Bahumatrik :: বহুমাত্রিক
 
৯ আশ্বিন ১৪২৫, সোমবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬:১৭ অপরাহ্ণ
Globe-Uro

ঈর্ষার কাছে হেরে গেলেও শ্রদ্ধার আসনটি তাঁরই


১১ নভেম্বর ২০১৭ শনিবার, ১২:২২  এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুমাত্রিক.কম


ঈর্ষার কাছে হেরে গেলেও শ্রদ্ধার আসনটি তাঁরই
ছবি : বহুমাত্রিক.কম

গাজীপুর : মানুষের প্রতি অকৃত্রিম ভালবাসা আর সাংগঠনিক দক্ষতায় শ্রমিক নেতা ও সংসদ সদস্য আহ্সান উল্লাহ্ মাস্টার তৈরি করেছিলেন এক অন্যরকম বলয়। সে বলয় আমজনতার, শ্রমজীবী-বঞ্চিত মানুষের। খুব সহজেই তিনি মানুষের মনের ভাষা বুঝতে পারতেন। গণমানুষকে আকৃষ্ট করার এক বিম্ময়কর ঐন্দ্রজালিক ক্ষমতা ছিল তাঁর।

মানুষ-শিক্ষক, সর্বোপরি গণমানুষের নেতা হিসাবে সর্বসাধারণের ভালবাসায় সিক্ত হয়েছিলেন আহ্সান উল্লাহ্ মাস্টার, যা ছিল রীতিমত ঈর্ষণীয়। নিতান্তই মাটির ঘরে জন্ম নিয়ে আদর্শ রাজনীতিক হিসেবে বর্ণিল ও মহিমান্বিত এক জীবনের অধিকারী হওয়ার গৌরব ছিল তাঁর। সমাজ থেকে সব অসুন্দর-কুৎসিতকে বিদায় করতে জীবনভর যে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছেন তিনি, জীবনের শেষ মুহূর্তেও তা অব্যাহত ছিল। হয়ত এ কারণেই মহল বিশেষের ঈর্ষার কোপানলে হেরে যেতে হয়েছে তাকে, তবে আপামর মানুষের হৃদয়ে শ্রদ্ধার স্থায়ী আসনটাও জয় করতে পেরেছেন আহ্সান উল্লাহ্ মাস্টার-ই। এখানেই তাঁর সার্থকতা।

সন্ত্রাসীদের বুলেটে জীবনপ্রদীপ থেমে যাওয়া গাজীপুরের জনপ্রিয় সংসদ সদস্য ও শ্রমিক নেতা শহীদ আহ্সান উল্লাহ্ মাস্টারের ৬৭তম জন্মবার্ষিকীতে আয়োজিত আলোচনায় এভাবেই তাকে চিত্রয়িত করেন বিশিষ্টজনরা। জনসাধারণের মতো গণমাধ্যমকর্মীদের কাছেও প্রিয়মুখ ‘প্রিয় স্যার’র জন্মদিনে এই আলোচনার আয়োজন করে গাজীপুর প্রেস ক্লাব।

২০০৪ সালের ৫ মে। টঙ্গীতে নিজ বিদ্যালয়ের প্রাঙ্গনে জনসভায় দরাজকণ্ঠে বক্তৃতা করছিলেন আহ্সান উল্লাহ্ মাস্টার। কিন্তু সন্ত্রাসীদের উপর্যুপরি বুলেট তাঁর বক্তৃতা শেষ করতে দেয়নি, কিন্তু মানুষের কাছে সুস্থ রাজনীতি ও জনসেবার যে আদর্শ রেখে গেছেন তিনি, তাও আজও অম্লান।

বৃহস্পতিবার গাজীপুর প্রেস ক্লাবে আলোচনা সভায় বক্তারা প্রিয়নেতার জীবন ও আদর্শের নানদিক তুলে ধরেন। তারা গুরুত্বারোপ করেন, শহীদ আহ্সান উল্লাহ্ মাষ্টারের প্রদর্শিত পথেই যেন রাজনীতি তাঁর সঠিক গন্তব্য খোঁজে নেয়।

প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ এনামুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ ওয়াজ উদ্দিন মিয়া।

অন্যান্যর মধ্যে স্মৃতিচারণামূলক আলোচনায় অংশ নেন-জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ রেজিস্টার আব্দুল মালেক সরকার, শহীদ আহ্সান উল্লাহ্ মাস্টার এমপি স্মৃতি পরিষদ’র সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মোঃ আতাউর রহমান, প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মুকুল কুমার মল্লিক, দৈনিক গণমুখ সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসেন, প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মোঃ মুুজিবুর রহমান ও মোঃ খায়রুল ইসলাম, কোনাবাড়ী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ বিল্লাল হোসেন, দৈনিক মুক্ত বলাকার সম্পাদক মোঃ আলমগীর হোসেন, সাপ্তাহিক বাংলাভূমি’র সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম আজহার, সাংবাদিক ও কবি সৈয়দ মোকছেদুল আলম, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম নজরুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ রুহুল আমিন সজিব, অনিল মন্ডল, এম. এ ফিরোজ লাভলু, বাসস’র জেলা প্রতিনিধি ও বীরমুক্তিযোদ্ধা শেখ শহীদুল্লাহ, সাংবাদিক মোঃ আবুল হোসেন, মোঃ হোসাইন ইমাম, এম. এ ফরিদ, মোঃ নূরুল আমিন সিকদার প্রমুখ।

 

বহুমাত্রিক.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।