Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
২ কার্তিক ১৪২৫, বুধবার ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ৭:৪৯ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

‘কমিউনিটি বেইজড পর্যটন ও জনসচেতনতা’ শীর্ষক কর্মশালা


০৪ জুন ২০১৮ সোমবার, ০১:২৯  এএম

নূরুল মোহাইমীন মিল্টন, নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


‘কমিউনিটি বেইজড পর্যটন ও জনসচেতনতা’ শীর্ষক কর্মশালা
ছবি : বহুমাত্রিক.কম

মৌলভীবাজার : ‘জাপানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ তাদের নিজস্ব কালচারকে সমৃদ্ধ করছে, আর আমরা নষ্ট করছি। আমরা বনজঙ্গল কেটে হোটেল তৈরি করছি। পাথর কেটে, টিলা কেটে প্রকৃতিকে ধ্বংস করছি। অথচ এগুলো পর্যটন কেন্দ্রের অফুরন্ত সম্ভাবনা। সিলেটের প্রত্যন্ত অঞ্চল কমলগঞ্জে কমিউনিটি ট্যুরিজমের এই উদ্যোগে সফল হলে দেশে নতুন দিগন্ত উম্মোচিত হবে।’

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও আজিয়ার কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম আয়োজিত রোববার কমলগঞ্জের আদমপুরে মণিপুরী কালচারাল কমপ্লেক্সে ‘কমিউনিটি বেইজড পর্যটন ও জনসচেতনতা’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিলেট বিভাগীয় কমিশনার ড. নাজমানারা খানুম এসব কথা বলেন।

সিলেট বিভাগীয় কমিশনার ড. নাজমানারা খানুম আরও বলেন, দেশের কৃষি উৎপাদন ট্যুরিস্টদের সখ্য বিষয়। কৃষি, কালচারাল ও কৃষ্টিকে যথাযথভাবে তোলে ধরতে পারলে ট্যুরিজম আরো আকৃষ্ট হবে। বৃহত্তর সিলেটের পাহাড়-টিলা, অবারিত হাওর, চা বাগান এগুলো মানুষকে আকৃষ্ট করবে। এই সম্পদ ও প্রকৃতিকে বিনষ্ট করে ট্যুরিজম নয়। আমাদের বিপুল পরিমাণ এই সম্পদ ও প্রকৃতিই ট্যুরিজমকে বাঁচিয়ে রাখবে। এই সম্পদ ও প্রকৃতিকে রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে তাদের আর্থিক উন্নয়ন ও নিজস্ব সংস্কৃতি পরিচিতির ভেতরে বিভিন্ন স্তরের মানুষকে সম্পৃক্ত ও পর্যটক বান্ধব সেবা নিশ্চিত করার লক্ষে সিলেট বিভাগে প্রথমবারের মতো কমলগঞ্জের আদমপুরে ভানুবিল মাঝের গাঁও কমিউনিটি ট্যুরিজম এর যাত্রা উপলক্ষে দু’মাস ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি।

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও আজিয়ার কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম আয়োজিত কর্মশালায় আজিয়ার নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিদ হোসেন শামীম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফয়েল ইসলাম, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক, কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোকতাদির হোসেন পিপিএম, আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে আজিয়ার এর নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিদ হোসেন শামীম ভিডিও প্রজেক্টের মাধ্যমে আদমপুর ইউনিয়নের মণিপুরী সম্প্রদায়ের দশটি বাড়ি ও তাদের ব্যবহৃত জিনিসপত্র, ভেষজ গুণ সম্পন্ন খাবারের মেন্যু, বাঁশের তৈরি কুটির শিল্প, তাঁত সহ বিভিন্ন উৎপাদিত পণ্য সামগ্রীর সার্বিক চিত্র তোলে ধরেন।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।