Bahumatrik Multidimensional news service in Bangla & English
 
১০ বৈশাখ ১৪২৫, সোমবার ২৩ এপ্রিল ২০১৮, ১:৩৩ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

‘একুশ শতকে নজরুল` শীর্ষক দু’দিনের আন্তর্জাতিক সম্মেলন


২৩ নভেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার, ০২:৫২  এএম

বহুমাত্রিক ডেস্ক


‘একুশ শতকে নজরুল` শীর্ষক দু’দিনের আন্তর্জাতিক সম্মেলন

ঢাকা : উত্তরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘একুশ শতকে নজরুল` শীর্ষক দুই দিনের আন্তর্জাতিক সম্মেলন শেষ হয়েছে।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেস এর অডিটরিয়ামে দু’দিন ব্যাপী এই সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠান হয়। সম্মেলনের প্রধান আয়োজক বাংলাদেশের উত্তরা ইউনিভার্সিটি ও সহ-আয়োজক জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এবং ভারতের আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ।

‘একুশ শতকে নজরুল’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা জনাব এইচ টি ইমাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এইচ টি ইমাম বলেন, কবি কাজী নজরুল ইসলাম বাংলাদেশের জাতীয় কবি এবং অবিভক্ত বাংলা এবং বাংলাদেশের সাহিত্য, সমাজ ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব। বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে তিনি ‘বিদ্রোহী কবি’ এবং আধুনিক বাংলা গানের জগতে ‘বুলবুল’ নামে খ্যাত। কবি কাজী নজরুল ইসলামের প্রতিভার যথার্থ মূল্যায়নের মাধ্যমে তাঁকে স্বদেশে ফিরিয়ে এনে জাতীয় কবির মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নজরুলচর্চা ও প্রসারে তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। তাঁর সময়কালে ও আন্তরিক পৃষ্ঠপোষকতায় নজরুলচর্চা ব্যপকতা লাভ করেছে।

তিনি আরো বলেন, এই মহান ব্যক্তিত্বকে নিয়ে আয়োজিত ‘একুশ শতকে নজরুল’ শীর্ষক সম্মেলনের সার্বিক সাফল্য কামনা করছি। আমি এ সম্মেলনের আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি নজরুলচর্চার প্রাসঙ্গিকতা এবং সার্বজনীনতা তুলে ধরার প্রয়াসের জন্য। এই সম্মেলনের মাধ্যমে নজরুলের বৈচিত্র্যময় সাহিত্যকর্ম আমাদের সামনে নবরূপে উন্মোচিত হবে এবং তা দেশ ও জাতির চলমান উন্নয়নে অবদান রাখবে মর্মে আমি আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

সমাপনি অনুষ্ঠানের সমাপনি বক্তব্যে উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য এবং ‘একুশ শতকে নজরুল’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলন ২০১৭ এর আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. ইয়াসমীন আরা লেখা সম্মেলনে উপস্থিত সমাপনী অনুষ্ঠানের অতিথিদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

উপ-উপাচার্য বলেন, ২০১৬ সালে ১৯ ও ২০ সেপ্টেম্বর বিশ্বভারতী বাংলা বিভাগের আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ গ্রহণ করার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার। সে সময় আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. তপোধীর ভট্টাচার্যের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামকে নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করব। প্রধান আয়োজক হিসেবে উত্তরা ইউনিভার্সিটি এবং সহ-আয়োজক হিসেবে আসাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়কে রাখার সিদ্ধান্ত নেই। তাই এ দুটি প্রতিষ্ঠানকে এ ধরনের উদ্যোগে উত্তরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সহ-আয়োজক হিসেবে অংশগ্রহন করার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। আশা করছি ভবিষ্যতেও আমরা এ ধরনের উদ্যোগে একত্রে শামিল হতে পারব।

দু’দিন ব্যাপী ‘একুশ শতকে নজরুল’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের স্বাগত বক্তব্য রাখেন উত্তরা ইউনিভার্সিটির বাংলঅ বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক অধ্যাপক ড. আয়েশা বেগম।

দু’দিন ব্যাপী ‘একুশ শতকে নজরুল’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে সারসংক্ষেপ বক্তব্য রাখেন আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের  অধ্যাপক ড. বেলা দাস। দ্বিতীয় দিনের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের এমেরিটাস অধ্যাপক ড. বরুণকুমার চক্রবর্তী, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. আফসার আহমেদ, ভারতীয় হাইকমিশনারের প্রথম সচিব (শিক্ষা) জিষ্ণু প্রসন্ন মুখার্জি, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট, ঢাকার , মহাপরিচালক (অন্তবর্তীকালীন) শেখ মোঃ কাবেদুল ইসলাম, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক(বার্তা) কবি নাসির আহমেদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. রহমান হাবীব, বাংলাদেশ শুল্ক ও গোয়েন্দা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান।

দু’দিন ব্যাপী ‘একুশ শতকে নজরুল’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের সভাপতিত্ব করেন উত্তরা ইউনিভর্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আজিজুর রহমান।

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।