প্রশান্তির ঘুমের জন্য সবচেয়ে উপযোগী ঋতু।

দিনে প্রচন্ড গরম, রাতে শীত। সন্ধ্যা নামলেই বইতে শুরু করে হিমেল হাওয়া। রাতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ে ঠান্ডা। সকালে সবুজ ঘাস ও গাছের পাতায় জমছে শিশির কণা।

সেভাবে শীতের শুরু না হলেও জলবায়ু পরিবর্তনে অনুভূত হচ্ছে শীতের আমেজ। আর এই শীত মোকাবিলায় আগাম প্রস্তুতি হিসেবে ঠাকুরগাঁওয়ে হিড়িক পড়েছে লেপ-তোষক বানানোর কারিগরদের।

সারেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শহরের টেকনিকাল মোড়ের সামনে লেপ-তোষক বানাতে ব্যস্ত কারিগররা। দোকানের সামনে বসে একটার পর একটা লেপ-তোষক বানাতে ব্যস্ত কারিগররা।

একটু সামনে গিয়ে আরো চোখে পড়ে সারিতে সারিতে বসে লেপ বানাচ্ছে কারিগররা। সেখানে কথা হয়, নিউ ফরিদপুর গার্মেন্টের মালিক বজলুর রহমানের সাথে। তিনি জানান, কয়েকদিন যাবৎ এখানে রাতে শীত বেশি পড়ায় লোকজন শীতবস্ত্রের প্রতি ঝুঁকছেন। প্রতিদিন আমার এখানে প্রায় ৮-১০টি লেপ-তোশকের অর্ডার হয়ে থাকে।

এ বছর তুলা ও কাপড়ের মূল্যবৃদ্ধি পাওয়ায় গত বছরের তুলনায় এ বছর খরচ বেশি হচ্ছে। যেমন- শিমুল তুলা প্রতি কেজি ৪৫০ থেকে ৫৫০ টাকা, কার্পাস তুলা ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, গার্মেন্টস তৈরি কালো হুলু কালা পচা তুলা ২০ থেকে ৩০ টাকা, সাদা তুলা ৮০ থেকে ১০০ টাকা ক্রয় করি।

এছাড়াও কাপড়ের গজ মান অনুযায়ী প্রতি ৪৫ থেকে ৫০ টাকা। সব মিলিয়ে ভালো মানের একটি লেপ বানাতে ১৫শ থেকে ২ হাজার টাকার মতো খরচ আসে। একই মানের একটি তোষকেও খরচ আসে আড়াই হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা।

লেপ-তোষক সেলাইকর্মী বাবলু,আলী নামে করিগররা বলেন, প্রতিদিন তারা সাত থেকে আটটি লেপ সেলাই করে থাকেন। সাইজ অনুযায়ী প্রতিটি লেপে তারা মুজরি পান ১৫০থেকে ২০০ টাকা। আর সেলাইকর্মীরা সবাই একই নিয়মে মুজরি নিয়ে থাকেন। দিন শেষে ৫’শ থেকে ৮’শ টাকা রোজগার হয় তাদের। তা দিয়েই সংসার চালান তারা।

আরেক ব্যবসায়ী শুকুর আলী জানান, বছরের অন্যান্য সময় মাসে ২ থেকে ৪ জন তোষক কিনতে আসলেও লেপের চাহিদা একেবারেই থাকে না। শীতের শুরু থেকেই লেপ ও তোষক বিক্রি হয়ে থাকে। সব থেকে বেশি বিক্রি হয় লেপ। যে-কারণে চাহিদার কথা মাথায় রেখে লেপ সেলাই কর্মীদের সংখ্যাও বাড়াতে হয় কয়েক গুণ।

লেপ কিনতে আশা ক্রেতা শহিদুল ইসলাম জানান, দিনে গরম থাকলেও রাতে ঘুমানোর সময় প্রচন্ড শীত পড়ে। তাই আগেভাগেই শীতের জন্য একটি লেপ বানিয়ে নিচ্ছি।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
Bay Leaf Premium Tea
Intlestore

বিশেষ প্রতিবেদন -এর সর্বশেষ

Hairtrade