Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
১ পৌষ ১৪২৫, রবিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫:০৩ পূর্বাহ্ণ
Globe-Uro

খুলনায় ওয়াসার সংযোগ দিতে খোড়া হবে ৪৫ হাজার গর্ত


১৮ মার্চ ২০১৮ রবিবার, ০৩:৩৯  এএম

শেখ হেদায়েতুল্লাহ, নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


খুলনায় ওয়াসার সংযোগ দিতে খোড়া হবে ৪৫ হাজার গর্ত
ছবি : ফাইল ছবি

খুলনা : খুলনা মহানগরীতে ওয়াসা কাজ বাস্তবায়নে রাস্তা খুড়াখুড়িতে নগরবাসীর ভৈাগান্তি সহসা দুর হচ্ছে না। আসছে বর্ষা মৌসুমে এ অবস্থায় নগরবাসীকে পড়তে হবে মহাবিড়ম্বনায়। নগরীর খুড়ে ফেলা সড়কের সংস্কার করতে কেসিসির পক্ষ থেকে স্থানীয় মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করা হলেও সেই আবেদনে সাড়া দেয়া হচ্ছে না। এদিকে নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ি খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আর বাকি রয়েছে মাত্র তিন থেকে সাড়ে তিন মাস।

বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতা এবং ওযাসার পাইপ লাইন বসাতে খোড়াখুড়ি, দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়াসহ বিভিন্ন কারণে নগরীর অধিকাংশ সড়কের বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হযেছে। সড়কগুলোতে খানাখন্দ ও ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহন চলাচল মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। মহানগরীর ৬৪০ কিলোমিটার সড়কে ৫৮০ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে খোড়াখুড়ি করা হয়েছে।

এতে নগরবাসী চরম জনদুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। এই দুরবস্থা থেকে নগরবাসী কবে মুক্তি পাবে তাও নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছেন না। ওয়াসার বাসা-বাড়িতে সংযোগ দিতে ২ ফুট বাই তিমফুটের মত গর্ত খোড়া হচ্ছে। ওয়াসার পুরনো সংযোগ রয়েছে ১৯ হাজারের মত। এছাড়া আরও ২৬ হাজার মিলে ৪৫ হাজার গর্ত খোড়া হবে। এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

জানা গেছে, মহানগরীতে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের (কেসিসি) তালিকাভুক্ত ছোট বড় সড়ক রয়েছে এক হাজার ২১৫টি। সড়কগুলোর মোট দৈর্ঘ্য ৬৪০ কিলোমিটার। এর মধ্যে আড়াই শতাধিক গুরুত্বপূর্ণ সড়ক যার দৈর্ঘ্য প্রায় ২০০ কিলোমিটার। এ ছাড়া সিটি কর্পোরেশন এলাকায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের একাধিক সড়ক রয়েছে। প্রধান সড়কসহ অনেকগুলো সড়কে ওয়াসার পানির লাইনের পাইপ বসানোর জন্য ক্ষতবিক্ষত হয়ে আছে।

যেখানে ওয়াসার খোড়াখুড়ি হয়নি এমন সড়কগুলো বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গত বর্ষা মৌসুমে নগরীর এমন কোনো সড়ক নেই, যেখানে খানাখন্দ সৃষ্টি হয়নি। ইট-খোয়া সরে গিয়ে সড়কগুলোতে তৈরি হয়েছে বড় বড় গর্ত। সেসকল গর্তের বেশিরভাগ মেরামত করা হয়নি। আবারও বর্ষা মৌসূম সামনে এ অবস্থায় এ সকল জরাজীর্ন সড়ক সংস্কার করা না হলে দুর্ভোগের অন্ত থাকবে না নগরবাসীর।

কেসিসির নির্বাহী প্রকৌশলী-২ মো: লিয়াকত আলী খান বলেন, নগরীর সড়কের এই বেহাল দশা নিয়ে সম্প্রতি প্রকৌশলীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মেয়র। বৈঠকে দ্রুত সড়কগুলো মেরামতের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পাশাপাশি গতবছর ১ আগস্ট সড়কের দুরবস্থার চিত্র তুলে ধরে মন্ত্রণালয়ে (ডিও) চিঠি পাঠিয়েছেন সিটি মেয়র।

খুলনা সিটি মেয়র মনিরুজ্জামান মনি বলেন, ওয়াসা এমওইউ - মেমোরেন্ডাম অব আনআরস্ট্যান্ডিং (সমাঝোতা স্মারক) অনুয়ায়ী কাজ করছে না। কর্তৃপক্ষকে বার বার বলা সত্বেও তারা কোন গুরুত্ব না দেয়ায় গত ফেব্রুয়ারি মাসে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালযের মন্ত্রী, মূখ্যসচিব, ওয়াসাবোর্ডকে বিষয়টি অবহিত করে কেসিসির পক্ষ থেকে দাপ্তরিক পত্র দেয়া হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। বর্তমানে বাসাবাড়িতে ওয়াসার সংযোগ দেয়া হচ্ছে।

এই সংযোগ দিতে বড় বড় গর্ত খোড়া হচ্ছে। এতে করে নগরীর অলিগলির সড়কগুলো জরাজীণৃ হয়ে পড়ছে। সামনে বর্ষা মৌসূমে নগরবাসীর দুর্ভোগের অন্ত থাকবে না। নগরীর সড়কগুলোর কিছু অংশের পীচ মেশিন দিয়ে কেটে ওয়াসার পাইপ বসানো হয়েছে। ওই সকল স্থান ওয়াসা মেরামত করে দেয়ার কথা রয়েছে।। ওয়াসার কাজ শেষ না হলে পীচ দিয়ে মেরামত করা সম্ভব হচ্ছে না বলে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ জানিযেছেন।

খুলনা ওয়াসা প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী এম . ডি কামাল উদ্দিন আহমেদ ওয়াসার মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য খোড়াখুড়ির কারণে সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া ও নগরবাসীর সাময়িক দুর্ভোগের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের কিছু অংশ সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে মেরামত করে দেয়া হয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের এ্যাসফল্ট প্লান্ট ব্যবহার করে তাদের প্রকৌশলীর তত্ত্বাবধানে সড়ক সংস্কার করা হচ্ছে। কিছু সড়ক চলাচল উপযোগী করার জন্য ইতোমধ্যে কার্পেটিং করে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশনের সড়ক যেখানে যে অবস্থায় ছিল সেখানে সে অবস্থায় মেরামত করে দেয়া হচ্ছে। সিটি মেয়রের অভিযোগ ঠিক নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

BRTA
ভাগ হয়নি ক' নজরুল
Bay Leaf Premium Tea

অসঙ্গতি প্রতিদিন -এর সর্বশেষ